বাংলা নিউজ > ছবিঘর > IPL 2020: কোন ৫ কারণে কার্তিকের পরিবর্তে মর্গ্যানের অধিনায়ক একেবারেই প্রত্যাশিত ছিল?

IPL 2020: কোন ৫ কারণে কার্তিকের পরিবর্তে মর্গ্যানের অধিনায়ক একেবারেই প্রত্যাশিত ছিল?

  • ত্রয়োদশ আইপিএলের ঠিক মাঝপথে কলকাতা নাইট রাইডার্সের অধিনায়কত্ব ছাড়লেন দীনেশ কার্তিক। নয়া দায়িত্ব পেলেন ইয়ন মর্গ্যান। তবে সেই রদবদল একেবারেই অপ্রত্যাশিত ছিল না। বলা ভালো, এত পরে মর্গ্যান অধিনায়ক হওয়ায় অবাক অনেকেই। তাঁদের বক্তব্য, আগেই বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়কের হাতে দলের দায়িত্ব তুলে দেওয়া উচিত ছিল। কোন পাঁচ কারণে কার্তিকের পরিবর্তে মর্গ্যানের অধিনায়ক একেবারেই প্রত্যাশিত ছিল, তা দেখে নিন -
নিলামে যখন ইয়ন মর্গ্যানকে নেওয়া হয়েছিল, তখন অধিকাংশ ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ ভেবেছিলেন, এবার কেকেআরের দায়িত্ব সামলাতে চলেছেন ইংরেজ অধিনায়ক। কিন্তু সবাইকে চমকে দিয়ে বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়কের পরিবর্তে দীনেশ কার্তিককেই অধিনায়ক রাখে কেকেআর। প্রথম থেকেই কলকাতার সেই সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠতে থাকে। (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
1/5নিলামে যখন ইয়ন মর্গ্যানকে নেওয়া হয়েছিল, তখন অধিকাংশ ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ ভেবেছিলেন, এবার কেকেআরের দায়িত্ব সামলাতে চলেছেন ইংরেজ অধিনায়ক। কিন্তু সবাইকে চমকে দিয়ে বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়কের পরিবর্তে দীনেশ কার্তিককেই অধিনায়ক রাখে কেকেআর। প্রথম থেকেই কলকাতার সেই সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠতে থাকে। (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
গত আইপিএল থেকেই কার্তিকের বিভিন্ন সিদ্ধান্ত উঠতে শুরু করেছিল। এবারও সেই ধারায় ছেদ পড়েনি। বরং টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই তাঁর একাধিক সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল। বিশেষত দলের প্রথম একাদশ থিতু করতে পারেননি। ব্যাটিং অর্ডার নিয়েও বিভিন্ন প্রশ্ন উঠছিল। প্রথম পাঁচ ম্যাচে দলের সেরা ব্যাটসম্যান মর্গ্যানকে চারে পাঠানো হয়নি। ওপেনিংয়েও সমস্যা মেটেনি। (ছবি সৌজন্য পিটিআই) 
2/5গত আইপিএল থেকেই কার্তিকের বিভিন্ন সিদ্ধান্ত উঠতে শুরু করেছিল। এবারও সেই ধারায় ছেদ পড়েনি। বরং টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই তাঁর একাধিক সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল। বিশেষত দলের প্রথম একাদশ থিতু করতে পারেননি। ব্যাটিং অর্ডার নিয়েও বিভিন্ন প্রশ্ন উঠছিল। প্রথম পাঁচ ম্যাচে দলের সেরা ব্যাটসম্যান মর্গ্যানকে চারে পাঠানো হয়নি। ওপেনিংয়েও সমস্যা মেটেনি। (ছবি সৌজন্য পিটিআই) 
একমাত্র কিংস ইলেভন পঞ্জাব ছাড়া কোনও ম্যাচেই সেভাবে রান পাননি কার্তিক। বাকি ছ'টি ম্যাচে কখনও চার, কখনও আবার পাঁচ এবং ছয়ে নেমেছেন। কিন্তু ব্যর্থ হয়েছেন। অধিনায়কত্বের চাপ যে তাঁর ব্যাটিংয়ে পড়ছিল, তা স্পষ্ট ছিল। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
