বাংলা নিউজ > ছবিঘর > কোন কোন ক্ষেত্রে শিথিল বিধিনিষেধ? শুক্রবার থেকে নয়া নিয়ম কী থাকবে? দেখে নিন

কোন কোন ক্ষেত্রে শিথিল বিধিনিষেধ? শুক্রবার থেকে নয়া নিয়ম কী থাকবে? দেখে নিন

  • রাজ্যে আরও কিছুটা শিথিল হল করোনাভাইরাস সংক্রান্ত বিধিনিষেধ।আগামী শুক্রবার (১৬ জুলাই) থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত সেই নয়া বিধি কার্যকর হবে। তাতে একাধিক ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে। দেখে নিন কোন কোন ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে এবং কী কী নিয়ম থাকছে - 
স্কুল, কলেজে, বিশ্ববিদ্যালয়, অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্র-সহ যাবতীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
1/21স্কুল, কলেজে, বিশ্ববিদ্যালয়, অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্র-সহ যাবতীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
রাজ্যের মধ্যে বাস, অটো, ট্যাক্সি, ক্যাব, ট্রাম এবং জলপরিবহন চালু থাকবে। সর্বাধিক ৫০ শতাংশ যাত্রী উঠতে পারবেন। চালক এবং কর্মীদের টিকা নিতে হবে। (ফাইল ছবি, সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস)
2/21রাজ্যের মধ্যে বাস, অটো, ট্যাক্সি, ক্যাব, ট্রাম এবং জলপরিবহন চালু থাকবে। সর্বাধিক ৫০ শতাংশ যাত্রী উঠতে পারবেন। চালক এবং কর্মীদের টিকা নিতে হবে। (ফাইল ছবি, সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস)
এবারও মিলল না লোকাল ট্রেন চালানোর অনুমতি। বুধবার নবান্নের তরফে জানানো হয়েছে, আগামী ৩০ জুলাই পর্যন্ত রাজ্য লোকাল ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে। শুধুমাত্র স্টাফ স্পেশাল ট্রেন চলবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস)
3/21এবারও মিলল না লোকাল ট্রেন চালানোর অনুমতি। বুধবার নবান্নের তরফে জানানো হয়েছে, আগামী ৩০ জুলাই পর্যন্ত রাজ্য লোকাল ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে। শুধুমাত্র স্টাফ স্পেশাল ট্রেন চলবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য সমীর জানা/হিন্দুস্তান টাইমস)
অবশেষে সাধারণ যাত্রীর জন্য খোলা হল মেট্রোর দরজা। আগামী ১৬ জুলাই (শুক্রবার) থেকে সাধারণ যাত্রীদের জন্য সপ্তাহে পাঁচদিন মেট্রো চলাচলের অনুমতি দিল রাজ্য সরকার। শনিবার এবং রবিবার বন্ধ থাকবে মেট্রো পরিষেবা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
4/21অবশেষে সাধারণ যাত্রীর জন্য খোলা হল মেট্রোর দরজা। আগামী ১৬ জুলাই (শুক্রবার) থেকে সাধারণ যাত্রীদের জন্য সপ্তাহে পাঁচদিন মেট্রো চলাচলের অনুমতি দিল রাজ্য সরকার। শনিবার এবং রবিবার বন্ধ থাকবে মেট্রো পরিষেবা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
সিনেমা হল এবং স্পা বন্ধ থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)
5/21সিনেমা হল এবং স্পা বন্ধ থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য এএনআই)
সুইমিং পুল বন্ধ থাকবে। তবে রাজ্য, জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক স্তরের সাঁতারুদের জন্য সকাল ৬ টা থেকে সকাল ১০ টা পর্যন্ত সুইমিং পুল খোলা থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
6/21সুইমিং পুল বন্ধ থাকবে। তবে রাজ্য, জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক স্তরের সাঁতারুদের জন্য সকাল ৬ টা থেকে সকাল ১০ টা পর্যন্ত সুইমিং পুল খোলা থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
যাবতীয় রাজনৈতিক বা সামাজিক বা সাংস্কৃতিক বা বিনোদন সংক্রান্ত জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা থাকছে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
7/21যাবতীয় রাজনৈতিক বা সামাজিক বা সাংস্কৃতিক বা বিনোদন সংক্রান্ত জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা থাকছে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
স্বাভাবিক সময়বিধি মেনে সরকারি অফিস চলবে। ২৫ শতাংশ কর্মী উপস্থিত থাকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
8/21স্বাভাবিক সময়বিধি মেনে সরকারি অফিস চলবে। ২৫ শতাংশ কর্মী উপস্থিত থাকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
সকাল ৬ টা থেকে সকাল ৯ টা পর্যন্ত প্রাতঃভ্রমণ এবং ব্যায়ামের জন্য পার্ক খোলা থাকবে। শুধুমাত্র টিকাপ্রাপ্তরা ঢুকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
9/21সকাল ৬ টা থেকে সকাল ৯ টা পর্যন্ত প্রাতঃভ্রমণ এবং ব্যায়ামের জন্য পার্ক খোলা থাকবে। শুধুমাত্র টিকাপ্রাপ্তরা ঢুকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
