নেই শুধু হ্যাপি এন্ডিং, বলিউড ছবির চিত্রনাট্যকে হার মানায় সইফ-অমৃতার লাভস্টোরি

  • বয়সের ফারাক কিংবা ধর্মের বেড়াজাল কোনটাই আটকে পারেনি সইফ-অমৃতার প্রেম। প্রথম দেখাতেই অমৃতার প্রেমে পড়েছিলেন সইফ।টান কম ছিলনা অমৃতারও। তাই তো প্রথম ডিনার ডেটেই একসঙ্গে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছিলেন দু'জনে। সইফ-অমৃতার প্রেমকাহিনি হার মানাবে বলিউড ফিল্মের চিত্রনাট্যকেও,তবে শুধু হ্যাপি এন্ডিংটা নেই..
পরিচালক রাহুল রুওয়ালির ছবির সেটেই প্রথম পরিচয় সইফ-অমৃতার। বেখুদির ছবির একটি ফটোশ্যুটের জন্য অমৃতাকে ডেকে পাঠিয়েছিলেন পরিচালক। ছবির নায়ক-নায়িকা ছিলেন সইফ-কাজল। সেই সময়ই সইফকে প্রথম দেখেন অমৃতা। তবে কথাবার্তা বিশেষ কিছুই হয়নি দুজনের। অমৃতার ডেব্যিউ ছবি বেতাবের পরিচালকও ছিলেন রাহুল।
1/10পরিচালক রাহুল রুওয়ালির ছবির সেটেই প্রথম পরিচয় সইফ-অমৃতার। বেখুদির ছবির একটি ফটোশ্যুটের জন্য অমৃতাকে ডেকে পাঠিয়েছিলেন পরিচালক। ছবির নায়ক-নায়িকা ছিলেন সইফ-কাজল। সেই সময়ই সইফকে প্রথম দেখেন অমৃতা। তবে কথাবার্তা বিশেষ কিছুই হয়নি দুজনের। অমৃতার ডেব্যিউ ছবি বেতাবের পরিচালকও ছিলেন রাহুল।
দিন কয়েক পরই অমৃতাকে ফোন করে বসেন সইফ, ডিনার ডেটে যাওয়ার প্রস্তাব দেন। সরাসরি সেই প্রস্তাব নাকচ করে দেন অমৃতা সিং। যদিও সইফকে অমৃতা বলেছিলেন, 'চাইলে তুমি আমার বাড়ি যে কোনওদিন ডিনারে আসতে পারো'।
2/10দিন কয়েক পরই অমৃতাকে ফোন করে বসেন সইফ, ডিনার ডেটে যাওয়ার প্রস্তাব দেন। সরাসরি সেই প্রস্তাব নাকচ করে দেন অমৃতা সিং। যদিও সইফকে অমৃতা বলেছিলেন, 'চাইলে তুমি আমার বাড়ি যে কোনওদিন ডিনারে আসতে পারো'।
দেরি না করে সেই রাতেই অমৃতার বাড়ি ডিনার ডেটে হাজির হন সইফ। পেশাগত কথাবার্তা দিয়ে সেই আলাপ শুরু হলেও তা ব্যক্তিগত স্তরে পৌঁছতো বেশি সময় লাগেনি। এবং সেই রাতেই অমৃতা চুম্বনও করে বসেন সদ্য ২১-এ পা রাখা সইফ, অমৃতা তথন ত্রিশের গণ্ডি পার করে ফেলেছেন। দেরি করেননি সইফ। সেই রাতেই বলিউডের সেই সময়ের প্রতিষ্ঠিত নায়িকার সামনে প্রেম প্রস্তাব রাখেন এই উঠতি নায়ক। শুরু হয় সইফ-অমৃতার 'অনোখি' লাভস্টোরি।
3/10দেরি না করে সেই রাতেই অমৃতার বাড়ি ডিনার ডেটে হাজির হন সইফ। পেশাগত কথাবার্তা দিয়ে সেই আলাপ শুরু হলেও তা ব্যক্তিগত স্তরে পৌঁছতো বেশি সময় লাগেনি। এবং সেই রাতেই অমৃতা চুম্বনও করে বসেন সদ্য ২১-এ পা রাখা সইফ, অমৃতা তথন ত্রিশের গণ্ডি পার করে ফেলেছেন। দেরি করেননি সইফ। সেই রাতেই বলিউডের সেই সময়ের প্রতিষ্ঠিত নায়িকার সামনে প্রেম প্রস্তাব রাখেন এই উঠতি নায়ক। শুরু হয় সইফ-অমৃতার 'অনোখি' লাভস্টোরি।
১২ বছরের বড় অমৃতার সঙ্গে সইফের এই সম্পর্কে সায় ছিল না মনসুর আলি খান পতৌদি ও শর্মিলা ঠাকুরের। তাই বাড়ির অমতে কার্যত পালিয়ে গিয়ে বিয়ে সারেন সইফ-অমৃতা। সময়টা ১৯৯১-এর অক্টোবর।
4/10১২ বছরের বড় অমৃতার সঙ্গে সইফের এই সম্পর্কে সায় ছিল না মনসুর আলি খান পতৌদি ও শর্মিলা ঠাকুরের। তাই বাড়ির অমতে কার্যত পালিয়ে গিয়ে বিয়ে সারেন সইফ-অমৃতা। সময়টা ১৯৯১-এর অক্টোবর।
সইফকে বিয়ে করে ইসলাম ধর্মও গ্রহণ করেছিলেন অমৃতা সিং। সইফ-অমৃতার বিয়ের খবর ঝড় তুলেছিলেন বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে।
