জন্মদিনে ফিরে দেখা দীপিকার সেরা ১০ ছবি

  • রবিবার বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনের ৩৪ তম জন্মদিন। দেখতে দেখতে বলিউডেও ১৩ বছর কাটিয়ে ফেলেছেন রণবীর সিং ঘরনি।
  • দীপিকার জন্মদিনে এক নজরে ফিরে দেখা তাঁর ফিল্মি কেরিয়ারের এমন কিছু চরিত্র যা দর্শক মনে আজও উজ্বল।
রবিবার ৩৪-এ পা দিলেন বলিউডের ‘মস্তানি’ অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন। দেখতে দেখতে হিন্দি ফিল্ম ইন্ডস্ট্রিতেও ১৩ বছর কাটিয়ে ফেলেছেন দীপিকা। দুটি দক্ষিণী ছবি. একটি হলিউড ছবি মিলিয়ে আজ পর্যন্ত মোট ২৫টি ছবিতে অভিনয় করেছেন দীপিকা। বলিউডের প্রথম সারির এই নায়িকা নতুন বছরে শুরু করছেন নতুন জার্নি। প্রযোজক দীপিকার প্রথম ছবি ছপাক মুক্তি পাবে ১০ জানুয়ারি। যেখানে অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আগারওয়ালের রিয়েল লাইফ চরিত্রকে পর্দায় ফুটিয়ে তুলবেন এই গ্ল্যামারাস ডিভা। মোটা অঙ্কের পারিশ্রমিক নিলেও প্রযোজকদের পছন্দের তালিকায় শুরুর দিকেই থাকে দীপিকার নাম। কারণটা খুব স্বাভাবিক, তিনি বলিউডের হিট মেশিন। দীপিকার জন্মদিনে ফিরে দেখব তাঁর কেরিয়ারের সেরা ১০ ছবি।
1/11রবিবার ৩৪-এ পা দিলেন বলিউডের ‘মস্তানি’ অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন। দেখতে দেখতে হিন্দি ফিল্ম ইন্ডস্ট্রিতেও ১৩ বছর কাটিয়ে ফেলেছেন দীপিকা। দুটি দক্ষিণী ছবি. একটি হলিউড ছবি মিলিয়ে আজ পর্যন্ত মোট ২৫টি ছবিতে অভিনয় করেছেন দীপিকা। বলিউডের প্রথম সারির এই নায়িকা নতুন বছরে শুরু করছেন নতুন জার্নি। প্রযোজক দীপিকার প্রথম ছবি ছপাক মুক্তি পাবে ১০ জানুয়ারি। যেখানে অ্যাসিড আক্রান্ত লক্ষ্মী আগারওয়ালের রিয়েল লাইফ চরিত্রকে পর্দায় ফুটিয়ে তুলবেন এই গ্ল্যামারাস ডিভা। মোটা অঙ্কের পারিশ্রমিক নিলেও প্রযোজকদের পছন্দের তালিকায় শুরুর দিকেই থাকে দীপিকার নাম। কারণটা খুব স্বাভাবিক, তিনি বলিউডের হিট মেশিন। দীপিকার জন্মদিনে ফিরে দেখব তাঁর কেরিয়ারের সেরা ১০ ছবি।
ওম শান্তি ওম (২০০৭): বলিউডে দীপিকা পাড়ুকোনের পথচলা শুরু হয়েছিল শাহরুখ খানের ওম শান্তি ওমের সঙ্গে। প্রথম ছবিতেই দীপিকা বুঝিয়ে দিয়েছিলেন লম্বা রেসের ঘোড়া তিনি। একদিকে সত্তরে দশকের সুপারহিট নায়িকা শান্তিপ্রিয়া, অন্যদিকে আজকের দিনের উঠতি অভিনেত্রী স্যান্ডি-দুটো চরিত্রেই বেশ মানিয়ে ছিল দীপিকাকে। দীপিকার গালের ডিম্পল, মায়াবী চোখের চাউনিতে মন হারিয়ে ছিলেন লক্ষ পুরুষ।
2/11ওম শান্তি ওম (২০০৭): বলিউডে দীপিকা পাড়ুকোনের পথচলা শুরু হয়েছিল শাহরুখ খানের ওম শান্তি ওমের সঙ্গে। প্রথম ছবিতেই দীপিকা বুঝিয়ে দিয়েছিলেন লম্বা রেসের ঘোড়া তিনি। একদিকে সত্তরে দশকের সুপারহিট নায়িকা শান্তিপ্রিয়া, অন্যদিকে আজকের দিনের উঠতি অভিনেত্রী স্যান্ডি-দুটো চরিত্রেই বেশ মানিয়ে ছিল দীপিকাকে। দীপিকার গালের ডিম্পল, মায়াবী চোখের চাউনিতে মন হারিয়ে ছিলেন লক্ষ পুরুষ।
