India vs New Zealand: হোয়াইটওয়াশের সিরিজে কী কী প্রাপ্তি বিরাটদের?

কে এল রাহুল : ওপেনিং হোক বা মিডল অর্ডার – এতদিন বিরাট কোহলিকে ভরসা জোগাচ্ছিলেন কে এল রাহুল। ঋষভ পন্থের চোটের পর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তাঁকে দিয়ে কিপিং করাতে বাধ্য হয় ভারত। তাঁর কিপিং ও ব্যাটিং ফর্মে বিরাট কোহলি এতটাই মুগ্ধ হন যে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচটি টি-টোয়েন্টিতেই উইকেটের পিছনে ছিলেন রাহুল। কিউয়ি ভূমিতেও ভালোই কিপিং করেছেন। সঙ্গে সিরিজে সবথেকে বেশি রান করেছেন। পাঁচ ম্যাচে তাঁর সংগ্রহ ২২৪ রান। সেজন্য সিরিজের সেরাও নির্বাচিত হয়েছেন। রাহুলের থ্রি-ডাইমেশনাল এই ফর্ম বজায় থাকলে বিশ্বকাপের আগে তা বিরাটের কাছে স্বস্তিজনক হবে। (ছবি সৌজন্য এপি)
1/4কে এল রাহুল : ওপেনিং হোক বা মিডল অর্ডার – এতদিন বিরাট কোহলিকে ভরসা জোগাচ্ছিলেন কে এল রাহুল। ঋষভ পন্থের চোটের পর অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তাঁকে দিয়ে কিপিং করাতে বাধ্য হয় ভারত। তাঁর কিপিং ও ব্যাটিং ফর্মে বিরাট কোহলি এতটাই মুগ্ধ হন যে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাঁচটি টি-টোয়েন্টিতেই উইকেটের পিছনে ছিলেন রাহুল। কিউয়ি ভূমিতেও ভালোই কিপিং করেছেন। সঙ্গে সিরিজে সবথেকে বেশি রান করেছেন। পাঁচ ম্যাচে তাঁর সংগ্রহ ২২৪ রান। সেজন্য সিরিজের সেরাও নির্বাচিত হয়েছেন। রাহুলের থ্রি-ডাইমেশনাল এই ফর্ম বজায় থাকলে বিশ্বকাপের আগে তা বিরাটের কাছে স্বস্তিজনক হবে। (ছবি সৌজন্য এপি)
জসপ্রীত বুমরা ছাড়া কে ডেথে বল করবেন? উত্তরটা নিশ্চয়ই এতদিন খুঁজে বেড়াচ্ছিলেন বিরাট। নিউজিল্যান্ড সিরিজে সেই প্রশ্নের উত্তর পেলেন তিনি। সিরিজের তৃতীয় ও চতুর্থ ম্যাচে সেভাবে নিজের সেরা ফর্মে ছিলেন না বুমরা। তৃতীয় ম্যাচে বুমরার দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন মহম্মদ শামি। আর চতুর্থ ম্যাচে তো ১৯ তম ওভারে মাত্র চার রান দেন নভদীপ সাইনি। সেজন্যই শেষ ওভারে হাতে কিছুটা রান পেয়েছিলেন শার্দুল ঠাকুর। তিনিও শেষ ওভারে দুরন্ত বল করেন। পঞ্চম ম্যাচেও ভালো বল করেছেন শার্দুল। ফলে ডেথ ওভারে বুমরার একদিন অফ-ডে গেলেও বাকিরা বিরাটকে ভরসা জোগাতে পারবেন। (ছবি সৌজন্য এপি)
2/4জসপ্রীত বুমরা ছাড়া কে ডেথে বল করবেন? উত্তরটা নিশ্চয়ই এতদিন খুঁজে বেড়াচ্ছিলেন বিরাট। নিউজিল্যান্ড সিরিজে সেই প্রশ্নের উত্তর পেলেন তিনি। সিরিজের তৃতীয় ও চতুর্থ ম্যাচে সেভাবে নিজের সেরা ফর্মে ছিলেন না বুমরা। তৃতীয় ম্যাচে বুমরার দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন মহম্মদ শামি। আর চতুর্থ ম্যাচে তো ১৯ তম ওভারে মাত্র চার রান দেন নভদীপ সাইনি। সেজন্যই শেষ ওভারে হাতে কিছুটা রান পেয়েছিলেন শার্দুল ঠাকুর। তিনিও শেষ ওভারে দুরন্ত বল করেন। পঞ্চম ম্যাচেও ভালো বল করেছেন শার্দুল। ফলে ডেথ ওভারে বুমরার একদিন অফ-ডে গেলেও বাকিরা বিরাটকে ভরসা জোগাতে পারবেন। (ছবি সৌজন্য এপি)
চাপের মুখে জয় : সিরিজের শেষ তিনটি ম্যাচ কার্যত খাদের কিনারা থেকে উঠে এসেছেন জিতেছে ভারত। যা বিশ্বকাপের আগে দলের নাছোড় মানসিকতা গড়ে ওঠার পক্ষে আরও কার্যকর হবে। (ছবি সৌজন্য এপি)
3/4চাপের মুখে জয় : সিরিজের শেষ তিনটি ম্যাচ কার্যত খাদের কিনারা থেকে উঠে এসেছেন জিতেছে ভারত। যা বিশ্বকাপের আগে দলের নাছোড় মানসিকতা গড়ে ওঠার পক্ষে আরও কার্যকর হবে। (ছবি সৌজন্য এপি)
সুপার ওভারে জয় : এতদিন কোনও সুপার ওভারে খেলেননি বিরাটরা। আর বিশ্বকাপের বছরে পরপর দুটি ম্যাচে সুপার ওভার খেললেন তাঁরা। দুটিতেই জিতেছেন। ফলে বিশ্বকাপে সুপার ওভার হলে বিরাটদের যথেষ্ট অভিজ্ঞতা থাকবে। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
4/4সুপার ওভারে জয় : এতদিন কোনও সুপার ওভারে খেলেননি বিরাটরা। আর বিশ্বকাপের বছরে পরপর দুটি ম্যাচে সুপার ওভার খেললেন তাঁরা। দুটিতেই জিতেছেন। ফলে বিশ্বকাপে সুপার ওভার হলে বিরাটদের যথেষ্ট অভিজ্ঞতা থাকবে। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
অন্য গ্যালারিগুলি