বাংলা নিউজ > ছবিঘর > সমুদ্র সৈকতে 'সানবাথ' থেকে বালিতে পায়ের ছাপ, দেখুন দেব-রুক্মিনীর মলদ্বীপ ডায়েরি

সমুদ্র সৈকতে 'সানবাথ' থেকে বালিতে পায়ের ছাপ, দেখুন দেব-রুক্মিনীর মলদ্বীপ ডায়েরি

  • রাজনীতি এবং অভিনয় থেকে সামান্য ব্রেক নিয়ে বান্ধবী রুক্মিণী মৈত্রের সঙ্গে মলদ্বীপে উড়ে গেছেন দেব। সেখানে পাশাপাশি দাঁড়িয়ে ছবি না তুললেও একে অপরের দারুণ সব ছবি তুলে দিতে কার্পণ্য করেননি তাঁরা।
রাজনীতি এবং অভিনয় থেকে সামান্য ব্রেক নিয়ে বাঁধমী রুক্মিণী মৈত্রের সঙ্গে মালদ্বীপে উড়ে গেছেন দেব। সেখানে কোয়ালিটি টাইম কাটানোর পাশে মাছ ধরতে ব্যস্ত দেব। এককথায় দেব যে পাকা মাছ শিকারী তাঁর ঘনিষ্ঠ পরিবৃত্তে সবাই জানেন। এর আগেও মায়ামি ঘুরতে গিয়েও সেখানকার সমুদ্রে থেকে নায়কের মাছ ধরার ছবি প্রকাশ্যে এসেছিল। ( ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)
1/7রাজনীতি এবং অভিনয় থেকে সামান্য ব্রেক নিয়ে বাঁধমী রুক্মিণী মৈত্রের সঙ্গে মালদ্বীপে উড়ে গেছেন দেব। সেখানে কোয়ালিটি টাইম কাটানোর পাশে মাছ ধরতে ব্যস্ত দেব। এককথায় দেব যে পাকা মাছ শিকারী তাঁর ঘনিষ্ঠ পরিবৃত্তে সবাই জানেন। এর আগেও মায়ামি ঘুরতে গিয়েও সেখানকার সমুদ্রে থেকে নায়কের মাছ ধরার ছবি প্রকাশ্যে এসেছিল। ( ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)
কালো স্লিভলেস টপ আর প্যান্টে হট লুকে রুক্মিনী। একই ব্যাকগ্রাউন্ডে মলদ্বীপের ঘন সবুজ প্রকৃতির মাঝে কটেজের ছায়ায় পানীয়ের গ্লাসে দিব্যি আয়েশ করে চুমুক দিচ্ছেন দেব। পরিবেশের সঙ্গে দিব্যি মানিয়েছে অলিভ রঙের দেবের হাফ স্লিভ শার্ট-এর সঙ্গে মানানসই রঙের ট্রাউজার্স। একসঙ্গে ছবি পোস্ট না করলেও একসঙ্গে থাকবার প্রমাণ দিতে কুন্ঠাবোধ করেন না দেবক্মিনী।
2/7কালো স্লিভলেস টপ আর প্যান্টে হট লুকে রুক্মিনী। একই ব্যাকগ্রাউন্ডে মলদ্বীপের ঘন সবুজ প্রকৃতির মাঝে কটেজের ছায়ায় পানীয়ের গ্লাসে দিব্যি আয়েশ করে চুমুক দিচ্ছেন দেব। পরিবেশের সঙ্গে দিব্যি মানিয়েছে অলিভ রঙের দেবের হাফ স্লিভ শার্ট-এর সঙ্গে মানানসই রঙের ট্রাউজার্স। একসঙ্গে ছবি পোস্ট না করলেও একসঙ্গে থাকবার প্রমাণ দিতে কুন্ঠাবোধ করেন না দেবক্মিনী।
এ যেন ফিরে পাওয়া এক টুকরো শৈশবে। রাজনীতি, স্টারডম সব সরিয়ে নারকোল গাছে উঠে রোদ পোহানো। সময় নিয়ে সমুদ্রের নোন হাওয়া গায়ে মাখা। মলদ্বীপের সমুদ্র সৈকতে দিব্যি নাক ডাকিয়ে ঘুম দিয়েছেন এই টলি-তারকা।
3/7এ যেন ফিরে পাওয়া এক টুকরো শৈশবে। রাজনীতি, স্টারডম সব সরিয়ে নারকোল গাছে উঠে রোদ পোহানো। সময় নিয়ে সমুদ্রের নোন হাওয়া গায়ে মাখা। মলদ্বীপের সমুদ্র সৈকতে দিব্যি নাক ডাকিয়ে ঘুম দিয়েছেন এই টলি-তারকা।