লাভ আজ কাল (২০০৯): ইতমিয়াজ আলির লাভ আজ কাল দীপিকার কেরিয়ারের অন্যতম মাইলস্টোন। ফিল্মি ইমেজকে পিছনে ফেলে ছবিতে একজন কেরিয়ার সচেতন আজকের নারীর চরিত্রে দেখা মিলেছিল দীপিকার। সংরক্ষণ শিল্পী মীরা, তাঁর কেরিয়ার হোক বা প্রেম কোন কিছুতেই আপোস করতে রাজি ছিল না। যা সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছিলেন দীপিকা।
3/11লাভ আজ কাল (২০০৯): ইতমিয়াজ আলির লাভ আজ কাল দীপিকার কেরিয়ারের অন্যতম মাইলস্টোন। ফিল্মি ইমেজকে পিছনে ফেলে ছবিতে একজন কেরিয়ার সচেতন আজকের নারীর চরিত্রে দেখা মিলেছিল দীপিকার। সংরক্ষণ শিল্পী মীরা, তাঁর কেরিয়ার হোক বা প্রেম কোন কিছুতেই আপোস করতে রাজি ছিল না। যা সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলেছিলেন দীপিকা।
ককটেল(২০১২): ফের একবার সইফ আলি খানের সঙ্গে এই ছবিতে জুটি বাঁধেন দীপিকা। ছবিটি বক্স অফিসে খুব বেশি সাড়া না ফেললেও ভেরোনিকা চরিত্রটির জন্য দর্শক-সমালোচক সব মহলে প্রশংশা কুড়িয়েছিলেন দীপিকা। এই ছবিতে পুরোদস্তুর গ্ল্যামারাস গার্ল হিসাবে তুলে ধরা হয়েছিল দীপিকাকে। পরিচালক হোমি আদাজানিয়ার এই ছবিতে অরেঞ্জ বিকিনিতে দীপিকার লুক ঝড় তুলেছিল নেটদুনিয়ায়।
4/11ককটেল(২০১২): ফের একবার সইফ আলি খানের সঙ্গে এই ছবিতে জুটি বাঁধেন দীপিকা। ছবিটি বক্স অফিসে খুব বেশি সাড়া না ফেললেও ভেরোনিকা চরিত্রটির জন্য দর্শক-সমালোচক সব মহলে প্রশংশা কুড়িয়েছিলেন দীপিকা। এই ছবিতে পুরোদস্তুর গ্ল্যামারাস গার্ল হিসাবে তুলে ধরা হয়েছিল দীপিকাকে। পরিচালক হোমি আদাজানিয়ার এই ছবিতে অরেঞ্জ বিকিনিতে দীপিকার লুক ঝড় তুলেছিল নেটদুনিয়ায়।
ইয়ে জবানি হ্যায় দিবানি (২০১৩): দীপিকার কেরিয়ারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন বছর ২০১৩। একই বছরে চারটি ব্লক বাস্টার ছবি উপহার দিয়েছিলেন দীপিকা যার মধ্যে অন্যতম ইয়ে জবানি হ্যায় দিবানি। অয়ন মুখোপাধ্যায়ের এই ছবিতে প্রাক্তন প্রেমিক রণবীর কাপুরের সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন দীপিকা। তবে নিজের ভাঙা সম্পর্কের ছাপ ছবিতে কোনভাবেই পড়তে দেন নি দীপিকা। ছবির বড় পাওনা ছিল রণবীর-দীপিকার অনস্ক্রিন কেমিস্ট্রি। ভালোবাসার জন্য নিজের কেরিয়ারের বলিদান কোনওভাবেই দেওয়া যায় না পর্দাতেও বুঝিয়ে দিয়েছিলেন তিনি।:
5/11ইয়ে জবানি হ্যায় দিবানি (২০১৩): দীপিকার কেরিয়ারের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন বছর ২০১৩। একই বছরে চারটি ব্লক বাস্টার ছবি উপহার দিয়েছিলেন দীপিকা যার মধ্যে অন্যতম ইয়ে জবানি হ্যায় দিবানি। অয়ন মুখোপাধ্যায়ের এই ছবিতে প্রাক্তন প্রেমিক রণবীর কাপুরের সঙ্গে জুটি বেঁধেছিলেন দীপিকা। তবে নিজের ভাঙা সম্পর্কের ছাপ ছবিতে কোনভাবেই পড়তে দেন নি দীপিকা। ছবির বড় পাওনা ছিল রণবীর-দীপিকার অনস্ক্রিন কেমিস্ট্রি। ভালোবাসার জন্য নিজের কেরিয়ারের বলিদান কোনওভাবেই দেওয়া যায় না পর্দাতেও বুঝিয়ে দিয়েছিলেন তিনি।:
