বাংলা নিউজ > ছবিঘর > তিনটে কেমো নিয়ে সোজা শ্যুটিং সেটে ঐন্দ্রিলা, কেমন আছেন ‘জিয়নকাঠি’র নায়িকা?

তিনটে কেমো নিয়ে সোজা শ্যুটিং সেটে ঐন্দ্রিলা, কেমন আছেন ‘জিয়নকাঠি’র নায়িকা?

  • কেমো নিয়েছেন, শরীর দুর্বল। তবে জিয়নকাঠির সেটে শ্যুটিং করছেন অভিনেত্রী। কথা বললেন সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গেও। 
মাথার এক ঢাল চুল কেটে বব কাট করে ফেলেছেন। লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনের সামনে চেনা মেকআপ রুমে দেখা মিলেছে ঐন্দ্রিলার। চেনা মানুষেদের ভিড়ে চেনা জায়গায় ফিরে কাজে যোগ দিয়ে বেশ খুশি অভিনেত্রী।
1/12মাথার এক ঢাল চুল কেটে বব কাট করে ফেলেছেন। লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনের সামনে চেনা মেকআপ রুমে দেখা মিলেছে ঐন্দ্রিলার। চেনা মানুষেদের ভিড়ে চেনা জায়গায় ফিরে কাজে যোগ দিয়ে বেশ খুশি অভিনেত্রী।
কর্কট রোগের সঙ্গে লড়াই অব্যাহত। কেমোথেরাপিও চলছে। প্রথম কেমো নেওয়ার পর আন্তর্জাতিক নারী দিবস অর্থাৎ ৮ মার্চ শ্যুটিং ফ্লোরে ফিরেছেন ‘জিয়নকাঠি’ ধারাবাহিক খ্যাত অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। (ছবি সৌজন্য ইনস্টাগ্রাম aindrila.sharma)
2/12কর্কট রোগের সঙ্গে লড়াই অব্যাহত। কেমোথেরাপিও চলছে। প্রথম কেমো নেওয়ার পর আন্তর্জাতিক নারী দিবস অর্থাৎ ৮ মার্চ শ্যুটিং ফ্লোরে ফিরেছেন ‘জিয়নকাঠি’ ধারাবাহিক খ্যাত অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। (ছবি সৌজন্য ইনস্টাগ্রাম aindrila.sharma)
অভিনেত্রীর কথায়, ‘মনের জোর তো রাখতেই হবে। কারণ এত লম্বা একটা ট্রিটমেন্ট করাতে হবে। মনের জোর ৯০ শতাংশ দরকার। সেটা ছাড়া তো আর এগোতে পারব না’।
3/12অভিনেত্রীর কথায়, ‘মনের জোর তো রাখতেই হবে। কারণ এত লম্বা একটা ট্রিটমেন্ট করাতে হবে। মনের জোর ৯০ শতাংশ দরকার। সেটা ছাড়া তো আর এগোতে পারব না’।
এই নিয়ে দ্বিতীয়বার মারণ রোগ থাবা বসিয়েছে ঐন্দ্রিলার শরীরে। পাঁচ বছর পর ফের ক্যানসার আক্রান্ত অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা, মানে জিয়নকাঠির জাহ্নবী। তবে অদম্য জেদ আর ইচ্ছা নিয়ে এই মারণ রোগকে ফের হারিয়ে দিতে বদ্ধপরিকর তিনি।
4/12এই নিয়ে দ্বিতীয়বার মারণ রোগ থাবা বসিয়েছে ঐন্দ্রিলার শরীরে। পাঁচ বছর পর ফের ক্যানসার আক্রান্ত অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা, মানে জিয়নকাঠির জাহ্নবী। তবে অদম্য জেদ আর ইচ্ছা নিয়ে এই মারণ রোগকে ফের হারিয়ে দিতে বদ্ধপরিকর তিনি।
শরীরে থাবা বসিয়েছে মারণ রোগ। তবে মন থেকে যথেষ্ট শক্ত ঐন্দ্রিলা। তার কথা, ‘মন এখন আগের থেকে অনেক ভালো আছে। বিষেয়টাকে মেনে নেওয়া কঠিন। তবে ওই ফেজটা থেকে আমি কাটিয়ে উঠতে পেরেছি। মেনে নিতে পেরেছি আমার রোগটা হয়েছে, আমাকে চিকিৎসা করতে হবে। এখন মনের অবস্থা আগের থেকে অনেক ভালো।’ 
5/12শরীরে থাবা বসিয়েছে মারণ রোগ। তবে মন থেকে যথেষ্ট শক্ত ঐন্দ্রিলা। তার কথা, ‘মন এখন আগের থেকে অনেক ভালো আছে। বিষেয়টাকে মেনে নেওয়া কঠিন। তবে ওই ফেজটা থেকে আমি কাটিয়ে উঠতে পেরেছি। মেনে নিতে পেরেছি আমার রোগটা হয়েছে, আমাকে চিকিৎসা করতে হবে। এখন মনের অবস্থা আগের থেকে অনেক ভালো।’ 
