বাংলা নিউজ > ময়দান > বাবর, রিজওয়ানের T20 ক্যারিয়ার তবে শেষ? আফ্রিদির ঠিক করা মাপকাঠিতে চাপ বাড়ল

বাবর, রিজওয়ানের T20 ক্যারিয়ার তবে শেষ? আফ্রিদির ঠিক করা মাপকাঠিতে চাপ বাড়ল

বাবর আজম, মহম্মদ রিজওয়ানের টি-টোয়েন্টির ক্যারিয়ার শেষ?

আফ্রিদি যে মাপকাঠি ঠিক করেছে, তাতে অধিনায়ক বাবর আজম এবং মহম্মদ রিজওয়ান- দলের দুই স্তম্ভকেই টি-টোয়েন্টি দল থেকে বাদ দিতে হবে। কারণ ৯৯টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে বাবর ১২৭.৮ স্ট্রাইক রেটে ৩৩৫৫ রান করেছেন। এ দিকে, রিজওয়ান ৮০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ১২৬.৫ স্ট্রাইক রেটে ২৬৩৫ রান করেছেন।

বর্তমানে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) অন্তর্বর্তীকালীন প্রধান নির্বাচক হিসেবে নিযুক্ত শহিদ আফ্রিদি প্রকাশ করেছেন যে, ১৩৫-এর কম স্ট্রাইক রেট রয়েছে যাঁদের, তাঁদের টি-টোয়েন্টি দলের জন্য নির্বাচন করা হবে না।

প্রসঙ্গত পিসিবি চেয়ারম্যান রমিজ রাজাকে বরখাস্ত করার পর, নাজাম শেঠি তাঁর স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন। এবং নাজাম শেঠি দায়িত্ব নেওয়ার পর, আফ্রিদি পিসিবি-তে নতুন পদ পেয়েছেন।

জিও নিউজে কথা বলার সময়ে আফ্রিদি পাকিস্তান এবং নিউজিল্যান্ডের মধ্যে চলতি দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচে ব্যবহৃত পিচ নিয়ে তাঁর হতাশা প্রকাশ করেছেন। তিনি বাউন্স পিচের গুরুত্বের উপর জোর দিয়েছেন। আফ্রিদি মনে করেন, বাউন্সি পিচ পাকিস্তান ক্রিকেট দলকে বিদেশের ম্যাচের জন্য আরও ভালো ভাবে প্রস্তুত করতে সাহায্য করতে পারে।

আরও পড়ুন: IPL-এর হাত ধরে ফের ক্রিকেটে ফিরছেন সৌরভ, কোন দলে কী পদে যোগ দিচ্ছেন মহারাজ?

পাশাপাশি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের জন্য যে মাপকাঠি ঠিক করেছেন আফ্রিদি, সেটা নিঃসন্দেহে পাকিস্তান ক্রিকেটে বিশাল বড় বোমা। আফ্রিদি বলেছেন, ‘পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি দলে এমন কোনও ব্যাটসম্যান নির্বাচিত হবে না, যার ঘরোয়া ক্রিকেটে ১৩৫-এর বেশি স্ট্রাইক-রেট থাকবে না।’

আফ্রিদির এই বোমার পর, টুইটারে অনেক ভক্তই এই বিষয়টি নিয়ে রসিকতা শুরু করেছেন। সে ক্ষেত্রে অধিনায়ক বাবর আজম এবং মহম্মদ রিজওয়ান- দলের দুই স্তম্ভকেই বাদ দিতে হবে। কারণ ৯৯টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে বাবর ১২৭.৮ স্ট্রাইক রেটে ৩৩৫৫ রান করেছেন। এ দিকে, রিজওয়ান ৮০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ১২৬.৫ স্ট্রাইক রেটে ২৬৩৫ রান করেছেন।

আরও পড়ুন: দ্রাবিড় থেকে হার্দিক, সূর্যদের আবেগপ্রবণ ‘মিস ইউ’ মেসেজ ‘যোদ্ধা’ পন্তকে- ভিডিয়ো

একজন ভক্ত লিখেছেন, ‘তা হলে বাবর আজম এবং মহম্মদ রিজওয়ান দু'জনেই দলে থাকতে পারবেন না! কিন্তু আমরা বছরের পর বছর ধরে শহিদ আফ্রিদি এবং তাঁর মন্তব্য দেখেছি, তাই না! আমি গণনা হারিয়ে ফেলেছি যে তিনি কত বার অবসর নিয়েছেন এবং তাঁর আসল বয়স কী? তাই, একটি ব্যাকট্র্যাক মন্তব্য লোড হচ্ছে...’

অন্য একজন ভক্ত যোগ করেছেন, ‘সংক্ষেপে, আফ্রিদির মডেল অনুসারে, টি-টোয়েন্টি প্রার্থীদের মস্তিষ্কবিহীন পাওয়ার-হিটার হতে হবে। শাদাব ছাড়া আমাদের বর্তমান খেলোয়াড়দের কারও ১৩৫-এর উপরে স্ট্রাইকরেট নেই। শাদাবের সম্ভত ১৪২+ আছে। এ দিকে বাবর আর রিজওয়ানের স্ট্রাইকরেট ১২৭-১২৬ হবে। গাজর-এবং-লাঠি পদ্ধতি এখানে ভালো নাও হতে পারে।’

আর একজন আবার লিখেছেন, ‘অবাক বিস্ময় - পাকিস্তানের প্রধান নির্বাচক শহিদ আফ্রিদি জিও নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন যে, পাকিস্তানের হয়ে টি-টোয়েন্টিতে এমন কোনও ব্যাটারকে বাছাই করা হবে না, যার ঘরোয়া ক্রিকেটে ১৩৫-এর বেশি স্ট্রাইক রেট নেই। বাবর আজম, মহম্মদ রিজওয়ানের জন্য খেলা শেষ বলে মনে হচ্ছে।’

পাকিস্তান বর্তমানে একটি টেস্ট সিরিজে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হয়েছে। এর পর তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলবে তারা। ১৩ এপ্রিল থেকে শুরু হতে চলা পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজেও উভয় দলই একে অপরের মুখোমুখি হবে।

বন্ধ করুন