চেন্নাই এক্সপ্রেস (২০১৩):  দীপিকা পাড়ুকোন ফের একবার শাহরুখ খানের সঙ্গে জুটি বাঁধেন চেন্নাই এক্সপ্রেস ছবির জন্য। রোহিত শেট্টির এই ছবি দীপিকার কেরিয়ারে অন্যতম ব্লকবাস্টার। বক্স অফিসে ৪২৪ কোটি টাকার ব্যবসা করেছিল চেন্নাই এক্সপ্রেস। তামিল কন্যা মীনাম্মার চরিত্রে দীপিকা একদম পারফেক্ট। এই ছবিতে দীপিকার কমিক টাইমিং বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছিল।
6/11চেন্নাই এক্সপ্রেস (২০১৩): দীপিকা পাড়ুকোন ফের একবার শাহরুখ খানের সঙ্গে জুটি বাঁধেন চেন্নাই এক্সপ্রেস ছবির জন্য। রোহিত শেট্টির এই ছবি দীপিকার কেরিয়ারে অন্যতম ব্লকবাস্টার। বক্স অফিসে ৪২৪ কোটি টাকার ব্যবসা করেছিল চেন্নাই এক্সপ্রেস। তামিল কন্যা মীনাম্মার চরিত্রে দীপিকা একদম পারফেক্ট। এই ছবিতে দীপিকার কমিক টাইমিং বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছিল।
গোলিও কি রাসলীলা রামলীলা (২০১৩): একই বছরে তামিল গার্ল থেকে গুজরাতি কন্যা হয়ে উঠেছিলেন দীপিকা। সৌজন্যে পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালির গোলিও কি রাসলীলা রামলীলা ছবিতে। শুধু কেরিয়ারের ক্ষেত্রেই নয়, ব্যক্তিগত জীবনেও দীপিকার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন ছবি এটি। কারণ এই ছবির সেটেই শুরু হয়েছিল রণবীর সিং ও দীপিকা পাড়ুকোনের প্রেম কাহিনি। বাঁধনি লেহেঙ্গা চোলি, কাজল কালো চোখে দীপিকা সত্যিই হয়ে ওঠেছিলেন লীলা।
7/11গোলিও কি রাসলীলা রামলীলা (২০১৩): একই বছরে তামিল গার্ল থেকে গুজরাতি কন্যা হয়ে উঠেছিলেন দীপিকা। সৌজন্যে পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনশালির গোলিও কি রাসলীলা রামলীলা ছবিতে। শুধু কেরিয়ারের ক্ষেত্রেই নয়, ব্যক্তিগত জীবনেও দীপিকার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন ছবি এটি। কারণ এই ছবির সেটেই শুরু হয়েছিল রণবীর সিং ও দীপিকা পাড়ুকোনের প্রেম কাহিনি। বাঁধনি লেহেঙ্গা চোলি, কাজল কালো চোখে দীপিকা সত্যিই হয়ে ওঠেছিলেন লীলা।
পিকু(২০১৫):  সুজিত সরকারের পিকুতে বঙ্গতনয়ার চরিত্রে দেখা মেলে দীপিকার। গ্ল্যামার গার্ল নয় এই ছবিতে একজন যত্নশীল মেয়ের ভূমিকায় পাওয়া গিয়েছিল দীপিকা। অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করাটা সহজ ছিল না, তবে খুব সুন্দরভাবে সেই কাজ করে দেখিয়েছেন দীপিকা। সন্তানরা কেরিয়ার সামলানোর পাশাপাশি কেমনভাবে নিজেদের অশীতিপর বাবা-মা’র প্রতিও সমানভাবে যত্নশীল হতে পারে তা দেখিয়ে দিয়েছে পিকু।
8/11পিকু(২০১৫): সুজিত সরকারের পিকুতে বঙ্গতনয়ার চরিত্রে দেখা মেলে দীপিকার। গ্ল্যামার গার্ল নয় এই ছবিতে একজন যত্নশীল মেয়ের ভূমিকায় পাওয়া গিয়েছিল দীপিকা। অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করাটা সহজ ছিল না, তবে খুব সুন্দরভাবে সেই কাজ করে দেখিয়েছেন দীপিকা। সন্তানরা কেরিয়ার সামলানোর পাশাপাশি কেমনভাবে নিজেদের অশীতিপর বাবা-মা’র প্রতিও সমানভাবে যত্নশীল হতে পারে তা দেখিয়ে দিয়েছে পিকু।
