আর্যমান বিড়লা (সিএবি)
আর্যমান বিড়লা (সিএবি)

মানসিক চাপে পড়ে ক্রিকেটকে অনির্দষ্টকালের জন্য বিদায় জানাল এই ভারতীয় ক্রিকেটার

  • ক্রিকেটকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিদায় জানালেন ভারতের প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটার আর্যমান বিড়লা। টুইট বার্তায় নিজের সমস্যার কথা জানিয়েছেন বাইশ বছরের এই প্রতিভাবান ক্রিকেট তারকা।
  • গত দু বছর রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে ম্যাচ খেলার সুযোগ আসে নি। এই বছর আইপিএল নিলামে কোনও দল পান নি আর্যমান।

মানসিক চাপের মুখে পড়ে ক্রিকেটকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিদায় জানালেন ভারতের প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটার আর্যমান বিড়লা। টুইট বার্তায় নিজের সমস্যার কথা জানিয়েছেন বাইশ বছরের এই প্রতিভাবান ক্রিকেট তারকা। ২০১৮ সালে আইপিএল নিলামে রাজস্থান রয়্যালস কিনে নিয়েছিল আর্যমানকে। যদিও রয়্যালসদের হয়ে এখনও একটিও ম্যাচ খেলা হয় নি আর্যমানের।চাপের মুখে পড়েই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আর্যমান।

ক্রিকেট খেলার সুযোগ না পেয়েই কি এই সিদ্ধান্ত! প্রশ্ন উঠছে। ভারতের নামী শিল্পপতি কুমার মঙ্গলাম বিড়লার ছেলে আর্যমান। গত দু বছর রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে ম্যাচ খেলার সুযোগ আসে নি। বৃহস্পতিবার কলকাতায় আইপিএলের নিলামে কোনও দলেই জায়গা হয় নি আর্যমানের। তারপর শুক্রবার রাতে আচমকাই এই সিদ্ধান্তের কথা জানান মধ্যপ্রদেশের এই ক্রিকেটার।

টুইটারে খোলা চিঠিতে আর্যমান লেখেন, 'কঠিন পরিশ্রম, ধৈর্য্য, আত্মত্যাগ এবং অদম্য সাহস নিয়েই আমি ক্রিকেট কেরিয়ার তৈরি করছিলাম। কিন্তু ইদানিং আমি খেলা থেকেই একটা দুশ্চিন্তায় ভুগছিলাম। মনে হচ্ছিল, আমি যেন কোনও ফাঁদে পড়ে গিয়েছি। অনেক চেষ্টা করেছি এই দুশ্চিন্তাকে কাটিয়ে ওঠবার। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে, আমার মানসিক স্বাস্থ্য রক্ষা করাটাই সবচেয়ে জরুরি। এই কারণেই আমি অনির্দিষ্ট কালের জন্য ক্রিকেট থেকে ছুটি নিচ্ছি। এই সুন্দর খেলাটা আমার মনের খুব কাছের। আমি যখন মনে করব সঠিক সময় এসেছে, তখনই ক্রিকেটে ফিরব। আমি মধ্যপ্রদেশ ক্রিকেট সংস্থা এবং আমার সঙ্গে জুড়ে থাকা সবাইকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।'



আর্যমানের এই সিদ্ধান্তে অনেকেই তাঁর সঙ্গে সহমর্মিতা জানিয়েছেন। তবে ফেরার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী আর্যমান চিঠিতে যোগ করেছেন, 'আমি বিশ্বাস করি, এই অবস্থা থেকে আমি শীঘ্রই বেরিয়ে আসব। আরও শক্তিশালী হয়ে।'

মধ্যপ্রদেশের হয়ে ২০১৭ সালে রঞ্জিতে অভিষেক হয় আর্যমান বিড়লার। ২০১৮ সালে প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে প্রথম শতরান পান আর্যমান। মধ্যপ্রদেশের এই বাঁ-হাতি ক্রিকেটার এখনও পর্যন্ত ৯টি প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ খেলেছেন।



মানসিক স্বাস্থ্য এখন ক্রিকেট বিশ্বে একটি চর্চার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ফ্যান থেকে ফ্রাঞ্চাইসি এবং নিজের দেশের স্বার্থরক্ষা করতে গিয়ে অনেক সময়ই মানসিক অবসাদে ভুগছেন ক্রিকেটাররা। কিছুদিন আগেই অস্ট্রেলিয় ক্রিকেট তারকা গ্লেন ম্যাক্সওয়েল মানসিক স্বাস্থ্যের কারণ দেখিয়ে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে সরে দাঁড়ান। সম্প্রতি ঘরোয়া বিগ ব্যাশ লিগে কামব্যাক করেছেন ম্যাক্সওয়েল।

বন্ধ করুন