রেলের তৎকাল টিকিট কাটতে অসুবিধা? জানুন সাফল্যের সহজ উপায়

  • শেষ মুহূর্তে রেল টিকিট পাওয়ার একমাত্র উপায় তৎকাল পদ্ধতি। কিন্তু নানান কারণে তাতেও সুবিধে হয় না প্রায়শই। ঠান্ডা মাথায় ভেবে দেখলে কিন্তু তৎকাল পদ্ধতিতে ট্রেনের টিকিট কাটা যায় সহজেই। শুধু মেনে চলতে হবে কিছু জরুরি টিপস।
দোল-হোলির ছুটিতে বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা ভেস্তে যায় ট্রেনে সংরক্ষণের অভাবে।
1/6দোল-হোলির ছুটিতে বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা ভেস্তে যায় ট্রেনে সংরক্ষণের অভাবে।
অনলাইনে তৎকাল পদ্ধতিতে টিকিট কাটার আগে নিশ্চিত হতে হবে ইন্টারনেট সংযোগের গতি নিয়ে। মনে রাখতে হবে, বাজারলভ্য দ্রুততম ইন্টারনেট পরিষেবাই এক্ষেত্রে সাফল্য পাওয়ার প্রধান চাবিকাঠি। বুকিং চালু হওয়ার আগে বার বার পরীক্ষা করে দেখতে হবে নিজের ডিভাইসে ব্যবহৃত ইন্টারনেট পরিষেবা সম্পর্কে। মনে রাখবেন, উন্নত ইন্টারনেট পরিষেবা থাকলে দ্রুত খুলে যায় IRCTC ওয়েবসাইট। মাত্র কয়েক সেকেন্ডের দেরিতেও ফস্কে যেতে পারে টিকিট পাওয়ার সম্ভাবনা। তাই বুকিং চালু হওয়ার আগে কয়েক বার মহড়া দিয়ে নিন।
2/6অনলাইনে তৎকাল পদ্ধতিতে টিকিট কাটার আগে নিশ্চিত হতে হবে ইন্টারনেট সংযোগের গতি নিয়ে। মনে রাখতে হবে, বাজারলভ্য দ্রুততম ইন্টারনেট পরিষেবাই এক্ষেত্রে সাফল্য পাওয়ার প্রধান চাবিকাঠি। বুকিং চালু হওয়ার আগে বার বার পরীক্ষা করে দেখতে হবে নিজের ডিভাইসে ব্যবহৃত ইন্টারনেট পরিষেবা সম্পর্কে। মনে রাখবেন, উন্নত ইন্টারনেট পরিষেবা থাকলে দ্রুত খুলে যায় IRCTC ওয়েবসাইট। মাত্র কয়েক সেকেন্ডের দেরিতেও ফস্কে যেতে পারে টিকিট পাওয়ার সম্ভাবনা। তাই বুকিং চালু হওয়ার আগে কয়েক বার মহড়া দিয়ে নিন।
তৎকাল পদ্ধতিতে ট্রেনের টিকিট বুক করতে গিয়ে অনেকেই একটি ভুল করেন। বুকিং শুরুর পরে লগ ইন করতে গেলে নষ্ট হয় মূল্যবান সময়। এই কারণে তৎকাল বুকিং শুরু হওয়ার কিছু আগে IRCTC ওয়েবসাইটে লগ ইন করুন। তার মানে, তৎকাল বুকিংয়ের ব্যস্ততম সময়ের (সকাল ১০টা থেকে এসি কামরার বুকিং এবং সকাল ১১টা থেকে নন-এসি কামরার বুকিং) আগেই এই ওয়েবসাইটে লগ ইন করা বুদ্ধিমানের কাজ হবে। খেয়াল রাখুন, একাধিক ব্রাউজার বা ডিভাইস থেকে একই ক্রেডেনশিয়াল ব্যবহার করে লগ ইন করার চেষ্টা করবেন না। এই আচরণ বরদাস্ত করে না IRCTC, এবং এর জেরে আপনাকে ওয়েবসাইট থেকে লগ আউট করা হতে পারে। একাধিক ডিভাইস থেকে লগ ইন করতে হলে আলাদা আলাদা আইডি ব্যবহার করুন এবং যে আইডি আগে খোলে তার সাহায্যে টিকিট বুকিং করুন।