বাজিরাও মস্তানি (২০১৫): সঞ্জয় লীলা বনশালির সবচেয়ে পছন্দের নায়িকা দীপিকা সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। বাজিরাও-মস্তানিতে আবারও বনশালি ও রণবীরের সঙ্গে জুটি বাঁধেন দীপিকা। প্রেমিকা, স্ত্রী, মা থেকে নির্ভীক যোদ্ধা-মস্তানিবাঈয়ের চরিত্রের প্রত্যেকটি দিক সুন্দরভাবে পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছেন দীপিকা।
9/11বাজিরাও মস্তানি (২০১৫): সঞ্জয় লীলা বনশালির সবচেয়ে পছন্দের নায়িকা দীপিকা সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। বাজিরাও-মস্তানিতে আবারও বনশালি ও রণবীরের সঙ্গে জুটি বাঁধেন দীপিকা। প্রেমিকা, স্ত্রী, মা থেকে নির্ভীক যোদ্ধা-মস্তানিবাঈয়ের চরিত্রের প্রত্যেকটি দিক সুন্দরভাবে পর্দায় ফুটিয়ে তুলেছেন দীপিকা।
ট্রিপল এক্স: রির্টান অফ জেন্ডার কেজ(২০১৭): ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস ফ্রাঞ্চাইসিতে অভিনয়ের সুযোগ শেষমেষ হাতছাড়া হলেও ভিন ডিজেলের বিপরীতে ট্রিপল এক্স: রির্টান অফ জেন্ডার কেজের সঙ্গে হলিউডে অভিষেক হয়েছে দীপিকার। বক্স অফিসে এই ছবি প্রত্যাশা পূরণে সফল না হলেও দীপিকা পাড়ুকোন কিন্তু নিজের ছাপ রেখেছেন পর্দায়। এখন অন্তহীন অপেক্ষা জারি রয়েছে দীপিকার পরবর্তী হলিউড প্রোজেক্টের জন্য...
10/11ট্রিপল এক্স: রির্টান অফ জেন্ডার কেজ(২০১৭): ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস ফ্রাঞ্চাইসিতে অভিনয়ের সুযোগ শেষমেষ হাতছাড়া হলেও ভিন ডিজেলের বিপরীতে ট্রিপল এক্স: রির্টান অফ জেন্ডার কেজের সঙ্গে হলিউডে অভিষেক হয়েছে দীপিকার। বক্স অফিসে এই ছবি প্রত্যাশা পূরণে সফল না হলেও দীপিকা পাড়ুকোন কিন্তু নিজের ছাপ রেখেছেন পর্দায়। এখন অন্তহীন অপেক্ষা জারি রয়েছে দীপিকার পরবর্তী হলিউড প্রোজেক্টের জন্য...
পদ্মাবত (২০১৮):  দীপিকার কেরিয়ারের সবচেয়ে চর্চিত এবং বিতর্কিত ছবি নিঃসন্দেহে পদ্মাবত। রানি পদ্মাবতীর চরিত্রে দীপিকার লুক মুগ্ধ করেছিল শুরু থেকেই। এই ছবিতেও ফের একবার সঞ্জয় লীলা বনশালি-দীপিকা পাড়ুকোন এবং রণবীর সিং ত্রয়ীর ম্যাজিক দেখেছে দর্শক। শোনা যায়, এই ছবির জন্য রণবীর সিং ও শাহিদ কাপুরের থেকে বেশি পারিশ্রমিক নিয়েছিলেন দীপিকা। নিজের কাঁধে গোটা ছবির ভার বইতে সক্ষম দীপিকা। তাই দীপিকার দাবি মেনে নিয়েছিলেন প্রযোজকরাও। পুরুষ প্রধান বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে এটা কম বড় প্রাপ্তি নয় কোনও নায়িকার কাছে।
11/11পদ্মাবত (২০১৮): দীপিকার কেরিয়ারের সবচেয়ে চর্চিত এবং বিতর্কিত ছবি নিঃসন্দেহে পদ্মাবত। রানি পদ্মাবতীর চরিত্রে দীপিকার লুক মুগ্ধ করেছিল শুরু থেকেই। এই ছবিতেও ফের একবার সঞ্জয় লীলা বনশালি-দীপিকা পাড়ুকোন এবং রণবীর সিং ত্রয়ীর ম্যাজিক দেখেছে দর্শক। শোনা যায়, এই ছবির জন্য রণবীর সিং ও শাহিদ কাপুরের থেকে বেশি পারিশ্রমিক নিয়েছিলেন দীপিকা। নিজের কাঁধে গোটা ছবির ভার বইতে সক্ষম দীপিকা। তাই দীপিকার দাবি মেনে নিয়েছিলেন প্রযোজকরাও। পুরুষ প্রধান বলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে এটা কম বড় প্রাপ্তি নয় কোনও নায়িকার কাছে।
অন্য গ্যালারিগুলি