বাংলা নিউজ > ময়দান > বাইশ গজের পরে এবার কি রাজনীতিতেও! লক্ষ্মীর দায়িত্ব আসতে চলেছে মনোজের কাঁধে?
লক্ষ্মীরতন শুক্ল ও মনোজ তিওয়ারি ফাইল ছবি(ছবি:গুগল)

বাইশ গজের পরে এবার কি রাজনীতিতেও! লক্ষ্মীর দায়িত্ব আসতে চলেছে মনোজের কাঁধে?

  • বাংলা ক্রিকেটে বহুবার লক্ষ্মীর বদলে বাংলার দায়িত্ব দেওয়া হত মনোজকে। এবার বাংলার বাইশ গজের সেই ছবি দেখা যেতে পারে বাংলার রাজনীতিতে। লক্ষ্মীর ছেড়ে আসা চেয়ারে বসতে পারেন মনোজ তিওয়ারি।

এর আগেও বহুবার এই ছবিটা দেখা গিয়েছে। তবে ছবিটা দেখা যেত বাংলা ক্রিকেটে। লক্ষ্মীরতন শুক্ল যখন বাংলা ক্রিকেটে অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে বিদায় নিচ্ছেন, ঠিক তখনই বাংলা ক্রিকেটের কর্তারা লক্ষ্মীর জায়গায় ভাবতেন মনোজ তিওয়ারির নাম। লক্ষ্মীর বদলে বাংলার দায়িত্ব দেওয়া হত মনোজকে। এবার বাংলার বাইশ গজের সেই ছবি দেখা যেতে পারে বাংলার রাজনীতিতে। লক্ষ্মীর ছেড়ে আসা চেয়ারে বসতে পারেন মনোজ তিওয়ারি।   

চার থেকে সাত সব জায়গাতেই ব্যাট করতে পারেন তিনি। যদি দল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চান তাহলে দলের যেকোনও দায়িত্ব কাঁধে তুলে নিতে পারবেন। ২০২১ বিধানসভা ভোটে শিবপুর কেন্দ্রে জিতেই এমন কথা জানিয়েছিলেন জাতীয় দলের ক্রিকেটার তথা বাংলার প্রাক্তন অধিনায়ক মনোজ তিওয়ারি।

এবার তাঁর কথাই সত্যি হতে চলেছে। ২০২১ এ বিধানসভা নির্বাচন জিতে দায়িত্ব পেতে চলেছেন বাংলা তথা ভারতের জাতীয় দলের ক্রিকেটার মনোজ তিওয়ারি। সোমবার পশ্চিমবঙ্গের নতুন মন্ত্রিসভার শপথগ্রহন অনুষ্ঠান এবং সেখানেই দায়িত্ব পাবেন বাংলা ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক মনোজ তিওয়ারি। রবিবারই নিজের মন্ত্রিসভার তালিকা প্রকাশ করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাতে প্রতিমন্ত্রীর তালিকায় রয়েছে মনোজ তিওয়ারির নাম। 

সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে প্রাক্তন প্রতিমন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্লের জায়গা নিতে পারেন মনোজ তিওয়ারি। লক্ষ্মীরতন শুক্ল যেভাবে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছিলেন সেভাবেই মনোজের উপরে দায়িত্ব দেওয়া হতে চলেছে। একজন খেলোয়াড়ের হাতেই রাজ্যের ক্রীড়ার দায়িত্ব তুলে দিতে চান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

ভোটে নামার আগে থেকেই বাংলা ক্রীড়াক্ষেত্রে উন্নতি করার জন্য এগিয়ে আসতে চেয়েছিলেন মনোজ। তিনি যখন বাংলার জার্সি গায়ে বাইশ গজে নামতেন তখন নিজের দলকে জেতানোর জন্য নিজের সেরাটা তুলে ধরতেন। এবারেও ভোটের সময় শিবপুর কেন্দ্রে নিজের সেরাটা তুলে ধরেছিলেন। এবং জনপ্রিয় নেতা রথীন চক্রবর্তীকে বিপুল ভোটে পরাজিত করেছিলেন। 

এবার তাঁর কথা রাখার সময়। সকলে মনে করছেন ভোটের আগে যেভাবে মনোজ প্রতিস্রুতি দিয়েছিলেন ঠিক সভাবেই নিজের দায়িত্ব পালন করবেন। অনেকেই মনে করছেন মনোজ যেভাবে বাইশ গজে হার মানতেন না, ঠিক সেভাবেই নিজেরদায়িত্ব পালনে তিনি পিছপা হবেননা।   

বন্ধ করুন