বাংলা নিউজ > ছবিঘর > ‘সমৃদ্ধির সমার্থক’, একনজরে সরকারি কর্মীদের জন্য মোদী সরকারের পুজোর উপহার

‘সমৃদ্ধির সমার্থক’, একনজরে সরকারি কর্মীদের জন্য মোদী সরকারের পুজোর উপহার

  • মাত্র ১০ দিন। উৎসবের মরশুমে সেই কয়েকদিনের ব্যবধানে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের একাধিক ‘উপহার’ দিয়েছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। কেন্দ্রের মতে, কর্মীদের হাতে বাড়তি টাকা থাকায় কেনাকাটা বাড়বে। তার ফলে ধীরে ধীরে অর্থনীতিতে গতি আসবে। একনজরে দেখে নিন সরকারি কর্মীদের জন্য মোদী সরকারের পুজোর উপহার -
উৎসবের মুখে গত ১২ অক্টোবর সরকারি কর্মচারীদের অগ্রিম ঋণের ঘোষণা করেছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। সেই প্রকল্পের আওতায় সকল কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের (গেজেটেড এবং নন-গেজেটেড) এককালীন ১০,০০০ টাকা দেওয়া হবে। প্রিপেড রুপে কার্ড (RuPay Card) হিসেবে সেই অর্থ দেওয়া হবে। তবে সেই কার্ডের মাধ্যমে এটিএম থেকে নগদ অর্থ তোলা যাবে না। তাতেও কোনও সুদ দিতে হবে না। শুধু ১০ কিস্তিতে টাকা মিটিয়ে দিতে হবে। আগামী বছর ৩১ মার্চের মধ্যে সেই অর্থ খরচের সুযোগ পাবেন কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
1/5উৎসবের মুখে গত ১২ অক্টোবর সরকারি কর্মচারীদের অগ্রিম ঋণের ঘোষণা করেছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। সেই প্রকল্পের আওতায় সকল কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের (গেজেটেড এবং নন-গেজেটেড) এককালীন ১০,০০০ টাকা দেওয়া হবে। প্রিপেড রুপে কার্ড (RuPay Card) হিসেবে সেই অর্থ দেওয়া হবে। তবে সেই কার্ডের মাধ্যমে এটিএম থেকে নগদ অর্থ তোলা যাবে না। তাতেও কোনও সুদ দিতে হবে না। শুধু ১০ কিস্তিতে টাকা মিটিয়ে দিতে হবে। আগামী বছর ৩১ মার্চের মধ্যে সেই অর্থ খরচের সুযোগ পাবেন কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে অনেকে সরকারি কর্মচারী ছুটিতে ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা বাতিল করেছেন। তাঁদের জন্য সম্প্রতি এলটিসি ক্যাশ ভাউচার চালু করেছে কেন্দ্র। রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার কর্মচারীরাও সেই সুবিধা নিতে পারেন। এবার করোনার জেরে যেহেতু অনেকেরই বাড়ি যাওয়া বা কোথাও বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা শিকেয় উঠেছে, তাই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরা এলটিসির ভাড়া (ট্রেন বা উড়ানের ভাড়া) এবং লিভ এনক্যাশমেন্টর সমতুল্য নগদ নেওয়ার সুবিধা পাবেন। এলিটিসির করবিহীন অংশের পরিবর্তে কর্মচারীরা পণ্য কিনতে পারবেন। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
2/5করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে অনেকে সরকারি কর্মচারী ছুটিতে ঘুরতে যাওয়ার পরিকল্পনা বাতিল করেছেন। তাঁদের জন্য সম্প্রতি এলটিসি ক্যাশ ভাউচার চালু করেছে কেন্দ্র। রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার কর্মচারীরাও সেই সুবিধা নিতে পারেন। এবার করোনার জেরে যেহেতু অনেকেরই বাড়ি যাওয়া বা কোথাও বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা শিকেয় উঠেছে, তাই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরা এলটিসির ভাড়া (ট্রেন বা উড়ানের ভাড়া) এবং লিভ এনক্যাশমেন্টর সমতুল্য নগদ নেওয়ার সুবিধা পাবেন। এলিটিসির করবিহীন অংশের পরিবর্তে কর্মচারীরা পণ্য কিনতে পারবেন। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