কম যান না রুক্মিণী মৈত্র-ও। আয়েশ করে সংবাদ নিতে ব্যস্ত তিনিও। তবে প্রেমিকের মতো নারকোল গাছে উঠে নয়। হোটেলের সুইমিং পুলের পাশে লাস্যময়ী ভঙ্গিতে রুক্মিনীকে দেখে মুগ্ধ তাঁর অনুরাগীরা। এ ছবি যে যত্ন করে দেব-এর তোলা সেকথা বুঝি না বললেও চলে।
4/7কম যান না রুক্মিণী মৈত্র-ও। আয়েশ করে সংবাদ নিতে ব্যস্ত তিনিও। তবে প্রেমিকের মতো নারকোল গাছে উঠে নয়। হোটেলের সুইমিং পুলের পাশে লাস্যময়ী ভঙ্গিতে রুক্মিনীকে দেখে মুগ্ধ তাঁর অনুরাগীরা। এ ছবি যে যত্ন করে দেব-এর তোলা সেকথা বুঝি না বললেও চলে।
জায়গার নাম মোটেই উল্লেখ করেননি 'কবীর'-এর নায়িকা। তবে যে ভারত মহাসাগরের 'কোনও এক জায়গায়' রয়েছেন সেকোথাও জানাতে ভোলেননি রুক্মিণী। সমুদ্রের লাগোয়া হোটেলের পাব রেস্তরাঁয় দিব্যি খোশমেজাজেই রয়েছেন তিনি।
5/7জায়গার নাম মোটেই উল্লেখ করেননি 'কবীর'-এর নায়িকা। তবে যে ভারত মহাসাগরের 'কোনও এক জায়গায়' রয়েছেন সেকোথাও জানাতে ভোলেননি রুক্মিণী। সমুদ্রের লাগোয়া হোটেলের পাব রেস্তরাঁয় দিব্যি খোশমেজাজেই রয়েছেন তিনি।
হোটেলের কামরার বারান্দায় কিংবা 'ডেক'-এ এসে দাঁড়ালেই দেখা যায় আদি দিগন্ত সমুদ্র। হাত বাড়ালেই সমুদ্রের নীল জলের ছোঁয়া। তাই সেই দৃশ্য ও কাঁচা মিঠে রোদ উপভোগ করতে করতে সেখানেই আয়েশ করে বসে পড়লেন টলি-নায়িকা। সবুজ রঙের প্রিন্টেড স্যুইমওয়্যার এবং পানামা হ্যাট-এ ছবিতে একেবারে 'বিচ লুক'-র ধরা দিয়েছেন রুক্মিণী।
6/7হোটেলের কামরার বারান্দায় কিংবা 'ডেক'-এ এসে দাঁড়ালেই দেখা যায় আদি দিগন্ত সমুদ্র। হাত বাড়ালেই সমুদ্রের নীল জলের ছোঁয়া। তাই সেই দৃশ্য ও কাঁচা মিঠে রোদ উপভোগ করতে করতে সেখানেই আয়েশ করে বসে পড়লেন টলি-নায়িকা। সবুজ রঙের প্রিন্টেড স্যুইমওয়্যার এবং পানামা হ্যাট-এ ছবিতে একেবারে 'বিচ লুক'-র ধরা দিয়েছেন রুক্মিণী।
একসঙ্গে ছবি পোস্ট না করলে কী হবে, পাশাপাশি মলদ্বীপের সাদা বালিতে নিজেদের পায়ের ছাপের ছবি কিন্তু পোস্ট করতে ভোলেননি দেব। এই ছবির ক্যাপশনে, তাঁর বার্তা- ‘untill next time', ফের একবার মলদ্বীপে ছুটে যেতে চান দেব-রুক্নিনী তা বেশ পরিষ্কার এই পোস্টে। 
7/7একসঙ্গে ছবি পোস্ট না করলে কী হবে, পাশাপাশি মলদ্বীপের সাদা বালিতে নিজেদের পায়ের ছাপের ছবি কিন্তু পোস্ট করতে ভোলেননি দেব। এই ছবির ক্যাপশনে, তাঁর বার্তা- ‘untill next time', ফের একবার মলদ্বীপে ছুটে যেতে চান দেব-রুক্নিনী তা বেশ পরিষ্কার এই পোস্টে। 
অন্য গ্যালারিগুলি