বাংলা নিউজ > ছবিঘর > ময়দান > PAK vs NZ: পাক বোলার বনাম কিউয়ি ব্যাটিং- সেমিতে ভাগ্য নির্ধারণ হবে কোন ৫ বিষয়ে

PAK vs NZ: পাক বোলার বনাম কিউয়ি ব্যাটিং- সেমিতে ভাগ্য নির্ধারণ হবে কোন ৫ বিষয়ে

  • বুধবার সিডনিতে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট বিশ্বকাপের প্রথম সেমিতে মুখোমুখি হবে পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড। চলতি বিশ্বকাপের শুরু থেকেই দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলছে কিউয়িরা। গ্রুপ পর্বে ধারাবাহিক পারফরম্যান্স ছিল। সেখানে পাকিস্তান কিন্তু শুরু থেকেই নড়বড় করছে। প্রথম দুই ম্যাচ হেরে কোনও মতে তারা সেমিতে উঠেছে।
1/5 চলতি বিশ্বকাপে অন্যতম ভয়ঙ্কর টিম নিঃসন্দেহে নিউজিল্যান্ড। কেন উইলিয়ামসনের টিম এখনও একটিও ম্যাচ হারেনি। গত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের রানার্সরা এ বারও রয়েছে দুরন্ত ছন্দে। আগে ব্যাট করলে প্রতি ম্যাচে প্রতিপক্ষের সামনে বিশাল টার্গেট খাড়া করছেন কিউয়িরা। রান তাড়া করতে নেমেও একই রকম বিস্ফোরক। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে কাপ জেতার লড়াইয়ে এ বার এক নম্বর টিম হিসেবে বিবেচিত নিউজিল্যান্ড। সেই টিমকে কি আটকাতে পারবে পাকিস্তানের জোরে বোলাররা?
2/5 পাকিস্তানের সবথেকে বড় শক্তি তাদের বোলিং লাইনআপ। পাকিস্তানের সেমিফাইনালে পৌঁছনোর পিছনে স্পিনার শাদাব খানের বড় ভূমিকা রয়েছে। খুব স্বল্প সংখ্যক বোলার যাঁরা বিশ্বকাপে ১০ উইকেট তুলে নিয়েছেন তাদের মধ্যে শাদাব অন্যতম। তাঁর ইকোনমি রেট ৬.২২, যা শুধুমাত্র এনরিখ নরকিয়া থেকে সামান্য বেশি। এ ছাড়াও জোরে বোলারদের মধ্যে শাহিন আফ্রিদিও ফর্মে ফিরছেন ধীরে ধীরে। হ্যারিস রউফও বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারেন।
3/5 নিউজিল্যান্ডের ফিন অ্যালেন, ডেভন কনওয়ে ওপেনিং জুটি হিসেবে ভরসা জুগিয়েছেন। কেন উইলিয়ামসনও হাল ধরছেন। মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান গ্লেন ফিলিপস আবার দুর্দান্ত ফিল্ডার, উইকেট কিপিং পারেন, বল হাতেও প্রভাব ফেলতে পারেন। গত এক বছরে নিউজিল্যান্ডের হয়ে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে গ্লেন ফিলিপসের চেয়ে বেশি ছক্কা কেউই হাঁকাননি। পাকিস্তান বোলারদের এই বিষয়গুলি মাথায় রাখতেই হবে।
4/5 একেবারেই ছন্দে নেই বাবর আজম। মহম্মদ রিজওয়ানের পারফরম্যান্সও আহামরি নয়। তবে এই ওপেনিং জুটি যদি দাঁড়িয়ে যায়, তবে নিউজিল্যান্ডের কপাল পুড়বে। যেমন ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে বিরাট কোহলিদের ধ্বংস করে দিয়েছিল বাবর-রিজওয়ান জুটি। এই জুটি ভাঙতেই হবে নিউজিল্যান্ডকে।
5/5 ট্রেন্ট বোল্ট এবং টিম সাউদি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটেরই সেরা ফাস্ট বোলারদের তালিকায় আছেন। সাউদি এখন আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ উইকেটের মালিক। একটু বেশি রান দিলেও লকি ফার্গুসনও উইকেট নিচ্ছেন নিয়মিত। ৪ ম্যাচে সাত উইকেট নিয়েছেন তিনি। দেখার, কিউয়ি জোরে বোলাররা সেমিতে পাক ব্যাটিং অর্ডারে ফাটল ধরাতে পারেন কিনা!

আরও ছবি