পরিবারের কছে দারুণ শক ছিল ঐন্দ্রিলার করোনা আক্রান্ত হওয়ার খাবর। এর আগে ২০১৫ সালে একাদশ শ্রেণিতে পড়ার সময় ক্যানসার আক্রান্ত হয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা। দীর্ঘ দেড় বছর ধরে লড়াইয়ের পর স্বাভাবিক জীবনে ফেরেন। জয়ী হন যুদ্ধে। 
6/12পরিবারের কছে দারুণ শক ছিল ঐন্দ্রিলার করোনা আক্রান্ত হওয়ার খাবর। এর আগে ২০১৫ সালে একাদশ শ্রেণিতে পড়ার সময় ক্যানসার আক্রান্ত হয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা। দীর্ঘ দেড় বছর ধরে লড়াইয়ের পর স্বাভাবিক জীবনে ফেরেন। জয়ী হন যুদ্ধে। 
অভিনেত্রী জানিয়েছেন, হঠাৎ করে পিঠে ব্য়থা, তাঁর বাবা একেবারে দেরি না করে বাবা-মায়ের সঙ্গে দিল্লি পাড়ি দেন তিনি। সেখানে ঘনিষ্ঠ বন্ধু সব্যসাচী কলকাতায় ছুটি নিয়ে দিল্লি চলে যান। অভিনেত্রীর তিন দিন কেমো ট্রিটমেন্টে দুদিন পাশে ছিলেন বন্ধু সব্যসচী।
7/12অভিনেত্রী জানিয়েছেন, হঠাৎ করে পিঠে ব্য়থা, তাঁর বাবা একেবারে দেরি না করে বাবা-মায়ের সঙ্গে দিল্লি পাড়ি দেন তিনি। সেখানে ঘনিষ্ঠ বন্ধু সব্যসাচী কলকাতায় ছুটি নিয়ে দিল্লি চলে যান। অভিনেত্রীর তিন দিন কেমো ট্রিটমেন্টে দুদিন পাশে ছিলেন বন্ধু সব্যসচী।
বন্ধু-পরিবারই তাঁর মনের জোর। চিকিৎসায় অত দূর এগিয়ে গিয়েও পাশে সব্যসাচীকে পেয়ে মনের জোর পেয়েছিলেন তিনি।
8/12বন্ধু-পরিবারই তাঁর মনের জোর। চিকিৎসায় অত দূর এগিয়ে গিয়েও পাশে সব্যসাচীকে পেয়ে মনের জোর পেয়েছিলেন তিনি।
অতিমারির জন্য নানা সচেতনতা বিধি মেনে ফ্লোরে শ্যুটিং করছেন ঐন্দ্রিয়া। খুব অল্প অল্প শ্যুটিং করছেন তিনি। তাঁর শরীরের কথা মাথায় রেখে। 
9/12অতিমারির জন্য নানা সচেতনতা বিধি মেনে ফ্লোরে শ্যুটিং করছেন ঐন্দ্রিয়া। খুব অল্প অল্প শ্যুটিং করছেন তিনি। তাঁর শরীরের কথা মাথায় রেখে। 
চিকিৎসকদের কথায় আগামী ৬ মাস চিকিৎসা চলবে ঐন্দ্রিয়ার। দিনকয়েক আগে প্রথম কেমো নিয়েছেন। সেই কারণে শরীর দুর্বল। দ্বিতীয়বার কেমো নেবেন আগামী ১৯ মার্চ। দিল্লির এক বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে অভিনেত্রীর।
10/12চিকিৎসকদের কথায় আগামী ৬ মাস চিকিৎসা চলবে ঐন্দ্রিয়ার। দিনকয়েক আগে প্রথম কেমো নিয়েছেন। সেই কারণে শরীর দুর্বল। দ্বিতীয়বার কেমো নেবেন আগামী ১৯ মার্চ। দিল্লির এক বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে অভিনেত্রীর।
১৬টি কেমো আর ৩৩টি রেডিয়েশনের পর গতবার ক্যানসার যুদ্ধে জয়ী হয়েছিলেন। এবারও লড়াই ছাড়তে নারাজ তিনি। পাশে রয়েছে পরিবার, অসংখ্য অনুরাগী, সহকর্মী এবং প্রিয় বন্ধু সব্যসাচী চৌধুরী। তিনি লড়াই চালিয়ে যাবেন বলেই জানিয়েছেন।
11/12১৬টি কেমো আর ৩৩টি রেডিয়েশনের পর গতবার ক্যানসার যুদ্ধে জয়ী হয়েছিলেন। এবারও লড়াই ছাড়তে নারাজ তিনি। পাশে রয়েছে পরিবার, অসংখ্য অনুরাগী, সহকর্মী এবং প্রিয় বন্ধু সব্যসাচী চৌধুরী। তিনি লড়াই চালিয়ে যাবেন বলেই জানিয়েছেন।
অভিনেত্রী জানিয়েছেন, আগের থেকে অনেক ভাল আছেন। অনুরাগীদের প্রার্থনায় ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি। চিকিৎসার সময়টুকু অনুরাগীদের তাঁর পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন অভিনেত্রী।
12/12অভিনেত্রী জানিয়েছেন, আগের থেকে অনেক ভাল আছেন। অনুরাগীদের প্রার্থনায় ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি। চিকিৎসার সময়টুকু অনুরাগীদের তাঁর পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন অভিনেত্রী।
অন্য গ্যালারিগুলি