বাংলা নিউজ > ময়দান > আমি হিন্দু বলেই খারাপ ব্যবহার করত ‘মিথ্যাবাদী-চরিত্রহীন’ আফ্রিদি-কানেরিয়া
শাহিদ আফ্রিদি ও দানিশ কানেরিয়া (ছবি-আইএএনএস)
শাহিদ আফ্রিদি ও দানিশ কানেরিয়া (ছবি-আইএএনএস)

আমি হিন্দু বলেই খারাপ ব্যবহার করত ‘মিথ্যাবাদী-চরিত্রহীন’ আফ্রিদি-কানেরিয়া

  • দানিশ পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদির বিরুদ্ধে ধর্মীয় বৈষম্যের অভিযোগ তুলেছেন। কানেরিয়া অভিযোগ করেছেন যে আফ্রিদি একজন‘মিথ্যাবাদী’। কানেরিয়ার অভিযোগ, শাহিদ আফ্রিদি তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করতেন কারণ তিনি একজন হিন্দু ছিলেন এবং পাকিস্তানি ক্রিকেট দলের হয়ে খেলেন।

পাকিস্তানের প্রাক্তন স্পিনার দানিশ কানেরিয়া বহুবার পাকিস্তানি দলে ধর্মীয় বৈষম্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। এবার দানিশ পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদির বিরুদ্ধে ধর্মীয় বৈষম্যের অভিযোগ তুলেছেন।সংবাদ সংস্থা আইএএনএস-এর সঙ্গে কথোপকথনের সময় কানেরিয়া অভিযোগ করেছেন যে আফ্রিদি একজন‘মিথ্যাবাদী’। কানেরিয়ার অভিযোগ, শাহিদ আফ্রিদি তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করতেন কারণ তিনি একজন হিন্দু ছিলেন এবং পাকিস্তানি ক্রিকেট দলের হয়ে খেলেন। এর আগে, পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার শোয়েব আখতারও দাবি করেছিলেন যে ধর্মের ভিত্তিতে পাকিস্তানি দলের কিছু ক্রিকেটার দ্বারা কানেরিয়ার প্রতি বৈষম্য করা হয়েছিল। তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করা হত।

কানেরিয়া বলেন,‘শোয়েব আখতারই প্রথম ব্যক্তি যিনি আমার সমস্যা নিয়ে খোলামেলা কথা বলেছেন। আমি তাকে স্যালুট জানাই, কারণ আমি হিন্দু হওয়ার কারণে দলে আমার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করা হয়েছে তিনিই সেটা প্রথম বলেছিলেন। তবে এরপর অনেক কর্তৃপক্ষের চাপে তিনি এ বিষয়ে কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছিলেন। কিন্তু,এটা সত্য যে আমার সঙ্গে এটি ঘটেছে। শহিদ আফ্রিদি সবসময় আমাকে বিরক্ত করত। আমরা একই বিভাগে খেলতাম। তিনি আমাকে বেঞ্চে বসিয়ে রাখতেন এবং একদিনের টুর্নামেন্টে খেলার সুযোগ দেননি।’

কানেরিয়া আরও বলেন,‘তিনি চাননি আমি দলে থাকি। তিনি একজন মিথ্যাবাদী, একজন প্রতারক... কারণ তিনি একজন চরিত্রহীন মানুষ ছিলেন। যাইহোক,আমার ফোকাস শুধুমাত্র ক্রিকেট খেলা এবং আমি এই সব চালচলন মনোযোগ দিইনি। শহিদ আফ্রিদিই একমাত্র ব্যক্তি যিনি বাকি খেলোয়াড়দের কাছে গিয়ে আমার বিরুদ্ধে উসকানি দিতেন। আমি ভাল করছিলাম এবং সে আমাকে হিংসা করত। আমি গর্বিত যে আমি পাকিস্তানের হয়ে খেলেছি। আমি এই জন্য কৃতজ্ঞ।’

স্পট ফিক্সিংয়ের অভিযোগে কানেরিয়াকে সাসপেন্ড করেছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। তিনি বলেছিলেন যে আফ্রিদি না থাকলে তিনি পাকিস্তানের হয়ে আরও অনেক একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলতেন। কানেরিয়া বলছেন,তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ মিথ্যা।৪১ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার বলেন,‘আমার বিরুদ্ধে কিছু মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছিল। এ মামলার সঙ্গে আমার নাম যুক্ত করা হয়েছে। তিনি অন্যান্য পাকিস্তানি ক্রিকেটারদেরও বন্ধু ছিলেন,শহিদ আফ্রিদিও। কিন্তু কেন আমাকে টার্গেট করা হয়েছে তা আমি জানি না।’

কানেরিয়া পিসিবিকে অনুরোধ করে বলেন,‘আমি পিসিবিকে এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার অনুরোধ করতে চাই যাতে আমি আমার কাজ করতে পারি। এমন অনেক ফিক্সার আছে যাদের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে গেছে। আমি জানি না কেন আমার সাথে একই আচরণ করা হচ্ছে না। আমি আমার দেশের হয়ে খেলেছি এবং অন্য খেলোয়াড়দের মতো আমারও একই সুযোগ পাওয়া উচিত ছিল। এখন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলছি না। আমি পিসিবির কাছে কোনও কাজ চাইছি না।তাই দয়া করে এই নিষেধাজ্ঞা তুলে নিন যাতে আমি শান্তিতে থাকতে পারি এবং সম্মানের সঙ্গে আমার কাজ করতে পারি।’

বন্ধ করুন