100 Hours 100 Stars-এ চেতেশ্বর পূজারা।
100 Hours 100 Stars-এ চেতেশ্বর পূজারা।

100 Hours 100 Stars: অজি আধিপত্যে থাবা, দলের সবার কাছে ওটা ছিল গর্বের মুহূর্ত, জানালেন পূজারা

  • সিডনির ১৯৩ নয়, চেতেশ্বরের কাছে স্পেশাল অ্যাডিলেডের ১২৩।

এশিয়ার প্রথম ও এযাবৎ একমাত্র দল হিসেবে অস্ট্রেলিয়ার মাটি থেকে টেস্ট সিরিজ জিতে ফেরা নিঃসন্দেহে গৌরবের। স্বভাবিকভাবেই গর্বিত সিরিজের নায়ক চেতেশ্বর পূজারা।

ফিভার নেটয়ার্কের অভিনব উদ্যোগ #100Hours100Stars-এর শোয়ে চেতেশ্বর জানান, অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে এই সাফল্য ছিল দলগত প্রচেষ্টার ফসল। যদিও বোলারদের আলাদা করে কৃতিত্ব দিতে ভোলেননি টিম ইন্ডিয়ার নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান।

২০১৮-১৯'এর অস্ট্রেলিয়া সফরে ৪ টেস্টের সিরজে ভারত ২-১ ব্যবধানে জয় তুলে নেয়। তার আগে এশিয়ার কোনও দেশ অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অস্ট্রেলিয়াকে টেস্ট সিরিজে হারাতে পারেনি। অ্যাডিলেডে ভারত প্রথম টেস্ট জেতে ৩১ রানে। পারথে অস্ট্রেলিয়া ১৪৬ রানে ম্যাচ জিতে সিরিজে সমতা ফেরায়। মেলবোর্নের বক্সিং ডে টেস্টে ভারত জয়লাভ করে ১৩৭ রানের ব্যবধানে। সিডনিতে সিরিজের চতুর্থ তথা শেষ টেস্ট ড্র হয়।

প্রথম ও শেষ টেস্টের সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হন পূজারা। সিরিজের সেরা ক্রিকেটারের পুরস্কারও ওঠে তাঁর হাতে। সিরিজের ৪ ম্যাচের ৭ ইনিংসে ৭৪.৪২ গড়ে ৫২১ রান সংগ্রহ করেন পূজারা। তিনটি শতরান ও একটি অর্ধশতরান আসে তাঁর ব্যাট থেকে।

সিরিজের স্মৃতিচারণায় চেতেশ্বর বলেন, ‘ওটা স্পেশাল সিরিজ ছিল। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ওটাই আমাদের প্রথম টেস্ট সিরিজ জয়। সুতরাং আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের মুহূর্ত ছিল।’

পূজারা জানান, প্রথম ম্যাচটাই সিরিজের গতিপথ নির্ধারণ করে দিয়েছিল। তাঁর কথায়, ‘প্রথম ম্যাচটাই সিরিজ আমাদের অনুকূলে এনে দেয়। যদি প্রথম টেস্ট জিতে শুরুটা ভালো করা যায়, বিশেষ করে বিদেশ সফরে, সেটা কার্যকরী হয়ে দেখা দেয়। ঘরের মাঠে ৪ ম্যাচের সিরিজে শুরুতেই ০-১’য় পিছিয়ে পড়লে ঘুরে দাঁড়ানো মুশকিল হয়। যেটা ২০১৭-র সিরিজে আমাদের ক্ষেত্রে হয়েছিল। পুণেতে আমরা প্রথম টেস্ট হেরে বসেছিলাম। সেটা ছিল আমার কেরিয়ারের অন্যতম কঠিন সিরিজ।'

সিডনিতে অল্পের জন্য দ্বিশতরান হাতছাড়া করেছিলেন পূজারা। তা সত্ত্বেও এসসিজির ১৯৩ রানের থেকেও অ্যাডিলেডের ১২৩ রানকে এগিয়ে রাখলেন চেতেশ্বর। তিনি বলেন, ‘অ্যাডিলেডের প্রথম শতরানটা স্মরণীয় হয়ে থাকবে। কারণ, আমরা ৬ উইকেট হারিয়ে বসেছিলাম। সেখান থেকে অশ্বিনের সঙ্গে আমার পার্টনারশিপটাই আমাদের ভালো স্কোরে পৌঁছতে সাহায্য করেছিল। আমরা প্রথম ইনিংসে ২৫০ রান তুলেছিলাম। যার মধ্যে আমার রান ছিল ১২৩।’

বন্ধ করুন