তবে এনটিসি ক্যাস ভাউচার প্রকল্পের জন্য কর্মচারীকে লিভ এনক্যাশমেন্ট হিসেবে প্রাপ্য পুরো অর্থ এবং ট্রেন বা উড়ানের ভাড়া বাবদ প্রাপ্য অর্থের তিনগুণ খরচ করে পণ্য কিনতে হবে। আগামী বছর ৩১ মার্চের মধ্যে সেই টাকা খরচ করতে হবে। যে দ্রব্যগুলির জিএসটি ১২ শতাংশ বা তার বেশি, সেগুলির কেনার ক্ষেত্রেই এই সুবিধা মিলবে। কর্মচারীদের একটি ভাউচার নিতে হবে। যেখানে জিএসটি নম্বর এবং জিএসটি বাবদ কত টাকা দেওয়া হয়েছে, তার উল্লেখ থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)
3/5তবে এনটিসি ক্যাস ভাউচার প্রকল্পের জন্য কর্মচারীকে লিভ এনক্যাশমেন্ট হিসেবে প্রাপ্য পুরো অর্থ এবং ট্রেন বা উড়ানের ভাড়া বাবদ প্রাপ্য অর্থের তিনগুণ খরচ করে পণ্য কিনতে হবে। আগামী বছর ৩১ মার্চের মধ্যে সেই টাকা খরচ করতে হবে। যে দ্রব্যগুলির জিএসটি ১২ শতাংশ বা তার বেশি, সেগুলির কেনার ক্ষেত্রেই এই সুবিধা মিলবে। কর্মচারীদের একটি ভাউচার নিতে হবে। যেখানে জিএসটি নম্বর এবং জিএসটি বাবদ কত টাকা দেওয়া হয়েছে, তার উল্লেখ থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)
পঞ্চমীতে সরকারি কর্মচারীদের জন্য ৩,৭৩৭ কোটি টাকার বোনাসে অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর বলেন, ‘২০১৯-২০ অর্থবর্ষের জন্য প্রোডাক্টিভিটি এবং নন-প্রোডাক্টিভিটি বোনাসে অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। তার ফলে ৩০ লাখের বেশি নন-গেজেটেড সরকারি কর্মচারী (৩০.৬৭ লাখ) লাভবান হবেন এবং সেই ঘোষণার জন্য খরচ পড়বে ৩,৭৩৭ কোটি টাকা।’ দশমীর আগেই সরাসরি সরকারি কর্মচারীদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সেই বোনাসের টাকা পৌঁছে যাবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
4/5পঞ্চমীতে সরকারি কর্মচারীদের জন্য ৩,৭৩৭ কোটি টাকার বোনাসে অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর বলেন, ‘২০১৯-২০ অর্থবর্ষের জন্য প্রোডাক্টিভিটি এবং নন-প্রোডাক্টিভিটি বোনাসে অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। তার ফলে ৩০ লাখের বেশি নন-গেজেটেড সরকারি কর্মচারী (৩০.৬৭ লাখ) লাভবান হবেন এবং সেই ঘোষণার জন্য খরচ পড়বে ৩,৭৩৭ কোটি টাকা।’ দশমীর আগেই সরাসরি সরকারি কর্মচারীদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সেই বোনাসের টাকা পৌঁছে যাবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
বুধবার কেন্দ্রের সেই নয়া ঘোষণার পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, 'সমৃদ্ধির সমার্থক মোদী সরকার। আজ মন্ত্রিসভার বৈঠকে অবিলম্বে বোনাস দেওয়ার অনুমতি দিয়ে উৎসবের মরশুমের আগে ৩০.৬৭ কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের জীবনে আনন্দ নিয়ে আসার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।' (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
5/5বুধবার কেন্দ্রের সেই নয়া ঘোষণার পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, 'সমৃদ্ধির সমার্থক মোদী সরকার। আজ মন্ত্রিসভার বৈঠকে অবিলম্বে বোনাস দেওয়ার অনুমতি দিয়ে উৎসবের মরশুমের আগে ৩০.৬৭ কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের জীবনে আনন্দ নিয়ে আসার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।' (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
অন্য গ্যালারিগুলি