3/6তৎকাল পদ্ধতিতে ট্রেনের টিকিট বুক করতে গিয়ে অনেকেই একটি ভুল করেন। বুকিং শুরুর পরে লগ ইন করতে গেলে নষ্ট হয় মূল্যবান সময়। এই কারণে তৎকাল বুকিং শুরু হওয়ার কিছু আগে IRCTC ওয়েবসাইটে লগ ইন করুন। তার মানে, তৎকাল বুকিংয়ের ব্যস্ততম সময়ের (সকাল ১০টা থেকে এসি কামরার বুকিং এবং সকাল ১১টা থেকে নন-এসি কামরার বুকিং) আগেই এই ওয়েবসাইটে লগ ইন করা বুদ্ধিমানের কাজ হবে। খেয়াল রাখুন, একাধিক ব্রাউজার বা ডিভাইস থেকে একই ক্রেডেনশিয়াল ব্যবহার করে লগ ইন করার চেষ্টা করবেন না। এই আচরণ বরদাস্ত করে না IRCTC, এবং এর জেরে আপনাকে ওয়েবসাইট থেকে লগ আউট করা হতে পারে। একাধিক ডিভাইস থেকে লগ ইন করতে হলে আলাদা আলাদা আইডি ব্যবহার করুন এবং যে আইডি আগে খোলে তার সাহায্যে টিকিট বুকিং করুন।
অনলাইনে তৎকাল পদ্ধতিতে টিকিট বুক করতে হলে আগে থেকেই সমস্ত তথ্য তৈরি রাখুন। এর মধ্যে থাকছে যাত্রী তালিকার খুঁটিমাটি। পারলে ওয়ার্ডপ্যাড বা নোটস-এ এই বিস্তারিত তালিকা আগেই টাইপ করে রাখুন। যাত্রীদের নাম, বয়স, লিঙ্গ, ঠিকানা ও পছন্দের বার্থ সম্পর্কে সমস্ত তথ্য টাইপ করে রাখুন সেখানে। লগ ইন করার পরে সেখান থেকে সোজাসুজি কপি করে IRCTC ওয়েবসাইটে নির্দিষ্ট জায়গায় পেস্ট করে দিলে অনেক সময় বাঁচবে। আরও ভালো হয়, নিজের IRCTC অ্যাকাউন্টের ‘মাই প্রোফাইল’-এ প্রবেশ করে ‘মাস্টার লিস্ট’ অপশনে গিয়ে আগে থেকেই সম্ভাব্য যাত্রী তালিকার তথ্য টাইপ করে সেভ করে রাখুন। যে কোনও রেলটিকিট কাটার সময় এই তালিকা কাজে লাগবে।
4/6অনলাইনে তৎকাল পদ্ধতিতে টিকিট বুক করতে হলে আগে থেকেই সমস্ত তথ্য তৈরি রাখুন। এর মধ্যে থাকছে যাত্রী তালিকার খুঁটিমাটি। পারলে ওয়ার্ডপ্যাড বা নোটস-এ এই বিস্তারিত তালিকা আগেই টাইপ করে রাখুন। যাত্রীদের নাম, বয়স, লিঙ্গ, ঠিকানা ও পছন্দের বার্থ সম্পর্কে সমস্ত তথ্য টাইপ করে রাখুন সেখানে। লগ ইন করার পরে সেখান থেকে সোজাসুজি কপি করে IRCTC ওয়েবসাইটে নির্দিষ্ট জায়গায় পেস্ট করে দিলে অনেক সময় বাঁচবে। আরও ভালো হয়, নিজের IRCTC অ্যাকাউন্টের ‘মাই প্রোফাইল’-এ প্রবেশ করে ‘মাস্টার লিস্ট’ অপশনে গিয়ে আগে থেকেই সম্ভাব্য যাত্রী তালিকার তথ্য টাইপ করে সেভ করে রাখুন। যে কোনও রেলটিকিট কাটার সময় এই তালিকা কাজে লাগবে।
