বাড়ি > ছবিঘর > বোবা ইতিহাস! ওজনদরে বিক্রি হল সংবিধানের প্রথম সংস্করণ ছাপানো যন্ত্র

বোবা ইতিহাস! ওজনদরে বিক্রি হল সংবিধানের প্রথম সংস্করণ ছাপানো যন্ত্র

ভারতের সংবিধানের প্রথম সংস্করণের এই কপিগুলি ছাপা হ... more

ভারতের সংবিধান রচনার ৭০ তম বর্ষপূর্তিতে সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার মিউজিয়ামে সংরক্ষিত রয়েছে সংবিধানের প্রথম সংস্করণ।
1/7ভারতের সংবিধান রচনার ৭০ তম বর্ষপূর্তিতে সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার মিউজিয়ামে সংরক্ষিত রয়েছে সংবিধানের প্রথম সংস্করণ।
ভারতীয় সংবিধান রচনার ৭০ বর্ষপূর্তিতে দেরাদুনের সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার মিউজিয়ামে সযত্নে সুরক্ষিত রয়েছে সংবিধানের প্রথম ছাপা কপি। প্রথম সংস্করণে ছাপা আসল কপিটি এখানে রেখে তার ১০০০টি ফোটোলিথোগ্রাফিক কপি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল দিল্লিতে।
2/7ভারতীয় সংবিধান রচনার ৭০ বর্ষপূর্তিতে দেরাদুনের সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার মিউজিয়ামে সযত্নে সুরক্ষিত রয়েছে সংবিধানের প্রথম ছাপা কপি। প্রথম সংস্করণে ছাপা আসল কপিটি এখানে রেখে তার ১০০০টি ফোটোলিথোগ্রাফিক কপি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছিল দিল্লিতে।
ভারতীয় সংবিধানের প্রথম সংস্করণটির হাতেলেখা কপি ইংরেজিতে লিখেছিলেন হস্তলিপিবিদ প্রেম বিহারী নারায়ণ রায়জাদা (সাক্সেনা)। হিন্তি কপিটি লিখেছিলেন হস্তলিপিবিদ বসন্ত কৃষ্ণ বৈদ্য। হাতেলেখা কপিগুলি চিত্রিত করেছিলেন বিখ্যাত শিল্পী নন্দলাল বসু, বেওহার রামমনোহর সিনহা এবং শান্তিনিকেতন ও বিশ্বভারতীর শিল্পীরা। এই মূল সংস্করণটি সংরক্ষণের উদ্দেশে দেরাদুনে রেখে দেওয়া হয় এবং ১০০০ ছাপা কপি পাঠানো হয় দিল্লিতে।
3/7ভারতীয় সংবিধানের প্রথম সংস্করণটির হাতেলেখা কপি ইংরেজিতে লিখেছিলেন হস্তলিপিবিদ প্রেম বিহারী নারায়ণ রায়জাদা (সাক্সেনা)। হিন্তি কপিটি লিখেছিলেন হস্তলিপিবিদ বসন্ত কৃষ্ণ বৈদ্য। হাতেলেখা কপিগুলি চিত্রিত করেছিলেন বিখ্যাত শিল্পী নন্দলাল বসু, বেওহার রামমনোহর সিনহা এবং শান্তিনিকেতন ও বিশ্বভারতীর শিল্পীরা। এই মূল সংস্করণটি সংরক্ষণের উদ্দেশে দেরাদুনে রেখে দেওয়া হয় এবং ১০০০ ছাপা কপি পাঠানো হয় দিল্লিতে।
ভারতীয় সংবিধানের প্রথম ১০০০ কপি ছাপাইকারক ক্র্যাবট্রি সংস্থার সভরেন ও মনার্ক যন্ত্র দু’টি প্রায় ১০০ বছর নিজেদের সাবেক জায়গাতেই দাঁড়িয়ে ছিল। কিন্তু ২০১৯ সালে তাদের সেখান থেকে সরিয়ে ফেলা হয়।
4/7ভারতীয় সংবিধানের প্রথম ১০০০ কপি ছাপাইকারক ক্র্যাবট্রি সংস্থার সভরেন ও মনার্ক যন্ত্র দু’টি প্রায় ১০০ বছর নিজেদের সাবেক জায়গাতেই দাঁড়িয়ে ছিল। কিন্তু ২০১৯ সালে তাদের সেখান থেকে সরিয়ে ফেলা হয়।
সার্ভে অফ ইন্ডিয়া সূত্রে জানা গিয়েছে, যন্ত্র দু’টি এরপর কাবারি সংস্থাকে ওজনদরে বিক্রি করে দেওয়া হয়। যন্ত্র দু’টি বেচে মোট দেড় লাখ টাকা পাওয়া যায় বলেও জানা গিয়েছে।
5/7সার্ভে অফ ইন্ডিয়া সূত্রে জানা গিয়েছে, যন্ত্র দু’টি এরপর কাবারি সংস্থাকে ওজনদরে বিক্রি করে দেওয়া হয়। যন্ত্র দু’টি বেচে মোট দেড় লাখ টাকা পাওয়া যায় বলেও জানা গিয়েছে।
কিন্তু কী কারণে বিক্রি করে দিতে হল ঐতিহাসিক যন্ত্র দু’টি? ভারতের সার্ভেয়র জেনারেল লেফটেন্যান্ট জেনারেল গিরীশ কুমার (অবসরপ্রাপ্ত) জানিয়েছেন, দুই ঐতিহাসিক লিথোগ্রাফিক ছাপাই যন্ত্রের রক্ষণাবেক্ষণের খরচ বিপুল এবং সেই প্রযুক্তিও বর্তমানে অমিল।
6/7কিন্তু কী কারণে বিক্রি করে দিতে হল ঐতিহাসিক যন্ত্র দু’টি? ভারতের সার্ভেয়র জেনারেল লেফটেন্যান্ট জেনারেল গিরীশ কুমার (অবসরপ্রাপ্ত) জানিয়েছেন, দুই ঐতিহাসিক লিথোগ্রাফিক ছাপাই যন্ত্রের রক্ষণাবেক্ষণের খরচ বিপুল এবং সেই প্রযুক্তিও বর্তমানে অমিল।
২৫২ বছরের সার্ভে অফ ইন্ডিয়া দফতরে এমন বহু প্রাচীন স্মারক ও যন্ত্রপাতি পড়ে রয়েছে যার কোনও ব্যবহারিক প্রয়োগ এখন নেই। তাই যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে তাদের ঠাঁই হচ্ছে কাবারির আড়তে। মুছে যেতে বাধ্য হচ্ছে ইতিহাসের পদচিহ্ন।
7/7২৫২ বছরের সার্ভে অফ ইন্ডিয়া দফতরে এমন বহু প্রাচীন স্মারক ও যন্ত্রপাতি পড়ে রয়েছে যার কোনও ব্যবহারিক প্রয়োগ এখন নেই। তাই যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে তাদের ঠাঁই হচ্ছে কাবারির আড়তে। মুছে যেতে বাধ্য হচ্ছে ইতিহাসের পদচিহ্ন।
অন্য গ্যালারিগুলি