বাংলা নিউজ > ছবিঘর > লোকসভায় এগিয়ে থাকা ৯ টি-সহ ১১ আসনে বাদ মুসলিম প্রার্থী, কোন অঙ্কে এগোলেন মমতা?

লোকসভায় এগিয়ে থাকা ৯ টি-সহ ১১ আসনে বাদ মুসলিম প্রার্থী, কোন অঙ্কে এগোলেন মমতা?

  • বিধানসভা ভোটে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে ৩০ শতাংশ মুসলিম ভোটব্যাঙ্ক। সেই পরিস্থিতিতে একধাক্কায় মুসলিম প্রার্থীর সংখ্যা কমিয়ে আনল তৃণমূল কংগ্রেস। এমনকী লোকসভায় এগিয়ে থাকা ন'টি আসনেও ছাঁটাই করা হল মুসলিম প্রার্থীকে। কিন্তু কেন সেই পদক্ষেপ করলেন মমতা, কোন কোন আসনে মুসলিম প্রার্থীদের উপর কোপ পড়ল, তা দেখে নিন একনজরে -
এবার তৃণমূলের সংখ্যালঘু প্রার্থীর সংখ্যা একধাক্কায় অনেকটা কমেছে। গত বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের সংখ্যালঘু প্রার্থীর সংখ্যা ছিল ৫৭। ২০১১ সালে ৩৮ জন সংখ্যলঘু প্রার্থী তৃণমূলের টিকিটে দাঁড়িয়েছিলেন। এবার ৪৭ জনকে টিকিট দিয়েছে তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
1/16এবার তৃণমূলের সংখ্যালঘু প্রার্থীর সংখ্যা একধাক্কায় অনেকটা কমেছে। গত বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের সংখ্যালঘু প্রার্থীর সংখ্যা ছিল ৫৭। ২০১১ সালে ৩৮ জন সংখ্যলঘু প্রার্থী তৃণমূলের টিকিটে দাঁড়িয়েছিলেন। এবার ৪৭ জনকে টিকিট দিয়েছে তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
তুফানগঞ্জ : ফজলে করিম মিঞার পরিবর্তে প্রার্থী হয়েছেন প্রণব কুমার দে। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে পিছিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
2/16তুফানগঞ্জ : ফজলে করিম মিঞার পরিবর্তে প্রার্থী হয়েছেন প্রণব কুমার দে। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে পিছিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
রতুয়া : শেহনাজ কাদেরির পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন সমর মুখোপাধ্যায়। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
3/16রতুয়া : শেহনাজ কাদেরির পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন সমর মুখোপাধ্যায়। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
নলহাটি : মইনুদ্দিন শামসের পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন রাজেন্দ্র প্রসাদ সিং। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই) (ছবি সৌজন্য এএনআই)
4/16নলহাটি : মইনুদ্দিন শামসের পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন রাজেন্দ্র প্রসাদ সিং। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই) (ছবি সৌজন্য এএনআই)
লাভপুর : মনিরুল ইসলামের পরিবর্তে প্রার্থী হয়েছেন অভিজিৎ সিনহা। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
5/16লাভপুর : মনিরুল ইসলামের পরিবর্তে প্রার্থী হয়েছেন অভিজিৎ সিনহা। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
রানিগঞ্জ : নার্গিস বানোর পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন তাপস বন্দ্যোপাধ্যায়। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে পিছিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
6/16রানিগঞ্জ : নার্গিস বানোর পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন তাপস বন্দ্যোপাধ্যায়। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে পিছিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
মেমারি : নার্গিস বেগমের পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন মধূসূদন ভট্টাচার্য। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই) 
7/16মেমারি : নার্গিস বেগমের পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন মধূসূদন ভট্টাচার্য। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই) 
পুরশুড়া : এম নুরুজ্জামানের পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন দিলীপ যাদব। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে পিছিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
8/16পুরশুড়া : এম নুরুজ্জামানের পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন দিলীপ যাদব। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে পিছিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
চাঁপদানি : মুজফ্ফর খানের পরিবর্তে প্রার্থী হয়েছেন অরিন্দম গুঁইন। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
9/16চাঁপদানি : মুজফ্ফর খানের পরিবর্তে প্রার্থী হয়েছেন অরিন্দম গুঁইন। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
উলুবেড়িয়া পূর্ব : প্রয়াত হয়েছেন হায়দর আজিজ সফি। পরে উপনির্বাচনে জিতেছিলেন ইদ্রিশ আলি। সেই আসনে টিকিট পেয়েছেন বিদেশ বসু। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। ইদ্রিশকে মুর্শিদাবাদের টিকিট দেওয়া হয়েছে। মুর্শিদাবাদে আগেরবার প্রার্থী ছিলেন অসীম ভট্ট। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
