বাংলা নিউজ > ময়দান > আন্তর্জাতিক কেরিয়ার বাঁচাতে মরিয়া হাসনাইন, দিলেন অফিসিয়াল বোলিং টেস্ট

আন্তর্জাতিক কেরিয়ার বাঁচাতে মরিয়া হাসনাইন, দিলেন অফিসিয়াল বোলিং টেস্ট

হাসনাইন। ছবি: টুইটার

প্রথমবার বায়োমেকানিক টেস্টে হাসনাইনের করা অধিকাংশ বলের ক্ষেত্রেই তার হাতের কনুই ১৫ ডিগ্রিরও বেশি ভেঙেছিল। ফলে দ্বিতীয়বার তিনি টেস্ট দিয়েছেন এই সমস্যা দূর করে আন্তর্জাতিক আঙিনায় বোলিংয়ের ছাড়পত্র জোগাড় করে নিতে।

শুভব্রত মুখার্জি: চলতি মরশুমের গোড়ার দিকে বিগ ব্যাশ লিগে সিডনি থান্ডার্স দলের হয়ে খেলার সময়তেই পাকিস্তানি পেসার মহম্মদ হাসনাইনের বোলিং অ্যাকশন সন্দেহভাজন বোলিং অ্যাকশনের তালিকায় পড়েছিল। ফলে পাকিস্তান সুপার লিগ অর্থাৎ পিএসএলেও খেলা হয়নি তার। জানুয়ারি মাসে দেওয়া পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে তার বোলিং অ্যাকশনকে অবৈধ ঘোষণা করা হওয়ার ফলে তিনি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের পাশাপাশি ঘরোয়া ক্রিকেটেও আর খেলতে পারেননি। নিজের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কেরিয়ারকে বাঁচাতে মরিয়া হাসনাইন দিলেন অফিসিয়াল বোলিং টেস্ট।

তিন মাস ধরে নিজেকে প্রস্তুত করার পরবর্তীতে তিনি এই টেস্ট দিয়েছেন। প্রথমবার বায়োমেকানিক টেস্টে হাসনাইনের করা অধিকাংশ বলের ক্ষেত্রেই তার হাতের কনুই ১৫ ডিগ্রিরও বেশি ভেঙেছিল। ফলে দ্বিতীয়বার তিনি টেস্ট দিয়েছেন এই সমস্যা দূর করে আন্তর্জাতিক আঙিনায় বোলিংয়ের ছাড়পত্র জোগাড় করে নিতে। সদ্য দেওয়া পরীক্ষার ফল আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যেই জানা যাবে। সেই ফলাফল আইসিসির পাশাপাশি সমস্ত সদস্য বোর্ডকেও পাঠানো হবে। হাসনাইন আশাবাদী তিনি এবার পরীক্ষায় পাস করতে পারবেন। কোনও কারণে অন্যথা হলে তাকে ফের প্রথম থেকে শুরু করতে হবে।

জানুয়ারি মাসে বিগ ব্যাশ লিগে খেলার সময়তেই আম্পায়ররা তার অ্যাকশনকে রিপোর্ট করেছিলেন। সেই সময় তার পরীক্ষার ফল না বেরনো পর্যন্ত তাকে খেলতে দেওয়া হয়। পিএসএলে প্রথম তিন ম্যাচেও খেলেছিলেন তিনি তবে তারপরেই তার অ্যাকশনকে অবৈধ বলে ঘোষণা করা হয়। ফলে আর খেলতে পারেননি তিনি। তবে আইসিসির নিয়মানুযায়ী পিসিবি চাইলে হাসনাইনকে তাদের ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলার সুযোগ দিতে পারত। তবে পিএসএলের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি থাকায় পিসিবি সিদ্ধান্ত নেয় তাকে হাই পারফরম্যান্স সেন্টারে পাঠানোর। যেখানে কোচেদের তত্ত্বাবধানে প্রায় ৫০০০ বল করে অনুশীলন সেরে নিজের অ্যাকশনকে 'রি মডেল' করে ফের পরীক্ষা দিয়েছেন হাসনাইন।

বন্ধ করুন