5/10সইফকে বিয়ে করে ইসলাম ধর্মও গ্রহণ করেছিলেন অমৃতা সিং। সইফ-অমৃতার বিয়ের খবর ঝড় তুলেছিলেন বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে।
বিয়ের পর কার্যত বাধ্য হয়েই সইফ-অমৃতার সম্পর্ককে মান্যতা দিয়েছিল পতৌদির নবাব পরিবার। আবাক হওয়ার মতো বিষয় যে সইফ-অমৃতার বিয়ের ওয়ালিমায়(রিসেপশন) হাজির হয়েছিলেন করিনা কাপুর। ১২ বছরের করিনা বিয়েতে হাজির ছিলেন সইফের বন্ধু করিশ্মার বোন হিসাবে।
6/10বিয়ের পর কার্যত বাধ্য হয়েই সইফ-অমৃতার সম্পর্ককে মান্যতা দিয়েছিল পতৌদির নবাব পরিবার। আবাক হওয়ার মতো বিষয় যে সইফ-অমৃতার বিয়ের ওয়ালিমায়(রিসেপশন) হাজির হয়েছিলেন করিনা কাপুর। ১২ বছরের করিনা বিয়েতে হাজির ছিলেন সইফের বন্ধু করিশ্মার বোন হিসাবে।
বিয়ের পর গ্ল্যামার দুনিয়াকে বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নেন অমৃতা। গৃহবধূ হিসাবেই শুরু হয় অমৃতার দ্বিতীয় ইনিংস। তখনও সইফের পায়ের মাটি শক্ত হয়নি বলিউডে। শোনা যায়, সইফের কেরিয়ার গড়তে তাঁকে পুরোদস্তুর সাহায্য অমৃতা।
7/10বিয়ের পর গ্ল্যামার দুনিয়াকে বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নেন অমৃতা। গৃহবধূ হিসাবেই শুরু হয় অমৃতার দ্বিতীয় ইনিংস। তখনও সইফের পায়ের মাটি শক্ত হয়নি বলিউডে। শোনা যায়, সইফের কেরিয়ার গড়তে তাঁকে পুরোদস্তুর সাহায্য অমৃতা।
১৯৯৫ সালে জন্ম নেয় সইফ-অমৃতার কন্যা সারা, ২০০১ সালে বিয়ের ১০ বছর পর পুত্র সন্তান ইব্রাহিমের জন্ম দেন অমৃতা।
8/10১৯৯৫ সালে জন্ম নেয় সইফ-অমৃতার কন্যা সারা, ২০০১ সালে বিয়ের ১০ বছর পর পুত্র সন্তান ইব্রাহিমের জন্ম দেন অমৃতা।
২০০৪ সালে ১৩ বছর দীর্ঘ দাম্পত্য সম্পর্কে ইতি টানেন সইফ-অমৃতা। কেন ভেঙেছিল এই বিয়ে? ঘনিষ্ঠ মহল থেকে শোনা যায় সইফকে বিশ্বাসঘাতক বলে দাবি করেছিলেন অমৃতা, অন্যদিকে সইফ জানিয়েছিলেন ভালোবাসা ফুরিয়ে গেছে।
9/10২০০৪ সালে ১৩ বছর দীর্ঘ দাম্পত্য সম্পর্কে ইতি টানেন সইফ-অমৃতা। কেন ভেঙেছিল এই বিয়ে? ঘনিষ্ঠ মহল থেকে শোনা যায় সইফকে বিশ্বাসঘাতক বলে দাবি করেছিলেন অমৃতা, অন্যদিকে সইফ জানিয়েছিলেন ভালোবাসা ফুরিয়ে গেছে।
বিয়ে ভাঙার পর সারা-ইব্রাহিম মায়ের কাছেই থাকত, তবে আব্বুর সঙ্গে দেখা-সাক্ষাত্ চলত নিয়মিত। ২০১২ সালে সইফ-করিনার বিয়ের আসরেও সামিল হয়েছিল তাঁর প্রথম পক্ষের দুই সন্তান। সারা জানিয়েছিলেন, বাবার বিয়েতে যোগ দেওয়ার জন্য মেয়েকে নিজের হাতে তৈরি করেছিলেন অমৃতা। অম্ল-মধুর সব মিলিয়ে হ্যাপি এন্ডিং না হলেও সইফের কথাতেই একটা আদর্শ মর্ডান ফ্যামিলি রয়েছে তাঁর। (ছবি-যোগেন শাহ)
10/10বিয়ে ভাঙার পর সারা-ইব্রাহিম মায়ের কাছেই থাকত, তবে আব্বুর সঙ্গে দেখা-সাক্ষাত্ চলত নিয়মিত। ২০১২ সালে সইফ-করিনার বিয়ের আসরেও সামিল হয়েছিল তাঁর প্রথম পক্ষের দুই সন্তান। সারা জানিয়েছিলেন, বাবার বিয়েতে যোগ দেওয়ার জন্য মেয়েকে নিজের হাতে তৈরি করেছিলেন অমৃতা। অম্ল-মধুর সব মিলিয়ে হ্যাপি এন্ডিং না হলেও সইফের কথাতেই একটা আদর্শ মর্ডান ফ্যামিলি রয়েছে তাঁর। (ছবি-যোগেন শাহ)
অন্য গ্যালারিগুলি