বাড়ি > ছবিঘর > করোনাভাইরাসের উপসর্গ কী কী ? অসুখই বা কীভাবে রুখবেন? হেল্পলাইন চালু কেন্দ্রের

করোনাভাইরাসের উপসর্গ কী কী ? অসুখই বা কীভাবে রুখবেন? হেল্পলাইন চালু কেন্দ্রের

  • চিন তো বটেই, করোনাভাইরাস আতঙ্কে কাঁপছে বিশ্বের অনেক দেশ। হু হু করে বাড়ছে মৃত্যু সংখ্যা। বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যাও। ভারতেও একজনের দেহে করোনাভাইরাস পাওয়া গিয়েছে। তারপর সাধারণ মানুষের আতঙ্ক আরও বেড়েছে। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে তার উপসর্গ কী, বা সংক্রমণ রুখতে কী করা উচিত, তা দেখে নিন -
একটি বড় পরিবারভুক্ত ভাইরাস হল নোভেল করোনাভাইরাস (2019-nCoV)। এই ভাইরাসের ফলে সাধারণ সর্দি-কাশি থেকে প্রবল শ্বাসকষ্ট (অ্যাকিুট রেসপিরেটরি সিনড্রোম) হয়। তা মারাত্মক পর্যায়ে পৌঁছালে মৃত্যুও হয়। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
1/10একটি বড় পরিবারভুক্ত ভাইরাস হল নোভেল করোনাভাইরাস (2019-nCoV)। এই ভাইরাসের ফলে সাধারণ সর্দি-কাশি থেকে প্রবল শ্বাসকষ্ট (অ্যাকিুট রেসপিরেটরি সিনড্রোম) হয়। তা মারাত্মক পর্যায়ে পৌঁছালে মৃত্যুও হয়। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
কীভাবে সংক্রমণ? স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, বাদুড়ের দেহ থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। তারপর অন্য কোনও প্রাণীর মাধ্যমে তা মানুষের শরীরে ঢুকেছে। (ছবি সৌজন্য এপি)
2/10কীভাবে সংক্রমণ? স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, বাদুড়ের দেহ থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। তারপর অন্য কোনও প্রাণীর মাধ্যমে তা মানুষের শরীরে ঢুকেছে। (ছবি সৌজন্য এপি)
কীভাবে ভাইরাস ছড়িয়েছে? প্রাথমিকভাবে অনুমান, উহানের একটি ফুড মার্কেট থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। সেখানে অবৈধভাবে বন্য জন্ত ও মাংস বিক্রি হত। (ছবি সৌজন্য এএফপি)
3/10কীভাবে ভাইরাস ছড়িয়েছে? প্রাথমিকভাবে অনুমান, উহানের একটি ফুড মার্কেট থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। সেখানে অবৈধভাবে বন্য জন্ত ও মাংস বিক্রি হত। (ছবি সৌজন্য এএফপি)
করোনাভাইরাস কতটা মারাত্মক হতে পারে, সেই ব্যাপকতা এখনও পুরোপুরি বোঝা যায়নি। তবে বিশেষজ্ঞদের একটি অংশের মতে, যাঁরা মারা গিয়েছেন তাঁদের অনেকের আগে থেকে কিছু অসুস্থতা ছিল বা তাঁরা বয়স্ক বা তাঁদের দেহের প্রতিরোধ শক্তি কম ছিল। (ছবি সৌজন্য এপি)
4/10করোনাভাইরাস কতটা মারাত্মক হতে পারে, সেই ব্যাপকতা এখনও পুরোপুরি বোঝা যায়নি। তবে বিশেষজ্ঞদের একটি অংশের মতে, যাঁরা মারা গিয়েছেন তাঁদের অনেকের আগে থেকে কিছু অসুস্থতা ছিল বা তাঁরা বয়স্ক বা তাঁদের দেহের প্রতিরোধ শক্তি কম ছিল। (ছবি সৌজন্য এপি)
কীভাবে মানুষের দেহে প্রবেশ করে? মানুষের সঙ্গে মানুষের সংযোগেও এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। ইতিমধ্যে জার্মানি, জাপান ও ভিয়েতনামে এরকমভাবে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার খবর মিলেছে। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
