বাংলা নিউজ > ময়দান > ঠাসা ক্রীড়াসূচি, আগামী ৪ বছরে ভারত-পাকিস্তানের থেকেও বেশি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ
ঠাসা ক্রীড়াসূচি শাকিবদের। ছবি- টুইটার।

ঠাসা ক্রীড়াসূচি, আগামী ৪ বছরে ভারত-পাকিস্তানের থেকেও বেশি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ

  • সবার থেকে বেশি ওয়ান ডে ম্যাচ পেয়েছে বাংলাদেশ, শাকিবরা টেস্টও খেলবেন বিস্তর।

ঠাসা ক্রীড়াসূচি বোধহয় একেই বলে। আইসিসির পরবর্তী ফিউচার ট্যুরস প্রোগ্রামে বাংলাদেশ তিন ফর্ম্যাটেই বিস্তর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলবে। একমাত্র ওয়েস্ট ইন্ডিজ ছাড়া আর কোনও দেশ আগামী চার বছরে এত সংখ্যায় আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলবে না।

২০২৩-এর মে মাস থেকে ২০২৭-এর এপ্রিল মাস পর্যন্ত আইসিসির পরবর্তী ফিউচার ট্যুরস প্রোগ্রামের যে খসড়া তৈরি হয়েছে, সেই অনুযায়ী বাংলাদেশ চার বছরে মোট ৩৪টি টেস্ট ম্যাচ খেলবে। ইংল্যান্ড (৪২), অস্ট্রেলিয়া (৪১) ও ভারত (৩৬) ছাড়া আর কোনও দেশ এত টেস্ট ম্যাচে মাঠে নামবে না।

চার বছরে বাংলাদেশ সব থেকে বেশি ৫৯টি ওয়ান ডে ম্যাচে মাঠে নামবে। বাংলাদেশ ছাড়া কেবলমাত্র শ্রীলঙ্কা (৫৮) পঞ্চাশটির বেশি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলবে। বাংলাদেশ পরবর্তী এফটিপি-তে ৫১টি আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচে মাঠে নামবে।

আরও পড়ুন:- ঘরে-বাইরে ভারত দু'বার মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়ার, পরবর্তী ২টি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে রোহিতরা কাদের বিরুদ্ধে মাঠে নামবেন?

সুতরাং, তিন ফর্ম্যাট মিলিয়ে বাংলাদেশ এই ৪ বছরে মোট ১৪৪টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলবে। কেবলমাত্র ওয়েস্ট ইন্ডিজ (১৪৬) বাংলাদেশের থেকে ২টি ম্যাচ বেশি খেলবে।

উল্লেখ্য, ২০২৩-২৫ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশ ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হবে। তারা দেশের বাইরে টেস্ট সিরিজ খেলবে ভারত, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। ২০২৫-২৭ টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে বাংলাদেশ ঘরের মাঠে টেস্ট খেলবে ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। তারা অ্যাওয়ে সিরিজ খেলবে অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কায় গিয়ে।

আরও পড়ুন:- সুপার লিগ বাদ পড়ায় দীর্ঘদিন পরে ফিরতে চলেছে ত্রিদেশীয় ওয়ান ডে সিরিজ

তাছাড়া আইসিসির পরবর্তী এফটিপি-তে ফের দেখা যাবে তিন দেশের একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সিরিজ। ২০২৩ সালের পরেই যেহেতু ক্রিকেট ওয়ার্ল্ড কাপ সুপার লিগের অস্তিত্ব থাকছে না, তাই ট্রাই সিরিজ আয়োজনে উৎসাহী একাধিক দেশ।

বন্ধ করুন