বাংলা নিউজ > ময়দান > দশটি ছক্কা হাঁকালেন, ৪৬ বলে ১০৪ করলেন, প্র্যাকটিস ম্যাচেই বিধ্বংসী ডি'ভিলিয়ার্স
এবি ডি'ভিলিয়ার্স।
এবি ডি'ভিলিয়ার্স।

দশটি ছক্কা হাঁকালেন, ৪৬ বলে ১০৪ করলেন, প্র্যাকটিস ম্যাচেই বিধ্বংসী ডি'ভিলিয়ার্স

  • দশটি ছক্কা হাঁকান এবি। সঙ্গে মারেন সাতটি চার। ৪৬ বলে ১০৪ রান করেন তিনি। এ তো শুধু প্র্যাক্টিস ম্যাচের ছলক। আসল খেলা তো এখনও বাকি রয়েছে।

এবি ডি'ভিলিয়ার্স ২২ গজে নামা মানেই ঝড়ের পূর্বাভাস! স্থগিত হয়ে যাওয়ার আগে, আইপিএলের প্রথম পর্বে ডি'ভিলিয়ার্স ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়েছে বিপক্ষ। আর দ্বিতীয় পর্বের খেলা শুরু হওয়ার আগেই ডি'ভিলিয়ার্স সাইক্লোন আছড়ে পড়েছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে। প্র্যাকটিস ম্যাচেই বিধ্বংসী মেজাজে পাওয়া গিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকার তারকা ক্রিকেটারকে।

সম্প্রতি রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুুরু একটি প্র্যাকটিস ম্যাচ খেলেছে। সেই ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল আরসিবি ‘এ’ এবং আরসিবি ‘বি’। আরসিবি এ দলের অধিনায়ক ছিলেন হর্ষল প্যাটেল। আর আরসিবি বি দলকে নেতৃত্বে দেন দেবদূত পড্ডিকাল। হর্ষল প্যাটেল টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেন। প্রথম ব্যাট করতে নেমে পাওয়ার প্লে-তেই এক উইকেট হারিয়ে বসে থাকে আরসিবি এ। তবে এতে বিশেষ সুবিধে করতে পারেনি আরসিবি বি। কারণ এর পরেই শুরু হয় ডি'ভিলিয়ার্স ঝড়। সেই ঝড়ে দেবদূত পাড্ডিকালের দল একেবারে দিশেহারা হয়ে পড়ে।

দশটি ছক্কা হাঁকান এবি। সঙ্গে মারেন সাতটি চার। ৪৬ বলে ১০৪ রান করেন তিনি। এ তো শুধু প্র্যাক্টিস ম্যাচের ছলক। আসল খেলা তো এখনও বাকি রয়েছে। যোগ্য সঙ্গেত করেন মহম্মদ আজহারউদ্দিন। তিনি ৪৩ বলে ৬৬ রান করেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৪৭ বলে ৯৫ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন কেএস ভরত। ডি'ভিলিয়ার্সের দুরন্ত লড়াইকে ব্যর্থ করে ম্যাচ সাত উইকেটে জেতে দেবদূত পাড্ডিকালের দল।

ম্যাচের পর ডি'ভিলিয়ার্স বলেন, ‘আমি যখন বাস থেকে নামছি, তখন ভাবছিলাম, আমরা পাগলের মতো এই দুপুরের সময়ে ক্রিকেট ম্যাচ খেলার চেষ্টা করছি। সৌভাগ্যবশত হাওয়া ছিল। আমি আজহারউদ্দিনকে বলেছিলাম, এখন এই পিচে খেলতে সুবিধে হবে। আমরা মজা করেই খেলেছি। স্কোরবোর্ডে রান যোগ করতে পেরে আমি খুশি।’

ইতিমধ্যে বিরাট কোহলি, মহম্মদ সিরাজ ইংল্যান্ড থেকে চাটার্ড বিমানে সংযুক্ত আরব আমিরশাহী পৌঁছে গিয়েছেন। তাঁরা বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। এই মুহূর্তে ৭ ম্যাচের মধ্যে পাঁচটিতে জিতে বিরাট কোহলিরা আইপিএল তালিকার তিন নম্বরে রয়েছেন। কোনও বার আইপিএল জেতেনি রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। এ বার তাই চ্যাম্পিয়ন হতে মরিয়া কোহলি ব্রিগেড। দেখার, এই বছর ব্যাঙ্গালোর অধরা মাধুরী স্পর্শ করতে পারে কিনা!

বন্ধ করুন