আগে সব দোকান এবং বাজার (অত্যাবশ্যকীয় এবনং অনাবশ্যকীয় দোকান) দোকান যেমন খোলা হত, তেমনভাবেই খোলা যাবে। অর্থাৎ শুক্রবার থেকে সাধারণ সময়েই দোকান রাখা যাবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
10/21আগে সব দোকান এবং বাজার (অত্যাবশ্যকীয় এবনং অনাবশ্যকীয় দোকান) দোকান যেমন খোলা হত, তেমনভাবেই খোলা যাবে। অর্থাৎ শুক্রবার থেকে সাধারণ সময়েই দোকান রাখা যাবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
এবার থেকে সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ৩ টে পর্যন্ত ব্যাঙ্ক খোলা রাখা যাবে। আগে যা দুপুর ২ টো পর্যন্ত ছিল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)
11/21এবার থেকে সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ৩ টে পর্যন্ত ব্যাঙ্ক খোলা রাখা যাবে। আগে যা দুপুর ২ টো পর্যন্ত ছিল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)
আগে যেমন খোলা থাকত, সেই সময় হোটেল, শপিং মল এবং ক্লাবের রেস্তোরাঁ ও পানশালা খোলা যাবে। তবে রাত আটটার পর রেস্তোরাঁ ও পানশালা খুলে রাখা যাবে না। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
12/21আগে যেমন খোলা থাকত, সেই সময় হোটেল, শপিং মল এবং ক্লাবের রেস্তোরাঁ ও পানশালা খোলা যাবে। তবে রাত আটটার পর রেস্তোরাঁ ও পানশালা খুলে রাখা যাবে না। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
শপিং মল এবং মার্কেট কমপ্লেক্সের খুচরো দোকান সাধারণ সময় যেমন খোলা থাকত, তেমনই খোলা রাখা যাবে। তবে ৫০ শতাংশ লোকবল থাকবে। একই সময় সর্বাধিক ৫০ শতাংশ ক্রেতা বা মানুষ ঢুকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
13/21শপিং মল এবং মার্কেট কমপ্লেক্সের খুচরো দোকান সাধারণ সময় যেমন খোলা থাকত, তেমনই খোলা রাখা যাবে। তবে ৫০ শতাংশ লোকবল থাকবে। একই সময় সর্বাধিক ৫০ শতাংশ ক্রেতা বা মানুষ ঢুকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
সকাল ৬ টা থেকে সকাল ৯ টা এবং বিকেল ৪ টে থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত জিম খোলা থাকবে। ৫০ শতাংশ মানুষ উপস্থিত থাকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য গুরপ্রীত সিং/হিন্দুস্তান টাইমস)
14/21সকাল ৬ টা থেকে সকাল ৯ টা এবং বিকেল ৪ টে থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত জিম খোলা থাকবে। ৫০ শতাংশ মানুষ উপস্থিত থাকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য গুরপ্রীত সিং/হিন্দুস্তান টাইমস)
সাধারণ সময়মতো সেলুন, বিউটি পার্লার খোলা থাকবে। ৫০ শতাংশ মানুষ উপস্থিত থাকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
15/21সাধারণ সময়মতো সেলুন, বিউটি পার্লার খোলা থাকবে। ৫০ শতাংশ মানুষ উপস্থিত থাকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
সাধারণ সময়মতো বেসরকারি অফিস খোলা রাখা যাবে। টিকাকরণ, মাস্ক বিধি, সামাজিক দূরত্বের বিধির ভিত্তিতে সর্বাধিক ৫০ শতাংশ কর্মী উপস্থিত থাকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
16/21সাধারণ সময়মতো বেসরকারি অফিস খোলা রাখা যাবে। টিকাকরণ, মাস্ক বিধি, সামাজিক দূরত্বের বিধির ভিত্তিতে সর্বাধিক ৫০ শতাংশ কর্মী উপস্থিত থাকতে পারবেন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
দর্শকচাড়া স্টেডিয়াম বা স্পোর্টস কমপ্লেক্স খেলা হতে পারে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
17/21দর্শকচাড়া স্টেডিয়াম বা স্পোর্টস কমপ্লেক্স খেলা হতে পারে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
সর্বাধিক ৫০ শতাংশ কর্মী নিয়ে কারখানা, মিল এবং তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে কাজ চলতে পারে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
18/21সর্বাধিক ৫০ শতাংশ কর্মী নিয়ে কারখানা, মিল এবং তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে কাজ চলতে পারে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
রাত ৯ টা থেকে সকাল ৫ টা পর্যন্ত বিধিনিষেধ জারি থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
19/21রাত ৯ টা থেকে সকাল ৫ টা পর্যন্ত বিধিনিষেধ জারি থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
ই-কমার্স ও হোম ডেলিভারি চালু থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
20/21ই-কমার্স ও হোম ডেলিভারি চালু থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
পেট্রল পাম্প, গ্যাসের দোকান খোলা থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য কেশব সিং/হিন্দুস্তান টাইমস)
21/21পেট্রল পাম্প, গ্যাসের দোকান খোলা থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য কেশব সিং/হিন্দুস্তান টাইমস)
অন্য গ্যালারিগুলি