বাংলা নিউজ > ময়দান > টাইগাররা ডোবাচ্ছেন, সাফ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের মেয়েদের ৫০ লাখ টাকা পুরস্কার BCB-র
সাফ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের মেয়েদের ৫০ লাখ টাকা পুরস্কার BCB-র (AFP)

টাইগাররা ডোবাচ্ছেন, সাফ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের মেয়েদের ৫০ লাখ টাকা পুরস্কার BCB-র

  • বিমানবন্দরে নামার পরে সেই বাসে করেই সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছিল গোটা দলকে। প্রদক্ষিণ করানো হয়েছিল প্রায় গোটা শহর। বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া দফতর এই বাসে করে প্রদক্ষিণের ব্যবস্থা করেছিল।

শুভব্রত মুখার্জি: সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের ক্রীড়া ইতিহাসে সেরা কৃতিত্ব সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ জয়। এই জয়ের মধ্যে দিয়ে ইতিহাস রচনা করেছেন সাবিনারা। মহিলাদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে শিরোপাজয়ী বাংলাদেশ মহিলা ফুটবল দলকে সম্মান জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। মহিলা ফুটবল দলের জন্য আর্থিক পুরষ্কারের ঘোষণা করা হয়েছে দেশের সর্বোচ্চ ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিসিবি।

এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এই আর্থিক পুরস্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে বিসিবির তরফে। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে ১ম বারের মতো মহিলাদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জেতায় বাংলাদেশ মহিলা ফুটবল দলের জন্য ৫০ লাখ টাকা আর্থিক পুরষ্কার দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি। ওই বিজ্ঞপ্তিতে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন 'মহিলা দল তাদের অসাধারণ পারফরম্যান্সের মধ্যে দিয়ে ঐতিহাসিক কৃতিত্ব অর্জন করেছে। যার মধ্যে দিয়ে তারা গোটা জাতিকে গর্বিত করেছে। তাদের উৎসাহ দেওয়ার অংশ হিসেবে আমি বিসিবির পক্ষ থেকে গোটা দলের জন্য (মহিলা) ৫০ লাখ টাকা পুরষ্কারের ঘোষণা করছি।'

পাপন আরও যোগ করেছেন 'আমার এই নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই যে সাফে শিরোপা জয় দেশের সমস্ত ক্রীড়াবিদ ও মহিলাদের দারুণভাবে অনুপ্রাণিত করবে। ক্রীড়ার বিভিন্ন অঙ্গনে আন্তর্জাতিক সাফল্য অর্জনে উজ্জীবিত করবে ক্রীড়া দলগুলোকে।'

প্রসঙ্গত ১৮ সেপ্টেম্বর সোমবার নেপালের কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে ফাইনালে নেপালের বিরুদ্ধে মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ দল। সেই ম্যাচে ৩-১ গোলের ব্যবধানে নেপালকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো মহিলাদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জিততে সমর্থ হয় বাংলাদেশের মেয়েরা। মেয়েদের ঐতিহাসিক কৃতিত্বের পরে এখন গোটা দেশের চারদিকে যেন উৎসবমুখর পরিবেশ। মহিলা দলকে সংর্বধনা দেওয়ার জন্য ছাদখোলা বাসের ব্যবস্থাও করা হয়েছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) তরফে।

বিমানবন্দরে নামার পরে সেই বাসে করেই সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছিল গোটা দলকে। প্রদক্ষিণ করানো হয়েছিল প্রায় গোটা শহর। বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া দফতর এই বাসে করে প্রদক্ষিণের ব্যবস্থা করেছিল। ছাদখোলা বাসে সাফজয়ী মহিলা দলকে রোড শো করে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে মতিঝিলের বাফুফে ভবনে নিয়ে আসা হয়।

উল্লেখ্য এই সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনালেই ভারতীয় দলকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। ৩-০ গোলে ভারতকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ দল। তবে দেশে ফেরার পরে সাবিনাদের প্রথম সাংবাদিক সম্মেলন নিয়েও হয়েছিল বিতর্ক। সেই অনুষ্ঠানে দলের অধিনায়ক এবং কোচকে পিছনের সারিতে দাঁড়িয়ে থাকতে হয়েছিল। যা নিয়ে ওঠে নিন্দার ঝড়। পরবর্তীতে অবশ্য বাফুফে কর্তারা মাঠে নেমে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করেন।

বন্ধ করুন