বাংলা নিউজ > ময়দান > Mutua Madrid Open: ইতিহাস ১৯ বছরের তরুণকে, প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ক্লে-তে পরপর মাত দিলেন নাদাল ও জকোভিচকে
জকোভিচকে হারিয়ে কার্লোস আলকারাজের সেলিব্রেশন (ছবি-রয়টার্স) (REUTERS)
জকোভিচকে হারিয়ে কার্লোস আলকারাজের সেলিব্রেশন (ছবি-রয়টার্স) (REUTERS)

Mutua Madrid Open: ইতিহাস ১৯ বছরের তরুণকে, প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ক্লে-তে পরপর মাত দিলেন নাদাল ও জকোভিচকে

  • শনিবাসরীয় সেমিফাইনালে বিশ্ব ক্রমতালিকায় ১ নম্বরে থাকা নোভাক জকোভিচের বিরুদ্ধে এক কঠিন লড়াই লড়ে জিততে হল আলকারাজকে। ম্যাচ জিতে ফাইনালে চলে গেলেন কার্লোস। কার্লোস আলকারাজের পক্ষে ম্যাচের স্কোর ৬-৭,৭-৫,৭-৬। তিন ঘন্টা ৩৫ মিনিট ধরে চলল এই কঠিন লড়াই। ম্যাচে এক সেটে পিছিয়ে পড়েও জয়ী হলেন আলকারাজ।

শুভব্রত মুখার্জি: বর্তমানে স্প্যানিশ টিন এজার কার্লোস আলকারাজ তাঁর কেরিয়ারের সেরা ফর্মের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন। শুক্রবার এবং শনিবার পরপর দুদিন ক্লে কোর্টে অনুষ্ঠিত মাদ্রিদ মাস্টার্স টেনিসে অসাধ্য সাধন করে দেখালেন তিনি। প্রথমে নাদাল এবং পরবর্তীতে নোভাক জকোভিচকে হারিয়ে নিশ্চিত করলেন ফাইনালের টিকিট। যা হয়ত তার অতিবড় ভক্তও স্বপ্নে ভাবতে পারেনি। শনিবাসরীয় সেমিফাইনালে বিশ্ব ক্রমতালিকায় ১ নম্বরে থাকা নোভাক জকোভিচের বিরুদ্ধে এক কঠিন লড়াই লড়ে জিততে হল আলকারাজকে। ম্যাচ জিতে ফাইনালে চলে গেলেন কার্লোস।

কার্লোস আলকারাজের পক্ষে ম্যাচের স্কোর ৬-৭,৭-৫,৭-৬। তিন ঘন্টা ৩৫ মিনিট ধরে চলল এই কঠিন লড়াই। ম্যাচে এক সেটে পিছিয়ে পড়েও জয়ী হলেন আলকারাজ। উল্লেখ্য বিশ্ব ক্রমতালিকায় ১ নম্বরে থাকা নোভাক জকোভিচের বিরুদ্ধে এটিই ছিল তার কেরিয়ারের প্রথম ম্যাচ। ফাইনালে তিনি মুখোমুখি হবেন অ্যালেকজান্ডার জেরেভ এবং স্টেফানোস সিতসিপাসের ম্যাচের জয়ীর সঙ্গে। এই শিরোপা জিততে পারলে তা হবে এই মরশুমে তার কেরিয়ারের চতুর্থ শিরোপা এবং দ্বিতীয় মাস্টার্স ১০০০ প্রতিযোগিতার শিরোপা জয়।

নাদালের বিরুদ্ধে ম্যাচে গোড়ালি মুচকে গিয়েছিল ফলে গোড়ালিতে ভাল করে টেপিং করেই এদিন তাঁকে নামতে হয়েছিল কোর্টে। ম্যাচের প্রথম গেমেই ভেঙে দেন জকোভিচের সার্ভিস। ফোরহ্যান্ড কার্লড ডাউন দা লাইনে পরাস্ত করেন জোকারকে। পরবর্তীতে আলকারাজের সার্ভিস ভেঙ্গে ৪-৪ করেন জোকার। সেট গড়ায় টাইব্রেকারে। সেখানে খুব দ্রুত ১-৫ ফলে পিছিয়ে পড়েন আলকারাজ। সেখান থেকে ৬৩ মিনিটের লড়াই শেষে ৭-৫ ফলে সেট জেতেন নোভাক। দ্বিতীয় সেটের একেবারে শেষ দিকে নোভাকের সার্ভ ভেঙে দিয়ে ৭-৫ ফলে সেট জিতে ম্যাচ জমিয়ে দেন তিনি।

মানোলো সান্টানা স্টেডিয়ামের দর্শকদের উচ্ছাস তখন বাঁধ ভেঙেছে। তাদের 'কার্লোস কার্লোস' চিৎকারে তখন স্টেডিয়াম মুখরিত। তৃতীয় সেটে তুল্যমূল্য লড়াই হয় দুই পক্ষের। দুটি সার্ভিস গেমে আলকারাজকে পিছিয়ে পড়ে ম্যাচে ফেরত আসতে হয়। ম্যাচের তৃতীয় সেট অবশেষে গড়ায় টাইব্রেকারে। সেই টাইব্রেকার জিতে ম্যাচ জয় সম্পন্ন করে ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করেন কার্লোস আলকারাজ।

বন্ধ করুন