বাংলা নিউজ > ময়দান > অ্যাসেজে রুটদের হোয়াইটওয়াশ করে WTC ফাইনালের পথ প্রশস্ত করতে মরিয়া অজিরা

অ্যাসেজে রুটদের হোয়াইটওয়াশ করে WTC ফাইনালের পথ প্রশস্ত করতে মরিয়া অজিরা

অস্ট্রেলিয়া টিম। ছবি: রয়টার্স

এই সিরিজ জিতলে ঘরের মাটিতে পরপর তিনটি অ্যাসেজে জয় পাবে অস্ট্রেলিয়া। উল্লেখ্য ২০১০-১১ সালে সিডনিতে শেষবার ইংল্যান্ড জিতেছিল। ২০১৭-১৮ সিরিজে মেলবোর্ন টেস্টে ইংল্যান্ড ড্র করতে সমর্থ হয়েছিল। সে বার অ্যালিস্টার কুকের দ্বিশতরানে ভর করে ম্যাচ বাঁচাতে সক্ষম হয়েছিল তারা।

শুভব্রত মুখার্জি: বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম বার ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত এবং নিউজিল্যান্ড। প্রথম বার স্লো ওভাররেটের কারণে পয়েন্ট কাটা যাওয়ার ফলে অস্ট্রেলিয়ার সে বার ফাইনালে খেলা হয়নি। ইতিমধ্যেই দ্বিতীয় বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াই শুরু হয়ে গিয়েছে। তার অন্তর্গত অ্যাসেজ সিরিজে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে এই মুহূর্তে ২-০ ফলে এগিয়ে রয়েছে অজিরা। সিরিজে রুটদের হোয়াইটওয়াশ করে দ্বিতীয় বারের বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল খেলার লক্ষ্যে এক ধাপ এগিয়ে যেতে বদ্ধপরিকর অজিরা।

ব্রিসবেন এবং অ্যাডিলেড টেস্টে জেতার ফলে বক্সিং ডেতে মেলবোর্ন টেস্টে জিতলেই অ্যাসেজের ভালো পয়েন্ট পেয়ে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ভালো জায়গায় চলে যাবে অস্ট্রেলিয়া। উল্লেখ্য এই সিরিজ জিতলে ঘরের মাটিতে পরপর তিনটি অ্যাসেজে জয় পাবে অস্ট্রেলিয়া। উল্লেখ্য ২০১০-১১ সালে সিডনিতে শেষবার ইংল্যান্ড জিতেছিল। ২০১৭-১৮ সিরিজে মেলবোর্ন টেস্টে ইংল্যান্ড ড্র করতে সমর্থ হয়েছিল। সে বার অ্যালিস্টার কুকের দ্বিশতরানে ভর করে ম্যাচ বাঁচাতে সক্ষম হয়েছিল তারা।

প্রথম বার বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলা একটুর জন্য হাতছাড়া হয়েছিল অজিদের। সেই প্রসঙ্গ টেনে মার্নাস ল্যাবুশেন বলেন, ‘টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই চ্যাম্পিয়ানশিপের অন্তর্গত টেস্ট ম্যাচ শুধু জিতলেই হল না। প্রতিটা ম্যাচ খুব গুরুত্বপূর্ণ।’ উল্লেখ্য, গত বছর এমসিজিতে ভারতের বিরুদ্ধে টেস্টে স্লো ওভার রেটের কারণে পয়েন্ট কাটা গিয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার। আর কার্যত সেই কারণেই একেবারে তীরে এসে তরি ডুবেছিল অজিদের। ফাইনালে তাদের টপকে চলে গিয়েছিল নিউজিল্যান্ড দল। সেই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে লাবুশান আরও বলেন, ‘প্রথম বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের সময় আমি ইংল্যান্ডে ছিলাম। বিষয়টি চাক্ষুষ করেছি। দারুণ ছিল ব্যাপারটা। আমি মনে করি, বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপকে আমাদের অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে দেখতে হবে। এই ট্রফিটা আমরা অবশ্যই জিততে চাই।’

বন্ধ করুন