বাড়ি > ময়দান > এটিকে-মোহনবাগানের দু'টি সিদ্ধান্তেই স্পষ্ট, ভবিষ্যতের দিকে নজর ISL চ্যাম্পিয়নদের
এটিকে-মোহনবাগান লোগো। ছবি- টুইটার।
এটিকে-মোহনবাগান লোগো। ছবি- টুইটার।

এটিকে-মোহনবাগানের দু'টি সিদ্ধান্তেই স্পষ্ট, ভবিষ্যতের দিকে নজর ISL চ্যাম্পিয়নদের

  • নতুন নিয়ম চালু হলে লিগে ভারতীয় ফুটবলারদের কদর বাড়বে।

ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে যথাযথ সিদ্ধন্ত এটিকে-মোহনবাগানের। নতুন মরশুমে আইএসএল মাতানোর আগে ঘর গুছিয়ে নেওয়ায় নজর সব ক্লাব তথা ফ্র্যাঞ্চাইজিরই। তবে এটিকে-মোহনবাগানের দু'টি পদক্ষেপকে দূরদৃষ্টিসম্পন্ন বলতেই হয়।

আসন্ন মরশুম (২০২০-২১) পুরনো নিয়মে খেলা হলেও ২০২১-২২ মরশুম থেকেই আইএসএলে বিদেশি খেলানোর নিয়ম বদলাতে চলেছে। তখন ৩+১ নিয়মে বিদেশি ফুটবলার খেলাতে পারবে দলগুলি। অর্থাৎ, একজন এশিয় কোটার ফুটবলার-সহ মোট ৪ জন বিদেশিকে মাঠে নামাতে পারবে আইএসএল দলগুলি।

সেক্ষেত্রে ক্লাবগুলিকে বেছে বেছে বিদেশি নিতে হবে দলে এবং শক্তিশালী দল গড়তে ভারতীয় ফুটবলারদের উপর নির্ভর করতে হবে। বিদেশি কমলে লিগে ভারতীয় ফুটবলারদের কদর বাড়বে সন্দেহ নেই।

সুতরাং, এবার থেকে দল গড়ার সময় বদেশি ফুটবলারের সঙ্গে স্বল্পমেয়াদী চুক্তি করতে দেখা যেতে পারে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের। অন্যদিকে, দল বদলের বাজারে দাম বেড়ে যাওয়ার আগে নির্ভরযোগ্য ভারতীয় ফুটবলারদের সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদী চু্ক্তি করতে পারে ক্লাবগুলি।

এটিকে-মোহনবাগান ঠিক সেই পথেই হাঁটছে বলে মনে হচ্ছে। তাঁদের সাম্প্রতিক দু'টি পদক্ষেপেই বোঝা যাচ্ছে যে, ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে দল গড়ায় নজর দিয়েছে আইএসএল চ্যাম্পিয়নরা।

প্রথমত, ফিজির জাতীয় দলের স্ট্রাইকার রয় কৃষ্ণাকে পুনরায় দলে নেওয়া হলেও তাঁর সঙ্গে মাত্র এক বছরের জন্য চুক্তি নবীকরণ করা হয়েছে। গত মরশুমে এটিকেকে আইএসএল চ্যাম্পিয়ন করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন রয় কৃষ্ণা। ২১ ম্যাচে তিনি ১৫টি গোল করেন। গোলের পাস বাড়িয়েছেন ৬টি।

অন্যদিকে, ঘরের ছেলে প্রবীর দাসকে দীর্ঘমেয়াদী ভিত্তিতে ধরে রাখার সিদ্ধান্ত নেয় এটিকে-মোহনবাগান। রাইট-ব্যাক প্রবীরের সঙ্গে তিন বছরের জন্য চুক্তি বাড়িয়ে নেয় তারা।

সুতরাং, কৃষ্ণার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিদেশির সঙ্গে এক বছরের ও প্রবীরের মতো নির্ভরযোগ্য ভারতীয় ফুটবলারের সঙ্গে তিন বছরের চুক্তিতেই স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে এটিকে-মোহনবাগানের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা।

বন্ধ করুন