বাংলা নিউজ > ময়দান > ১৫ মিনিট বন্ধ ইরান বনাম ইংল্যান্ড ম্যাচ, রক্তাক্ত ইরানের গোলরক্ষক

১৫ মিনিট বন্ধ ইরান বনাম ইংল্যান্ড ম্যাচ, রক্তাক্ত ইরানের গোলরক্ষক

চোটের পরে মাঠের বাইরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে ইরানের গোলরক্ষককে (ছবি-রয়টার্স)

ম্যাচ চলাকালীন গুরুতর জখম হলেন ইরানের প্রথম পছন্দের গোলরক্ষক আলিরেজা বেইরেনভ্যান্দ। নিজের দলের ফুটবলারের সঙ্গে গুরুতর সংঘর্ষে রক্তাক্ত হতে হল তাঁকে। চোট এতটাই গুরুতর ছিল যে মাঠে খেলা ১৫ মিনিট বন্ধ রেখে চলল তাঁর চিকিৎসা। পরবর্তীতে অবশ্য তাঁকে বদলিও করতে হল।

শুভব্রত মুখার্জি: কাতার বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচ ঘটনাবহুল হয়ে থাকল। ইরান বনাম ইংল্যান্ড ম্যাচে কার্যত একটা একপেশে ম্যাচের সাক্ষী থাকল ফুটবল বিশ্ব। তবে খেলা শুরুর আগে এবং পরে ঘটে যাওয়া দুই ঘটনায় আপাতত শিরোনামে ম্যাচ। ম্যাচের আগেই জাতীয় সঙ্গীত না গেয়ে দেশের সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানায় ফুটবলাররা।আর ম্যাচ চলাকালীন গুরুতর জখম হলেন তাঁদের প্রথম পছন্দের গোলরক্ষক আলিরেজা বেইরেনভ্যান্দ। নিজের দলের ফুটবলারের সঙ্গে গুরুতর সংঘর্ষে রক্তাক্ত হতে হল তাঁকে। চোট এতটাই গুরুতর ছিল যে মাঠে খেলা ১৫ মিনিট বন্ধ রেখে চলল তাঁর চিকিৎসা। পরবর্তীতে অবশ্য তাঁকে বদলিও করতে হল।

আরও পড়ুন… আমি অপরাধী নই, আপিলের অধিকার পাওয়া উচিত -অধিনায়কত্ব প্রসঙ্গে ডেভিড ওয়ার্নার

ম্যাচের প্রথমার্ধে ডানপ্রান্ত থেকে আসা একটি বল ফিস্ট করে বাঁচাতে গিয়ে সতীর্থের সঙ্গে ধাক্কা লাগে তাঁর। গুরুতর চোট লাগে মাথায়। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে মাঠ থেকে বের করে নিয়ে যাওয়া হয়। ঘড়িতে তখন সবেমাত্র ম্যাচ খেলা হয়েছে মাত্র আট মিনিট। ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হ্যারি কেনের একটি ক্রস বাঁচাতে গোল ছেড়ে বেরিয়ে আসেন বেইরেনভ্যান্দ। কাছেই ছিলেন রক্ষণ ভাগের ফুটবলার মজিদ হোসেইনি। তাঁর সঙ্গে মুখোমুখি ধাক্কা লাগে বেইরেনভ্যান্দের।

আরও পড়ুন… চোটের জন্য নেই শাহিন সঙ্গে বাদ তিন তারকা! ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পাক টেস্ট দলে নানা চমক

সংঘর্ষের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল তে সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন দু’জনেই। রেফারি খেলা‌ থামিয়ে দেন। তাঁর নির্দেশে মাঠে দ্রুত চলে আসেন চিকিৎসকরা।বেইরেনভ্যান্দের নাক দিয়ে রক্তপাত শুরু হয়। প্রথমে তাঁকে দাঁড় করানোর চেষ্টা করেন দলের চিকিৎসকদের দল । কিন্তু এতটাই তাঁর আঘাত লেগেছিল যে তিনি ঠিক মতো দাঁড়াতে পারছিলেন না। পরে আর খেলা চালিয়ে যাওয়ার অবস্থাতেই ছিলেন না তিনি। স্ট্রেচারে করে মাঠ ছাড়তে হয় তাঁকে। পরিবর্ত গোলরক্ষক হিসাবে মাঠে আসেন হোসেন হোসেইনি। তবে এদিন তাঁকে বেশ‌ লজ্জার সম্মুখীন হতে হয়েছে। ছটি গোল হজম করতে হয়েছে তাঁকে। ইরানের কোচ কার্লোস কুইরেজের ছেলেদের ও হারতে হয়েছে বড় ব্যবধানে। সবমিলিয়ে সময়টা একেবারেই ভাল যায়নি জাতীয় ফুটবল দলের। একে খেলার মাঠে দুর্ঘটনা,তার উপর বড় হার দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু হল তাঁদের।

বন্ধ করুন