সস্ত্রীক লিটন দাস। ছবি- ইনস্টাগ্রাম।
সস্ত্রীক লিটন দাস। ছবি- ইনস্টাগ্রাম।

গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে আহত ক্রিকেটার লিটন দাসের স্ত্রী

  • গত ২৭ মার্চ চা বানানোর জন্য বাড়ির রান্নাঘরে প্রবেশ করেন দেবশ্রী। বার্নার জ্বালানোর মুহূর্তেই ঘটে বিস্ফোরণ।

মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরলেন বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটার লিটন দাসের স্ত্রী দেবশ্রী বিশ্বাস সঞ্চিতা। গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে তাঁর হাতের বেশ কিছুটা অংশ পুড়ে গেলেও কোনও রকমে নিজেকে রক্ষা করেন লিটনের ঘরণী।

গত ২৭ মার্চ চা বানানোর জন্য বাড়ির রান্নাঘরে প্রবেশ করেন দেবশ্রী। বার্নার জ্বালানোর মুহূর্তেই ঘটে বিস্ফোরণ।তড়িঘড়ি দু'হাতে নিজের মুখ ঢেকে নেন তিনি। তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় পিছন ঘুরে গেলে লিটনের স্ত্রী'র চুলেও আগুন লেগে যায়।

বিস্ফোরণের অভিঘাতে রান্নাঘরের ক্যাবিনেট ভেঙে পড়ে। তাতেও দেবশ্রীর শরীরের বেশ কয়েক জায়গায় আঘাত লাগে। শেষমেশ বড়সড় দূর্ঘটনা এড়িয়ে যেতে পারায় ভাগ্যকে ধন্যবাদ জানাচ্ছেন বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটারের স্ত্রী।

ভয়াবহ সেই অভিজ্ঞতার কথা সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেই জানিয়েছেন দেবশ্রী। তাঁর কথায়, 'প্রতিদিনের মতো চা তৈরির জন্য আমি রান্নাঘরে ঢুকি। প্রথমবার বার্নার জ্বললেও তা নিভে যায়। পরে আবার জ্বালানোর চেষ্টা করতেই বিস্ফোরণ ঘটে। সেই অনুভূতি বলে বোঝানো সম্ভব নয়। নিশ্চিত মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেছি।'

তিনি আরও জানান, 'যদি হাত দিয়ে মুখ আড়াল না করতাম, তবে আমার গোটা মুখ ঝলসে যেত। হাতের বেশ কিছুটা অংশ পুড়ে গিয়েছে। পিছন ঘোরার ফলে আমার চুলেও আগুল লেগে যায়। এখন আমাকে চুল কাটতে হবে। মুখে আগুন লাগলে কী হতো ভেবেই শিউরে উঠছি। আমি ঠিক হয়ে যাব, তবে আপনারা সবাই সাবধানে থাকবেন।'

বন্ধ করুন