বাড়ি > ময়দান > #9pm9minute: বাজি ফাটানোর প্রতিবাদ করায় জেহাদি তকমা, পালটা জবাব দিলেন ইরফান
ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার ইরফান পাঠান। ছবি- গেটি ইমেজ।
ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার ইরফান পাঠান। ছবি- গেটি ইমেজ।

#9pm9minute: বাজি ফাটানোর প্রতিবাদ করায় জেহাদি তকমা, পালটা জবাব দিলেন ইরফান

  • করোনা মহামারী নিয়ে এমন সংকটময় সময়ে বাজি ফাটানোর বিষয়টি পছন্দ হয়নি পাঠানের।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে দেশবাসীকে একজোট করতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী রবিবার রাত ৯টায় ৯ মিনিটের জন্য বাড়ির সমস্ত আলো নিভিয়ে ব্যালকানিতে বা ছাদে দাঁড়িয়ে প্রদীপ বা মোমবাতি জ্বালানোর আবেদন জানিয়েছিলেন। টর্চ বা মোবাইলের ফ্ল্যাশ লাইট জ্বালানোর কথাও বলেছিলেন নরেন্দ্র মোদী।

প্রধানমন্ত্রীর আবেদনে সাড়া দিয়ে সারা দেশ ঠিক রাত ৯টার সময় প্রদীপ, মোমবাতি অথবা মোবাইলের ফ্ল্যাশলাইট জ্বালিয়ে ঐক্যবদ্ধ লড়াইয়ে সামিল হওয়ার অঙ্গীকার করে। তবে অত্যুৎসাহী কেউ কেউ শুধু দীপ জ্বালিয়েই ক্ষান্ত হননি, বরং দিওয়ালির মতো বাজি ফাটাতে শুরু করেন।

করোনা মহামারী নিয়ে এমন সংকটময় সময়ে বাজি ফাটানোর বিষয়টি অনেকেরই পছন্দ হয়নি। টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন অল-রাউন্ডার ইরফান পাঠান এই দলের সদস্য। তিনি সোশ্যল মিডিয়ায় অত্যুৎসাহীদের বাজি ফাটানো নিয়ে নিজের অখুশি প্রকাশ করেন।

ইরফান টুইট করেন, 'লোকজন বাজি ফাটানোর আগে পর্যন্ত সবকিছু দারুণ ছিল।'

এই টুইটের জন্যই সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু মানুষের বিদ্রুপের শিকার হতে হয় ইরফানকে। তাঁকে মোদী বিরোধী বলে ব্যঙ্গ করা হয়। প্রাক্তন অল-রাউন্ডারকে জেহাদি বলে আক্রমণ করতেও দেখা যায়। বাজি ফাটছে বলে ইরফানের কেন জ্বলন হচ্ছে, এমন প্রশ্ন তুলতে দেখা যায় তাদের।

ইরফান সেইসব ব্যঙ্গাত্মক টুইটের একটি কোলাজ বানিয়ে সেটি পুনরায় পোস্ট করেন সোশ্যাল মিডিয়ায় এবং জবাব দেন মজাদার ভঙ্গিতে। তিনি লেখেন 'আমাদের ফায়ারট্রাক দরকার, আপনারা সাহায্য করতে পারেন?'

করোনা মোকাবিলায় ইরফান শুরু থেকেই সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তিনি এবং দাদা ইউসুফ শুরুতেই ফেস মাস্ক বিতরণ করেছিলেন বরোদার হাসপাতালগুলিতে। ক'দিন আগে তাঁরা করোনা পীড়িতদের মধ্য ১০ হাজার কেজি চাল ও ৭০০ কেজি আলু বিতরণ করেন।

বন্ধ করুন