অনলাইনে তৎকাল পদ্ধতিতে টিকিট বুক করতে হলে দ্রুতগামী পেমেন্ট অপশন ব্যবহার করুন। ডিজিটাল ওয়ালেট ব্যবহার করলে আগে থছেকে লোড করে রাখুন। তা হলে বুকিং করার সময় ওয়ালেট লোড করার ঝামেলা থাকবে না এবং সময় বাঁচবে। তাড়াতাড়ি টাকা পাঠানোর আর এক ব্যবস্থা IRCTC ওয়েবসাইটে থাকা ePayLater ব্যবহার করা। যে হেতু এই ব্যবস্থায বুকিংয়ের সময় টাকা দিতে হয় না, তাই তৎকাল টিকিট কাটার সময় বাঁচাতে তা খুবই কাজে দেয়।
5/6অনলাইনে তৎকাল পদ্ধতিতে টিকিট বুক করতে হলে দ্রুতগামী পেমেন্ট অপশন ব্যবহার করুন। ডিজিটাল ওয়ালেট ব্যবহার করলে আগে থছেকে লোড করে রাখুন। তা হলে বুকিং করার সময় ওয়ালেট লোড করার ঝামেলা থাকবে না এবং সময় বাঁচবে। তাড়াতাড়ি টাকা পাঠানোর আর এক ব্যবস্থা IRCTC ওয়েবসাইটে থাকা ePayLater ব্যবহার করা। যে হেতু এই ব্যবস্থায বুকিংয়ের সময় টাকা দিতে হয় না, তাই তৎকাল টিকিট কাটার সময় বাঁচাতে তা খুবই কাজে দেয়।
তৎকাল টিকিট কাটার আগে নিজের মোবাইল সংযোগ ব্যবস্থা সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে নিন। কানেক্টিভিটি দ্রুত হলে বুকিংয়ের সময় OTP পেতে বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয় না। তার চেয়েও ভালো হয় যদি OTP ব্যবস্থা এড়ানো যায়। এ ক্ষেত্রে ePayLater-এর ইন-অ্যাপ OTP ফিচার ব্যবহার করুন, যাতে এই OTP অটো-জেনারেটেড হয় এবং মেসেজের জন্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হয় না। এই সুবিধা পেতে চাইলে, ePayLater-এর মাধ্যমে টিকিট বুক করতে চাইলে অ্যাপটি খুলুন এবং প্রোফাইল সেকশন থেকে In-App OTP সিলেক্ট করুন। এই otp কপি করে তাড়াতাড়ি বুকিং সারুন।
6/6তৎকাল টিকিট কাটার আগে নিজের মোবাইল সংযোগ ব্যবস্থা সম্পর্কে নিশ্চিত হয়ে নিন। কানেক্টিভিটি দ্রুত হলে বুকিংয়ের সময় OTP পেতে বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয় না। তার চেয়েও ভালো হয় যদি OTP ব্যবস্থা এড়ানো যায়। এ ক্ষেত্রে ePayLater-এর ইন-অ্যাপ OTP ফিচার ব্যবহার করুন, যাতে এই OTP অটো-জেনারেটেড হয় এবং মেসেজের জন্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হয় না। এই সুবিধা পেতে চাইলে, ePayLater-এর মাধ্যমে টিকিট বুক করতে চাইলে অ্যাপটি খুলুন এবং প্রোফাইল সেকশন থেকে In-App OTP সিলেক্ট করুন। এই otp কপি করে তাড়াতাড়ি বুকিং সারুন।
অন্য গ্যালারিগুলি