5/10কীভাবে মানুষের দেহে প্রবেশ করে? মানুষের সঙ্গে মানুষের সংযোগেও এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। ইতিমধ্যে জার্মানি, জাপান ও ভিয়েতনামে এরকমভাবে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার খবর মিলেছে। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
শ্বাসের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে এই ভাইরাস। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি হাঁচি বা কাশির ফলে বাতাসে ভাইরাস ছড়িয়ে যায়। তা বাতাসের কণার সঙ্গে মিশে যায়। ফলে আক্রান্ত ব্যক্তির কাছাকাছি থাকলে শ্বাসের মাধ্যমে এই ভাইরাস অন্য ব্যক্তির দেহে প্রবেশ করবে। (ছবি সৌজন্য এএফপি)
6/10শ্বাসের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে এই ভাইরাস। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি হাঁচি বা কাশির ফলে বাতাসে ভাইরাস ছড়িয়ে যায়। তা বাতাসের কণার সঙ্গে মিশে যায়। ফলে আক্রান্ত ব্যক্তির কাছাকাছি থাকলে শ্বাসের মাধ্যমে এই ভাইরাস অন্য ব্যক্তির দেহে প্রবেশ করবে। (ছবি সৌজন্য এএফপি)
এছাড়াও আক্রান্ত ব্যক্তিকে ছুঁলে বা যে দ্রব্য ভাইরাস আছে তা ছোঁয়ার পর মুখ, চোখ বা নাকে হাত দিলেও ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
7/10এছাড়াও আক্রান্ত ব্যক্তিকে ছুঁলে বা যে দ্রব্য ভাইরাস আছে তা ছোঁয়ার পর মুখ, চোখ বা নাকে হাত দিলেও ভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে পারে। (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
উপসর্গ : ১) কাশি ২) জ্বর ৩) নিউমোনিয়া ৪) শ্বাসকষ্ট ৫) বমি ৬) ডায়েরিয়া (ছবি সৌজন্য এপি)
8/10উপসর্গ : ১) কাশি ২) জ্বর ৩) নিউমোনিয়া ৪) শ্বাসকষ্ট ৫) বমি ৬) ডায়েরিয়া (ছবি সৌজন্য এপি)
সুরক্ষিত থাকার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বিভিন্ন সুপারিশ করেছে। ১) মাঝেমধ্যেই হাত-মুখ ভালোভাবে ধুয়ে নিন। ২) যেহেতু শ্বাসের মাধ্যমে এই ভাইরাস মানবদেহে প্রবেশ করে, তাই মাস্ক ব্যবহার করুন। ৩) হাঁচি-কাশির সময় নাকে-মুখে চাপা দিন। ৪) যাঁরা অসুস্থ তাঁদের সঙ্গে সম্পর্শ এড়িয়ে চলুন। (ছবি সৌজন্য এপি)
9/10সুরক্ষিত থাকার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বিভিন্ন সুপারিশ করেছে। ১) মাঝেমধ্যেই হাত-মুখ ভালোভাবে ধুয়ে নিন। ২) যেহেতু শ্বাসের মাধ্যমে এই ভাইরাস মানবদেহে প্রবেশ করে, তাই মাস্ক ব্যবহার করুন। ৩) হাঁচি-কাশির সময় নাকে-মুখে চাপা দিন। ৪) যাঁরা অসুস্থ তাঁদের সঙ্গে সম্পর্শ এড়িয়ে চলুন। (ছবি সৌজন্য এপি)
নোভেল করোনাভাইরাস সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য জানানোর জন্য ২৪ ঘণ্টার একটি হেল্পলাইন নম্বর চালু করেছে ভারত সরকার। উপসর্গ থেকে শুরু নিকটতম হাসপাতালের খবর- যাবতীয় তথ্য দেওয়া হবে। (ছবি সৌজন্য টুইটার @MoHFW_INDIA)
10/10নোভেল করোনাভাইরাস সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য জানানোর জন্য ২৪ ঘণ্টার একটি হেল্পলাইন নম্বর চালু করেছে ভারত সরকার। উপসর্গ থেকে শুরু নিকটতম হাসপাতালের খবর- যাবতীয় তথ্য দেওয়া হবে। (ছবি সৌজন্য টুইটার @MoHFW_INDIA)
অন্য গ্যালারিগুলি