10/16উলুবেড়িয়া পূর্ব : প্রয়াত হয়েছেন হায়দর আজিজ সফি। পরে উপনির্বাচনে জিতেছিলেন ইদ্রিশ আলি। সেই আসনে টিকিট পেয়েছেন বিদেশ বসু। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। ইদ্রিশকে মুর্শিদাবাদের টিকিট দেওয়া হয়েছে। মুর্শিদাবাদে আগেরবার প্রার্থী ছিলেন অসীম ভট্ট। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
অর্থাৎ যে ১১ আসনে সংখ্যালঘু প্রার্থী বাদ পড়েছেন, তার মধ্যে ন'টি আসনে গত লোকসভা ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। তাছাড়াও কয়েকটি সংখ্যালঘু প্রার্থী পরিবর্তন করা হয়েছে। সেখানে বরং অনেক আসনে পিছিয়ে ছিল তৃণমূল। গতবার না থাকলেও এবার কয়েকটি আসনে সংখ্যালঘু প্রার্থী দাঁড় করানো হয়েছে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
11/16অর্থাৎ যে ১১ আসনে সংখ্যালঘু প্রার্থী বাদ পড়েছেন, তার মধ্যে ন'টি আসনে গত লোকসভা ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। তাছাড়াও কয়েকটি সংখ্যালঘু প্রার্থী পরিবর্তন করা হয়েছে। সেখানে বরং অনেক আসনে পিছিয়ে ছিল তৃণমূল। গতবার না থাকলেও এবার কয়েকটি আসনে সংখ্যালঘু প্রার্থী দাঁড় করানো হয়েছে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
জগৎবল্লভপুর : আবদুল গনির পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন সীতানাথ ঘোষ। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
12/16জগৎবল্লভপুর : আবদুল গনির পরিবর্তে টিকিট পেয়েছেন সীতানাথ ঘোষ। গতবারের লোকসভার ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
মঙ্গলকোট : সিদ্দিকুল্লা চৌধুরীর পরিবর্তে প্রার্থী হয়েছেন অপূর্ব চৌধুরী। গতবারের লোকসভা ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। মন্তেশ্বরে প্রার্থী হয়েছেন সিদ্দিকুল্লা। গতবার মন্তেশ্বরে প্রার্থী হয়েছিলেন সজল পাঁজা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
13/16মঙ্গলকোট : সিদ্দিকুল্লা চৌধুরীর পরিবর্তে প্রার্থী হয়েছেন অপূর্ব চৌধুরী। গতবারের লোকসভা ভোটের নিরিখে এগিয়ে ছিল তৃণমূল। মন্তেশ্বরে প্রার্থী হয়েছেন সিদ্দিকুল্লা। গতবার মন্তেশ্বরে প্রার্থী হয়েছিলেন সজল পাঁজা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
এবার বিধানসভা নির্বাচনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে ৩০ শতাংশ মুসলিম ভোট। সেই ভোটব্যাঙ্ক যতটা নিজেদের ঝুলিতে পুরতে পারবে তৃণমূল, তত নবান্নে ফেরার দৌড়ে এগিয়ে যাবে মমতার দল। সেই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়েও তাহলে কেন মুসলিম প্রার্থীর সংখ্যা কম করল তৃণমূল? (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
14/16এবার বিধানসভা নির্বাচনে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে ৩০ শতাংশ মুসলিম ভোট। সেই ভোটব্যাঙ্ক যতটা নিজেদের ঝুলিতে পুরতে পারবে তৃণমূল, তত নবান্নে ফেরার দৌড়ে এগিয়ে যাবে মমতার দল। সেই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়েও তাহলে কেন মুসলিম প্রার্থীর সংখ্যা কম করল তৃণমূল? (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
পরিসংখ্যান অনুযায়ী, রাজ্যের ২৩ টি জেলার মধ্যে ১০ জেলায় কোনও মুসলিম প্রার্থী দেয়নি তৃণমূল। আর বাকি ১৩ জেলায় কমপক্ষে একজন করে মুসলিম প্রার্থী দেওয়া হয়েছে। রাজ্যের তিন জেলা - মুর্শিদাবাদ, মালদহ এবং উত্তর দিনাজপুরে মুসলিম জনসংখ্যা সবথেকে বেশি। সেখানে বেশি মুসলিম প্রার্থী দিয়েছে তৃণমূল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
15/16পরিসংখ্যান অনুযায়ী, রাজ্যের ২৩ টি জেলার মধ্যে ১০ জেলায় কোনও মুসলিম প্রার্থী দেয়নি তৃণমূল। আর বাকি ১৩ জেলায় কমপক্ষে একজন করে মুসলিম প্রার্থী দেওয়া হয়েছে। রাজ্যের তিন জেলা - মুর্শিদাবাদ, মালদহ এবং উত্তর দিনাজপুরে মুসলিম জনসংখ্যা সবথেকে বেশি। সেখানে বেশি মুসলিম প্রার্থী দিয়েছে তৃণমূল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
রাজনৈতিক মহলের মতে, বিজেপির চাপেই সেই কাজটা করতে বাধ্য হয়েছে তৃণমূল। বরাবরই তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোষণের রাজনীতির অভিযোগ তুলে এসেছে বিজেপি। তার জেরে মেরুকরণের রাস্তা স্পষ্ট হয়েছে। তাতে ফায়দা তুলেছে বিজেপি। নিজেদের গা থেকে তোষণকারী তকমা ঝেড়ে ফেলে গেরুয়া শিবিরের সেই হিন্দু ভোটব্যাঙ্কে থাবা বসানোর জন্যই মুসলিম প্রার্থীর সংখ্যা কমানো হয়েছে বলে মত রাজনৈতিক মহলের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)
16/16রাজনৈতিক মহলের মতে, বিজেপির চাপেই সেই কাজটা করতে বাধ্য হয়েছে তৃণমূল। বরাবরই তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোষণের রাজনীতির অভিযোগ তুলে এসেছে বিজেপি। তার জেরে মেরুকরণের রাস্তা স্পষ্ট হয়েছে। তাতে ফায়দা তুলেছে বিজেপি। নিজেদের গা থেকে তোষণকারী তকমা ঝেড়ে ফেলে গেরুয়া শিবিরের সেই হিন্দু ভোটব্যাঙ্কে থাবা বসানোর জন্যই মুসলিম প্রার্থীর সংখ্যা কমানো হয়েছে বলে মত রাজনৈতিক মহলের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)
অন্য গ্যালারিগুলি