বাংলা নিউজ > ময়দান > শহরে চলে এলেন ATK MB-র তুরুপের তাস, অজি তারকা দিমিত্রির প্রথম লক্ষ্য AFC Cup

শহরে চলে এলেন ATK MB-র তুরুপের তাস, অজি তারকা দিমিত্রির প্রথম লক্ষ্য AFC Cup

শহরে চলে এলেন দিমিত্রি পেত্রাতোস।

দিমিত্রিকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে হাজির ছিলেন এটিকে মোহনবাগানের কর্মকর্তা সহ সবুজ-মেরুন সমর্থকেরা। বিমানবন্দরে নেমে দিমিত্রি জানিয়ে দেন, এএফসি কাপের লক্ষ্যকে সামনে রেখে তিনি এসেছেন। পাশাপাশি সমর্থকদের সঙ্গে মিলে ‘জয় মোহনবাগান’ স্লোগানও দেন দিমিত্রি।

শহরে চলে এলেন এটিকে মোহনবাগানের তুরুপের তাস। বছর ছয়েক আগে তাঁর একটি ফ্রি কিকে মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিল ফুটবল বিশ্ব। অস্ট্রেলিয়ায় অনেকে তখন বলেছিলেন, তাঁদের দেশের লিগের ইতিহাসে এমন ফ্রি-কিক থেকে গোল আগে কখনও দেখা যায়নি। সেই অস্ট্রেলিয়ান দিমিত্রি পেত্রাতোস মঙ্গলবার বেলার দিকে কলকাতা বিমানবন্দরে নেমেছেন।

দিমিত্রিকে স্বাগত জানাতে বিমানবন্দরে হাজির ছিলেন এটিকে মোহনবাগানের কর্মকর্তা সহ সবুজ-মেরুন সমর্থকেরা। বিমানবন্দরে নেমে দিমিত্রি জানিয়ে দেন, এএফসি কাপের লক্ষ্যকে সামনে রেখে তিনি এসেছেন। পাশাপাশি সমর্থকদের সঙ্গে মিলে ‘জয় মোহনবাগান’ স্লোগানও দেন দিমিত্রি।

আরও পড়ুন: ইন্টারজোনাল সেমিতে ATK MB-র প্রতিপক্ষ কারা জানেন? জেনে নিন সূচি

চলতি ডুরান্ড কাপে গোলের অসংখ্য সুযোগ তৈরি করলেও সেগুলির সদ্ব্যবহার করতে পারছিল না এটিকে মোহনবাগান। তবে আশা করা হচ্ছে, লিস্টন কোলাসো, আশিক কুরুনিয়ন, জনি কাউকো, হুগো বৌমাসদের সঙ্গে এ বার দিমিত্রির উপস্থিতি অনেকটাই শক্তিশালী করে তুলবে দলকে।

জুয়ান ফেরান্দো এমন একজন স্ট্রাইকার খুঁজছিলেন, যিনি প্রয়োজনে অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার হিসেবেও খেলতে পারেন। পেত্রাতোস সে রকমই একজন ফুটবলার, যিনি দেশ ও ক্লাবের হয়ে এই দুই ভূমিকা ছাড়াও উইঙ্গার হিসেবেও খেলেছেন।

যাঁরা ভাবছেন রয় কৃষ্ণর বিকল্প হিসেবে পেট্রাটসকে খেলাবেন ফেরান্দো, তাঁরা ঠিক নাও হতে পারেন। মনে রাখবেন, পেত্রাতোস মতো আরও দু’জন তুখোড় অ্যাটাকিং মিডফিল্ডার দলে রয়েছেন, হুগো এবং কাউকো। যেহেতু চার জনের বেশি বিদেশি প্রথম এগারোয় রাখার নিয়ম নেই, তাই এঁদের তিন জনকে একসঙ্গে মাঠে নামানো কঠিন।

দলের নতুন বিদেশিকে নিয়ে ফেরান্দো আগেই বলেছিলেন, ‘দিমিত্রি এমন একজন টিম প্লেয়ার, যে আক্রমণাত্মক মানসিকতা নিয়ে খেলে। ও সতীর্থদের জায়গা তৈরি করে দিতে সাহায্য করবে, দুর্দান্ত পাস দেবে এবং গোলের সামনে যথেষ্ট কার্যকরী হয়ে উঠবে।’ কোচের কথাতেই পরিষ্কার হয়ে গিয়েছিল যে, বিভিন্ন ভূমিকায় তিনি দেখতে চান তাঁর দলের সদস্যকে।

আরও পড়ুন: গোলের সুযোগ তৈরি হওয়ায় খুশি- গোল মিস নিয়ে চিন্তিতই নন ATK MB কোচ

এর আগে রাইট উইঙ্গার হিসেবেও দিমিত্রি খেলেছেন। এমন কী জাতীয় দলেও তাঁকে এই পজিশনে খেলতে দেখা গিয়েছে। এটিকে মোহনবাগানে এ বার যেহেতু প্রবীর দাস নেই, তাই রাইট উইঙ্গার হিসেবে তাঁকে ব্যবহার করার কথা ভাবতে পারেন ফেরান্দো। তা ছাড়া বিপক্ষের ফুটবলারদের পা থেকে বল ছিনিয়ে নেওয়ার প্রবণতাও তাঁর মধ্যে প্রবল, যা তাঁকে যে কোনও অভাবনীয় পরিস্থিতি তৈরি করতে সাহায্য করে।

এটিকে মোহনবাগানের সোশ্যাল মিডিয়া পেজে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পেত্রাতোস বলেছিলেন, ‘আমি বিভিন্ন পজিশনে খেলতে পারি। এখানে আমাকে কোন জায়গায় খেলতে হবে, তা ঠিক করবেন কোচ। তিনি জানেন আমি সবচেয়ে ভাল কোন কোন জায়গায় খেলি। যে কোনও ফুটবলারের কাছে গোল করাটা বড় ব্যাপার। আমাকে সেই দায়িত্ব দিলে নিশ্চয়ই সেই চেষ্টা করব। আমাকে কোন ভূমিকা পালন করতে হবে, তা জানার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি। তবে গোল করতেই হবে, ভেবে আমি মাঠে নামি না। আগে খেলাটা উপভোগ করতে চাই, তার পরে অন্য কিছু। এটুকু বলতে পারি, যে দায়িত্বই দেওয়া হোক, নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব।’

তিনি আরও বলেছিলেন, ‘দলের সতীর্থদের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক তৈরি করাই আমার প্রথম কাজ। মাঠে ও মাঠের বাইরে ওদের সঙ্গে ভাল বোঝাপড়া গড়ে তুলতে হবে আমাকে। দলে আর একজন অজি রয়েছে (ব্রেন্ডান হ্যামিল)। ফলে আমার সুবিধাই হবে।’

বন্ধ করুন