বাংলা নিউজ > ময়দান > Australia A vs India: দুরন্ত শতরান পন্থের, তাও কেন প্রথম টেস্টে খেলা উচিত ঋদ্ধিমানের?
ঋষভ বন্ধ এবং ঋদ্ধিমান সাহা। (ছবি সৌজন্য টুইটার @BCCI)
ঋষভ বন্ধ এবং ঋদ্ধিমান সাহা। (ছবি সৌজন্য টুইটার @BCCI)

Australia A vs India: দুরন্ত শতরান পন্থের, তাও কেন প্রথম টেস্টে খেলা উচিত ঋদ্ধিমানের?

  • শনিবার সিডনিতে দিনরাতের প্রস্তুতি ম্যাচে মাত্র ৭৩ বলে অপরাজিত ১০৩ রান করেছেন পন্থ।

অ্যাডিলেডে প্রথম টেস্টে কে খেলবেন? ঋদ্ধিমান সাহা নাকি ঋষভ পন্থ? দিনরাতের প্রস্তুতি ম্যাচে পন্থের দুরন্ত শতরানের পর আবারও সেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তবে অধিকাংশ বিশেষজ্ঞের মতে, পন্থের দুরন্ত শতরান সত্ত্বেও দেশের বাইরে ভারতের প্রথম দিনরাতের টেস্টে উইকেটের পিছনে ঋদ্ধির দাঁড়ানো উচিত।

শনিবার সিডনিতে দিনরাতের প্রস্তুতি ম্যাচে মাত্র ৭৩ বলে অপরাজিত ১০৩ রান করেছেন পন্থ। তার ফলে স্বভাবতই পন্থকেই প্রথম টেস্টে খেলানো হোক বলে একটি অংশের তরফে দাবি করা হচ্ছে। তাতে অবশ্য একমত নন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা। 

তাঁদের মতে, প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে লড়াকু অর্ধশতরান করেছিলেন ঋদ্ধি। সেই ম্যাচে অবশ্য অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে সুযোগ দেওয়া হয়নি তাঁকে। বরং পন্থের হালকা চোট থাকায় সুযোগ পেয়েছিলেন বাংলার তারকা। প্রথম ইনিংসে শূন্য করলেও দ্বিতীয় ইনিংসে দলের হার বাঁচিয়েছিলেন ঋদ্ধি। দলের বাকি ব্যাটসম্যানরা যখন কোনও প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারেননি, তখন দুরন্ত বোলিংয়ের বিরুদ্ধেও ১০০ বলে ৫৪ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন। এখানেই পন্থের ইনিংস কিছুটা পিছিয়ে পড়ছে। 

ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে, পন্থ অবশ্যই দিনরাতের প্রস্তুতি ম্যাচে শতরান হাঁকিয়েছেন। কিন্তু এটা মনে রাখতে হবে যে শনিবার শেষ এক ঘণ্টায় অস্ট্রেলিয়া ‘এ’ দলের বোলিংয়ের মান তেমন আহামরি ছিল না। বল করেননি সিন অ্যাবট, ক্যামেরন গ্রিনরা। অধিকাংশ সময় স্পিনের বিরুদ্ধে খেলেছেন পন্থ। স্বভাবতই সেই চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হননি তিনি। একইসঙ্গে শনিবার ভালো জায়গায় ছিল ভারত। সেক্ষেত্রে তাঁকে ম্যাচ বাঁচানোর লড়াইয়ের চিন্তা মাথায় নিয়ে খেলতে হয়নি। অনেক খোলামেলাভাবে খেলতে পেরেছেন। সেই ভিত্তিতে কিপিংয়ের নিরিখে প্রথম টেস্টে ঋদ্ধির খেলা উচিত। কারণ দিনরাতের টেস্টে গোধূলির সময় বল ভালোমতো সুইং করে। অস্ট্রেলিয়ার অনুশীলনের যে ভিডিয়ো প্রকাশ করা হয়েছে, তাতে স্পষ্ট বোঝা গিয়েছে যে বল কতটা নড়াচড়া করতে পারে। সেক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানদের খোঁচা ধরার জন্য ঋদ্ধি সেরা রাজি। কারণটা স্পষ্ট। স্টিভ স্মিথ বা মার্নাস ল্যাবুশেনদের ক্যাচ যদি একবারও ফেলা হয়, তাঁরা মোটেও সেই সুযোগ ছেড়ে দেবেন না। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ১০ বারের মতো ন'বারের শতরান করে আসবেন। সেই একটা ক্যাচই হয়তো ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিতে পারে।

একই কথা বলেছেন অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক অ্যালান বর্ডার। তাঁর মতে, প্রস্তুতি ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার ‘এ’ দলের যে বোলিংয়ের বিরুদ্ধে খেলেছেন, তার থেকে দ্বি'তিনগুণ বেশি শক্তিশালী প্যাট কামিন্স, জোস হেজেলউডরা। তাই শুধু রানের বিচারে দল নির্বাচন করার কাজটা একেবারেই বুদ্ধিমত্তার হবে না। সেক্ষেত্রে দিনরাতের টেস্টের জন্য একজন প্রকৃত উইকেট-রক্ষককে খেলাতে হবে। আর ভারতের ক্ষেত্রে সেই ব্যক্তিটি হলেন ঋদ্ধি।

তবে আদৌও ঋদ্ধি খেলতে পারেন কিনা, তা নিয়ে ধোঁয়াশা আছে। পুরোটাই নির্ভর করছে বিরাট কোহলি এবং রবি শাস্ত্রী জুটির উপর। যাঁদের বিচিত্র সিদ্ধান্ত নিয়ে মাঝেমধ্যেই প্রশ্ন ওঠে।

বন্ধ করুন