100 Hours 100 Stars-এ বেদা কৃষ্ণমূর্তি।
100 Hours 100 Stars-এ বেদা কৃষ্ণমূর্তি।

100 Hours 100 Stars: আন্তর্জাতিক কেরিয়ারের শুরুতেই আত্মবিশ্বাস জুগিয়েছিলেন ঝুলন, কৃতিত্ব দিলেন বেদা

  • শুরু থেকেই সবার আস্থা ছিল তাঁর উপর, জানালেন ভারতীয় মহিলা দলের তারকা ক্রিকেটার।

ভারতীয় মহিলা দলের আগ্রাসী ব্যাটার বেদা কৃষ্ণমূর্তির ক্রিকেটার হওয়ার গল্প যেমন চিত্তাকর্ষক, ঠিক তেমনই রোমাঞ্চকর তাঁর জাতীয় দলের হয়ে আত্মপ্রকাশের ছবিটাও। ইংল্যাল্ডের মাটিতে তারকাখচিত ইংল্যান্ড দলের বিরুদ্ধে কেরিয়ারের প্রথম ম্যাচেই অনবদ্য হাফ-সেঞ্চুরি। শুরু হওয়ার পর যাত্রাটা উত্তেজক রূপ নিয়েছে ক্রমশ।

বেদা অবশ্য ভারতীয় দলে নিজের প্রভাবশালী আত্মপ্রকাশের জন্য ক্যাপ্টেন ঝুলন গোস্বামীকে কৃতিত্ব দিলেন। ফিভার নেটওয়ার্কের #100Hours100Stars-এর শোয়ে বেদা জানালেন, তাঁর মধ্যে আত্মবিশ্বাসের বীজ বুনে দিয়েছিলেন ঝুলনই।

বেদার কথায়, ‘ইংল্যান্ডে চারদলীয় টুর্নামেন্ট ছিল। ইংল্যান্ড ছাড়াও অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের মতো বড় দল অংশ নিয়েছিল টুর্নামেন্টে। আমরা নিঃসন্দেহে আন্ডারডগ ছিলাম। টুর্নামেন্টের আগে আমাদের এক মাসের ক্যাম্প ছিল। সেই সময় আমাদের ক্যাপ্টেন ছিল ঝুলন। আমি ঝুলনকে কৃতিত্ব দেব। কারণ শুরু থেকেই আত্মবিশ্বাস জুগিয়েছিল ও। ক্যাম্পের প্রথম দিন থেকেই ছবিটা পরিস্কার করে দিয়েছিল আমার সামনে। বলেছিল, তোমাকে পাঁচ নম্বরে ব্যাট করতে হবে। সুতরাং আন্তর্জাতিক অভিষেকের আগেই কী ভূমিকা নিতে হবে, সেটা স্পষ্ট হয়ে যাওয়ায় আমি সেই মতো প্রস্তুতি নিতে পেরেছিলাম ক্যাম্পে।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রথম ম্যাচেই প্লেয়িং ইলেভেনে জায়গা করে দেওয়া হয়েছিল। দলে তারকা সব সিনিয়ররা ছিল। তাদের আগে আমাকে সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। সবার বিশ্বাস ছিল আমার প্রতিভার উপর। সুতরাং দলের আস্থার মর্যাদা রাখার চ্যালেঞ্জ ছিল আমার সামনে।'

জাতীয় দলের হয়ে অভিযান শুরুর মুহূর্ত নিয়ে বেদা বলেন, ‘ক্রিজে গিয়ে আমার প্রথম রান আসে বাউন্ডারি থেকে। শুরুতেই স্নায়ুর চাপ কেটে যাওয়ায় ইনিংসে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। প্রথম ম্যাচেই ৫৭ বলে ৫১ রান। ইংল্যান্ডের বোলাররা বুঝে উঠতেই পারছিল না কী হচ্ছে এটা। আমার নিজেরই ঘোর কাটছিল না। যেটার স্বপ্ন দেখতাম দীর্ঘদিন ধরে, ভারতের সেই জার্সিটা গায়ে রয়েছে এবং আমি ক্রিজে ব্যাট করছি। স্বপ্ন সত্যি হওয়ার আনন্দ বর্ণনা করা সম্ভব নয়।'

বন্ধ করুন