বাংলা নিউজ > ছবিঘর > IPL 2020: দেরিতে ফার্গুসনকে আনা থেকে আক্রমণাত্মক ফিল্ডিংয়ের অভাব - KKR-এর ভুল চাল কোনগুলি?

IPL 2020: দেরিতে ফার্গুসনকে আনা থেকে আক্রমণাত্মক ফিল্ডিংয়ের অভাব - KKR-এর ভুল চাল কোনগুলি?

  • হাতে ৮৪ রানের পুঁজি। আর সেই রান রক্ষা করতে নেমে দলের সেরা বোলারের সপ্তম ওভারে নিয়ে আসলেন ইয়ন মর্গ্যান। ততক্ষণে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের জয়ের রাস্তা পুরোপুরি পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল। শুধু তাই নয়, বিরাট কোহলিদের বিরুদ্ধে একাধিক নাইটদের একাধিক চাল নিয়ে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে। একনজরে দেখে নিন সেগুলি -
এবারের আইপিএলে এমন কোনও পারফরম্যান্স করেননি, যে ইনিংসের সৌজন্যে দল বিপদের মুখ থেকে রক্ষা পেয়েছে। বরং অধিকাংশ ম্যাচে ভালো শুরু করেও আউট হয়েছেন। তা সত্ত্বেও তাঁকে প্রতিটি ম্যাচে খেলানো হচ্ছে? এরকম ব্যর্থ হয়েও কতদিন খেলে যাবেন? তার ব্যাখ্যা দুটি হতে পারে। প্রথমত, রিজার্ভ বেঞ্চে আর সেই মানের কোনও ব্যাটসম্যান নেই। দ্বিতীয়ত, এবার কেকেআরের অবস্থা এতটাই শোচনীয় যে বাজে ফর্ম সত্ত্বেও নাইটদের হয়ে তৃতীয় সর্বোচ্চ রান করেছেন রানাই। (ছবি সৌজন্য আইপিএল) 
1/4এবারের আইপিএলে এমন কোনও পারফরম্যান্স করেননি, যে ইনিংসের সৌজন্যে দল বিপদের মুখ থেকে রক্ষা পেয়েছে। বরং অধিকাংশ ম্যাচে ভালো শুরু করেও আউট হয়েছেন। তা সত্ত্বেও তাঁকে প্রতিটি ম্যাচে খেলানো হচ্ছে? এরকম ব্যর্থ হয়েও কতদিন খেলে যাবেন? তার ব্যাখ্যা দুটি হতে পারে। প্রথমত, রিজার্ভ বেঞ্চে আর সেই মানের কোনও ব্যাটসম্যান নেই। দ্বিতীয়ত, এবার কেকেআরের অবস্থা এতটাই শোচনীয় যে বাজে ফর্ম সত্ত্বেও নাইটদের হয়ে তৃতীয় সর্বোচ্চ রান করেছেন রানাই। (ছবি সৌজন্য আইপিএল) 
পারফরম্যান্সের নিরিখে দলের সেরা বোলার। অথচ ৮৪ রানের পুঁজি রক্ষা করতে নেমে সেই লকি ফার্গুসনকে সপ্তম ওভারে আনলেন ইয়ন মর্গ্যান। সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ম্যাচে তাঁকে মাঝের ওভারে আক্রমণে নিয়ে আসার যুক্তি ছিল। কিন্তু এত কম রান থাকা সত্ত্বেও এবারও ফার্গুসনের জন্য সেই মাঝের ওভারই বরাদ্দ থাকল। যিনি প্রথম ওভারেই উইকেট নেন। সেই ওভারে ভুল বোঝাবুঝিতে একটি রান আউটও হয়। কিন্তু তখন ৪১ রান দরকার ছিল ব্যাঙ্গালোরের। ফলে চাপটাই তৈরি হয়নি বিরাট কোহলিদের উপর। কে বলতে পারে, প্রথম ওভারেই সেই দু'উইকেট পড়লে খেলার পরিণতি অন্য হতে পারত না? (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
2/4পারফরম্যান্সের নিরিখে দলের সেরা বোলার। অথচ ৮৪ রানের পুঁজি রক্ষা করতে নেমে সেই লকি ফার্গুসনকে সপ্তম ওভারে আনলেন ইয়ন মর্গ্যান। সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ম্যাচে তাঁকে মাঝের ওভারে আক্রমণে নিয়ে আসার যুক্তি ছিল। কিন্তু এত কম রান থাকা সত্ত্বেও এবারও ফার্গুসনের জন্য সেই মাঝের ওভারই বরাদ্দ থাকল। যিনি প্রথম ওভারেই উইকেট নেন। সেই ওভারে ভুল বোঝাবুঝিতে একটি রান আউটও হয়। কিন্তু তখন ৪১ রান দরকার ছিল ব্যাঙ্গালোরের। ফলে চাপটাই তৈরি হয়নি বিরাট কোহলিদের উপর। কে বলতে পারে, প্রথম ওভারেই সেই দু'উইকেট পড়লে খেলার পরিণতি অন্য হতে পারত না? (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
৮৪ রানের পুঁজি নিয়ে নেমে কার্যত আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং সাজাল না কেকেআর। সপ্তম ওভারে জোড়া উইকেট পড়ার পর কিছুটা আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং সাজানো হয়েছিল। ব্যস, ওইটুকুই। শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং সাজালে ব্যাঙ্গালোরের ব্যাটসম্যানদের উপর মানসিকভাবে কিছুটা চাপ তৈরি করা যেত। অ্যারন ফিঞ্চ যেভাবে স্টেপ আউট করছিলেন, তাতে তাঁকে চাপে রাখার জন্য নিদেনপক্ষে সামনেই একজন ফিল্ডার রাখা যেত। (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
3/4৮৪ রানের পুঁজি নিয়ে নেমে কার্যত আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং সাজাল না কেকেআর। সপ্তম ওভারে জোড়া উইকেট পড়ার পর কিছুটা আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং সাজানো হয়েছিল। ব্যস, ওইটুকুই। শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং সাজালে ব্যাঙ্গালোরের ব্যাটসম্যানদের উপর মানসিকভাবে কিছুটা চাপ তৈরি করা যেত। অ্যারন ফিঞ্চ যেভাবে স্টেপ আউট করছিলেন, তাতে তাঁকে চাপে রাখার জন্য নিদেনপক্ষে সামনেই একজন ফিল্ডার রাখা যেত। (ছবি সৌজন্য আইপিএল)
ব্যাট হাতে প্রথম ইনিংসে হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর কেকেআরের সামনে জয়ের একটাই দরজা খোলা ছিল - পরপর উইকেট তুলে নেওয়া। কিন্তু কেকেআরের কৌশল দেখে সেটা মনে হয়নি। সেটা সপ্তম ওভারে ফার্গুসনকে বল দেওয়া ও আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং না সাজানো থেকেই স্পষ্ট। (ছবি সৌজন্য টুইটার @IPL)
4/4ব্যাট হাতে প্রথম ইনিংসে হতাশাজনক পারফরম্যান্সের পর কেকেআরের সামনে জয়ের একটাই দরজা খোলা ছিল - পরপর উইকেট তুলে নেওয়া। কিন্তু কেকেআরের কৌশল দেখে সেটা মনে হয়নি। সেটা সপ্তম ওভারে ফার্গুসনকে বল দেওয়া ও আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং না সাজানো থেকেই স্পষ্ট। (ছবি সৌজন্য টুইটার @IPL)
অন্য গ্যালারিগুলি