বাড়ি > ময়দান > লকডাউন পরবর্তী আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাড়তি সুবিধা পাবেন ব্যাটসম্যানরা, ধারণা টিম ইন্ডিয়ার বোলিং কোচের
ভারত অরুণ
ভারত অরুণ

লকডাউন পরবর্তী আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাড়তি সুবিধা পাবেন ব্যাটসম্যানরা, ধারণা টিম ইন্ডিয়ার বোলিং কোচের

কেন এমন মনে হচ্ছে, বিস্তারিত ভাবে বললেন ভারত অরুণ। 

লকডাউন পরবর্তী আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বাড়তি সুবিধা পাবেন ব্যাটসম্যানরা, ধারণা টিম ইন্ডিয়ার বোলিং কোচের

করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় লকডাউন পরবর্তী আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য নির্দেশিকা জারি করেছে আইসিসি। বিধিনিষেধ আরোপিত হয়েছে বেশ কিছু বিষয়ের উপর। সবথেকে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, বল পালিশের ক্ষেত্রে নিষিদ্ধ হতে চলেছে লালার ব্যবহার।

ক্রিকেটে বলের পালিশ বজায় রাখা একটা শিল্প বলে বিবেচিত হয়। বোলারদের জন্য এটা একান্ত প্রয়োজনীয়। বলে লালা ব্যবহার বন্ধ হয়ে গেলে পরিস্থিতি কেমন দাঁড়াবে, ক্রিকেটমহলে তা নিয়ে চলছে জোর জল্পনা। ভারতের বোলিং কোচ ভরত অরুণ এ-প্রসঙ্গে বিস্তারিত আলোচনা করেন হিন্দুস্তান টাইমসের প্রতিনিধির সঙ্গে।

কোহলিদের বোলিং কোচ মূলত তিনটি দিকের কথা উল্লেখ করেন। প্রথমত, দীর্ঘদিনের অভ্যাসবশত বোলাররা ভুল করে বলে লালা লাগিয়ে বসবেন না, এমনটা কে নিশ্চয়তা দিতে পারে। তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, ম্যাচের প্রতিটা মুহূর্তে বোলার ও ফিল্ডাররা ভুল করে বলে লালা লাগাচ্ছেন কিনা, সে বিষয়ে নজরদারি চালানো কি সম্ভব?

দ্বিতীয়ত, ভারত অরুণ বুঝে উঠতে পারছেন না, ঘাম ও লালা দুটিই শরীর নিঃসৃত হলেও একটি নিষিদ্ধ ও অন্যটি আইনসিদ্ধ কেন। যদিও তিনি স্পষ্ট স্বীকার করে নিয়েছেন যে, তিনি মেডিক্যাল বিশেষজ্ঞ নন। তাই করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা কোন ক্ষেত্রে বেশি, সে সম্পর্কে বিশেষ কোনও ধারণা নেই তাঁর।

সর্বোপরি, ভারতের বোলিং কোচ আশঙ্কা প্রকাশ করেন যে, পিচ যদি ক্ষুরক্ষুরে হয়, আউটফিল্ডে যদি পর্যাপ্ত ঘাস না থাকে, তখন বলের কী অবস্থা দাঁড়াবে!

সবমিলিয়ে ভরত অরুণ মনে করছেন যে, বোলারদের কাছে কাজটা অত্যন্ত কঠিন হয়ে দাঁড়াতে চলেছে। কেননা, বলের পালিশ বজায় রাখার ক্ষেত্রে লালা যতটা কার্যকরী, ঘাম ততটা নয়। বিভিন্ন পরিবেশে খেলা হলেও একই নিয়ম মেনে চলতে হবে বোলারদের। সুতরাং কোনও কোনও ক্ষেত্রে ব্যাটসম্যানরা বাড়তি সুবিধা পাবেন নিশ্চিত।

বন্ধ করুন