বাংলা নিউজ > ময়দান > প্রথম ভারতীয় মেয়ে হিসাবে জুনিয়র কুস্তি বিশ্বকাপে সোনা অন্তিমের

প্রথম ভারতীয় মেয়ে হিসাবে জুনিয়র কুস্তি বিশ্বকাপে সোনা অন্তিমের

Antim Panghal (Twitter)

হরিয়ানার ১৮ বছর বয়সী কুস্তিগীর অন্তিম, ৫৩ কেজি বিভাগের ফাইনালে কাজাখস্তানের আলটিন শাগায়েভাকে ৮-০ হারিয়ে ইতিহাস তৈরি করলেন। গত বছরে এই টুর্নামেন্টের ক্যাডেট বিভাগে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন অন্তিম পাঙ্গল।

LUCKNOW : শুক্রবার ইতিহাস তৈরি করেছেন ভারতীয় মহিলা কুস্তিগীর অন্তিম পাঙ্গল। বুলগেরিয়ার সোফিয়ায় অনূর্ধ্ব-২০ বিশ্ব কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপে স্বর্ণপদক জিতেছেন অন্তিম। প্রথম ভারতীয় মহিলা কুস্তিগীর হিসাবে এমনটা করলেন অন্তিম। গত বছরে এই টুর্নামেন্টের ক্যাডেট বিভাগে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন অন্তিম পাঙ্গল।

হরিয়ানার ১৮ বছর বয়সী কুস্তিগীর অন্তিম, ৫৩ কেজি বিভাগের ফাইনালে কাজাখস্তানের আলটিন শাগায়েভাকে ৮-০ তে পরাজিত করেছেন। টেকনিক্যাল শ্রেষ্ঠত্বের ভিত্তিতে জার্মান অ্যামোরি অলিভিয়া অ্যান্ড্রিচের বিরুদ্ধে তার উদ্বোধনী বাউটি জিতে মর্যাদাপূর্ণ জুনিয়র ইভেন্টে অন্তিম তার দৌড় শুরু করেছিলেন। তরুণ ভারতীয় তখন কোয়ার্টার ফাইনালে জাপানের আয়াকা কিমুরাকে ৮-০ তে পরাজিত করেছিল। ফাইনালে জায়গা পাকা করার জন্য ইউক্রেনের নাতালিয়া ক্লিভচুটস্কাকে পিছনে ফেলেছিলেন।

আরও পড়ুন… Amit Panghal wins Gold- গতবারের রুপোকে এবার সোনায় বদলালেন অমিত, লাঘব টোকিয়োর দুঃখ

৬২ কেজির ফাইনালে ভারতের সোনম মালিক জাপানের নোনোকা ওজাকির কাছে ০-৬ ব্যবধানে হেরে রুপো জেতেন। প্রিয়াঙ্কা জাপানের মাহিরো ইয়োশিতাকে ০-৮ তে হেরে ৬৫ কেজি বিভাগে রুপো জিতেছেন। এছাড়াও প্রিয়া মালিকও মহিলাদের ৭৬ কেজি বিভাগে ফাইনালে জাপানের আয়ানো মোরোর কাছে ১-৩-এ পরাজিত হয়ে রুপো জিতেছেন।

মহিলাদের ফ্রিস্টাইলে, ভারত একটি স্বর্ণপদক, তিনটি রুপো এবং তিনটি ব্রোঞ্জ পদক জিতেছে। সামগ্রিকভাবে পদক তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। পুরুষ কুস্তিগীররা ফ্রিস্টাইলে একটি রুপো এবং ছয়টি ব্রোঞ্জ সহ মোট সাতটি পদক নিয়ে দলের র‌্যাঙ্কিংয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে।

আরও পড়ুন… যখন দরকার ছিল কোনও সাহায্য পাইনি- পদক জিতে কেজরিওয়ালকে তোপ মহিলা কুস্তিগীরের

এদিন অন্তিম মাত্র ২৫ সেকেন্ডের মধ্যে ফাইনালের প্রথম দুটি পয়েন্ট অর্জন করেছিলেন। অন্তিম ম্যাচের পরে বলেছেন, ‘যখন আমি ম্যাটে যাই, আমি প্রতিপক্ষকে নিয়ে মাথা ঘামাই না এবং আমার নিজস্ব কৌশল এবং দক্ষতার দিকে মনোনিবেশ করি।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমি আমার খেলা পরিকল্পনার উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করেছিলাম এবং প্রতিদ্বন্দ্বীর উপর আমার দখল হারাতে পারিনি।’

অন্তিম জানিয়েছেন, ‘ট্রায়ালে ভিনেশের কাছে হেরে যাওয়া আমার জন্য বেশ হতাশাজনক ছিল, এবং আমি এখানে বিশ্বে একটি পয়েন্ট প্রমাণ করতে চেয়েছিলাম।’ তিনি আরও বলেন, ‘জয় আমাকে নতুন আশা দিয়েছে, এবং এখন আমি আগামী মাসের সিনিয়র বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য ভারতীয় দলে জায়গা করে নেওয়ার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করব।’

বন্ধ করুন