বাংলা নিউজ > ময়দান > ফের বেটিংয়ের কালো ছায়া IPL-এ, DDCA-এর এক কর্মী সহ গ্রেফতার ২
আইপিএলে বেটিংয়ের কালো ছায়া।
আইপিএলে বেটিংয়ের কালো ছায়া।

ফের বেটিংয়ের কালো ছায়া IPL-এ, DDCA-এর এক কর্মী সহ গ্রেফতার ২

  • ডিডিসিএ-এর কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২ মে আইপিএল ম্যাচের সমস্ত তথ্য বুকিদের নাকি তিনি পাচার করেছিলেন।

আইপিএলে রমরম করে চলছে বেটিং। সেই বেটিং চক্রের সঙ্গে দিল্লি এবং রাজ্য ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের (ডিডিসিএ) এক কর্মীও যুক্ত রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। নাম বলাম সিং। গত সপ্তাহে তাঁকে গ্রেফতার করেছে দিল্লি পুলিশের স্পেশ্যাল সেল। এ ছাড়াও বীরেন্দর সিং শাহ নামে আর এক ব্যক্তিকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। ডিডিসিএ আইপিএলের অ্যাক্রিডিটেশন কার্ডের দায়িত্ব যে সংস্থাকে দিয়েছিল, সেই সংস্থার কর্মী ছিলেন বীরেন্দর।

ডিডিসিএ-এর কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২ মে আইপিএল ম্যাচের সমস্ত তথ্য বুকিদের নাকি তিনি পাচার করেছিলেন। এক সিনিয়র পুলিশ অফিসার জানিয়েছেন, কৃশান গর্গ এবং মণিশ কাঁসল নামে দুই বুকির জাল অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড করে দেওয়ার জন্য বীরেন্দর এবং বলামকে বলা হয়েছিল।

প্রসঙ্গত, ২ মে দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে রাজস্থান রয়্যালস এবং সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ম্যাচে দু'জন বুকি ঢুকে পড়েছিলেন। জাল অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড নিয়ে কৃশান গর্গ এবং মণিশ কাঁসল নামে ওই এই দুই বুকি স্টেডিয়ামের ভিআইপি বক্সে ঢুকে পড়েছিলেন। পরে তাঁদের গ্রেফতার করেছিল পুলিশ।

সিনিয়র পুলিশ অফিসার জানিয়েছেন, ‘শাহ (বীরেন্দর সিং) ১০ বছর ধরে কাজ করছেন। আর বলাম ডিডিসিএ-র কেরানি ছিলেন। বুকিরা ওদেরকে জাল অ্যাক্রিডিটেশন কার্ড তৈরি করার জন্য বলেছিল। হাউসকিপিং স্টাফ নিয়োগকারী সংস্থা এবং দক্ষিণ দিল্লি পুরসভার তরফে যে সমস্ত সদস্যদের কার্ড তৈরির জন্য তালিকা পাঠানো হয়েছিল, সেই তালিকা থেকে, দু'জনকে বাদ দিয়ে, দুই বুকির নাম ঢুকিয়ে দেন অভিযুক্ত দুই ব্যক্তি।’

ডিডিসিএ প্রেসিডেন্ট রোহন জেটলি জানিয়েছেন, ‘যে কর্মী এর সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, তাঁকে ইতিমধ্যে সাসপেন্ড করা হয়েছে। এবং এই ধরনের ঘটনার সঙ্গে যে কেউই জড়িত থাকুন না কেন, তাঁর বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বন্ধ করুন