3/5একমাত্র কিংস ইলেভন পঞ্জাব ছাড়া কোনও ম্যাচেই সেভাবে রান পাননি কার্তিক। বাকি ছ'টি ম্যাচে কখনও চার, কখনও আবার পাঁচ এবং ছয়ে নেমেছেন। কিন্তু ব্যর্থ হয়েছেন। অধিনায়কত্বের চাপ যে তাঁর ব্যাটিংয়ে পড়ছিল, তা স্পষ্ট ছিল। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
কেকেআরের তরফে প্রথমেই জানানো হয়েছিল, কার্তিককে সহায়তা করবেন মর্গ্যান। তবে পঞ্জাব ম্যাচ থেকে মর্গ্যান আরও বেশি করে বোলারদের সঙ্গে কথা বলতে থাকেন মর্গ্যান। প্রতিটি বলের শেষে গিয়ে কথা বলতে থাকেন। তুলনামূলকভাবে কার্তিকের সঙ্গে বোলারদের কম কথা হচ্ছিল। তখন থেকেই অধিনায়কত্ব পরিবর্তনের বিষয়ে একটা ইঙ্গিত মিলেছিল। (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
4/5কেকেআরের তরফে প্রথমেই জানানো হয়েছিল, কার্তিককে সহায়তা করবেন মর্গ্যান। তবে পঞ্জাব ম্যাচ থেকে মর্গ্যান আরও বেশি করে বোলারদের সঙ্গে কথা বলতে থাকেন মর্গ্যান। প্রতিটি বলের শেষে গিয়ে কথা বলতে থাকেন। তুলনামূলকভাবে কার্তিকের সঙ্গে বোলারদের কম কথা হচ্ছিল। তখন থেকেই অধিনায়কত্ব পরিবর্তনের বিষয়ে একটা ইঙ্গিত মিলেছিল। (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
এবার আইপিএলে কেকেআরের পারফরম্যান্স অতি সাধারণ মানের। সাতটির মধ্যে চারটি ম্যাচ জিতলেও দলে প্রচুর ফাঁকফোকর আছে। বিশেষত চেন্নাই সুপার কিংস এবং কিংস ইলেভন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে তো খানিকটা বরাতজোরে জিতেছে কেকেআর। কোনও ম্যাচেই কার্তিকের অধিনায়কত্ব খুব একটা প্রশংসা কুড়োতে পারেনি। একমাত্র চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে নারিনকে দেরিতে বল করতে আনার সিদ্ধান্তে কিছুটা প্রশংসিত হয়েছিলেন কার্তিক। কিন্তু তাঁর মগজাস্ত্রে খুব আশাবাদী ছিলেন না বিশেষজ্ঞরা। মর্গ্যানের হাতেই অধিনায়কত্ব তুলে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন তাঁরা। কারণ মর্গ্যান ঢের বেশি অভিজ্ঞ। বর্তমানে সাদা বলের ক্রিকেটে বিশ্বের সেরা অধিনায়কও বটে। (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
5/5এবার আইপিএলে কেকেআরের পারফরম্যান্স অতি সাধারণ মানের। সাতটির মধ্যে চারটি ম্যাচ জিতলেও দলে প্রচুর ফাঁকফোকর আছে। বিশেষত চেন্নাই সুপার কিংস এবং কিংস ইলেভন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে তো খানিকটা বরাতজোরে জিতেছে কেকেআর। কোনও ম্যাচেই কার্তিকের অধিনায়কত্ব খুব একটা প্রশংসা কুড়োতে পারেনি। একমাত্র চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে নারিনকে দেরিতে বল করতে আনার সিদ্ধান্তে কিছুটা প্রশংসিত হয়েছিলেন কার্তিক। কিন্তু তাঁর মগজাস্ত্রে খুব আশাবাদী ছিলেন না বিশেষজ্ঞরা। মর্গ্যানের হাতেই অধিনায়কত্ব তুলে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন তাঁরা। কারণ মর্গ্যান ঢের বেশি অভিজ্ঞ। বর্তমানে সাদা বলের ক্রিকেটে বিশ্বের সেরা অধিনায়কও বটে। (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
অন্য গ্যালারিগুলি