বাংলা নিউজ > ময়দান > দুয়ারে বোর্ড নির্বাচন, তার আগে বিসিসিআই-এর বার্ষিক সাধারণ সভা ১৮ অক্টোবর
বিসিসিআই-এর বার্ষিক সাধারণ সভা হবে ১৮ অক্টোবর।

দুয়ারে বোর্ড নির্বাচন, তার আগে বিসিসিআই-এর বার্ষিক সাধারণ সভা ১৮ অক্টোবর

  • মুম্বইতেই হতে চলেছে বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভা। বার্ষিক সাধারণ সভার বিজ্ঞপ্তি কয়েকদিনের মধ্যেই জানিয়ে দেবেন বোর্ড সচিব জয় শাহ। অরুণ জেটলির ছেলে রোহন জেটলিও আসতে পারেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে। বাংলা ক্রিকেট সংস্থা থেকে দেখা যেতে পারে অভিষেক ডালমিয়াকে।

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে নির্বাচন আদৌ হবে? হলে কবে হবে? সেই নিয়ে জল্পনার ঠিক মাঝেই জানা গিয়েছে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরুর পরেই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হবে। ১৮ অক্টোবর বোর্ডের ৯১তম এজিএম অনুষ্ঠিত হবে। বার্ষিক সাধারণ সভার পরই হবে বোর্ডের নির্বাচন। সূত্রের খবর, আইসিসির চেয়ারম্যান হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। সেক্ষেত্রে বোর্ড সভাপতি হতে পারেন জয় শাহ।

মুম্বইতেই হতে চলেছে বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভা। বার্ষিক সাধারণ সভার বিজ্ঞপ্তি কয়েকদিনের মধ্যেই জানিয়ে দেবেন বোর্ড সচিব জয় শাহ। অরুণ জেটলির ছেলে রোহন জেটলিও আসতে পারেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডে। বাংলা ক্রিকেট সংস্থা থেকে দেখা যেতে পারে অভিষেক ডালমিয়াকে। সিএবি-তে ইতিমধ্যেই মেয়াদ ফুরিয়ে গিয়েছে অভিষেকের।

আরও পড়ুন: মানকাডিং এবার রান আউট, বলে লালার ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা, পাল্টাল ICC-র একাধিক নিয়ম

শোনা যাচ্ছে, বোর্ডের কোনও একটি বিশেষ পদে প্রবল ভাবে আসতে পারেন অভিষেক ডালমিয়া। আইসিসি-তে বোর্ডের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করতে পারেন ব্রিজেশ প্যাটেল। কোষাধ্যক্ষ হওয়ার দৌড়ে নাম ভাসছে অনিরুদ্ধ চৌধুরীর। আইপিএল চেয়ারম্যান হিসেবে ফের নিজের জায়গা ফিরে পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে রাজীব শুক্লার।

আরও পড়ুন: T20-তে ইমপ্যাক্ট প্লেয়ার চালু করছে BCCI, আউট হওয়া ব্যাটারেরও পরিবর্ত নামানো যাবে

সেপ্টেম্বরের শেষ সপ্তাহে বোর্ডের বার্ষিক সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও আদালতের রায়ের কারণে তা পিছিয়ে যায়। বোর্ডের সংবিধানে সংস্করণ আনতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, জয় শাহরা। রায় না বেরনো পর্যন্ত বার্ষিক সভা স্থগিত রাখতে হয়েছিল বোর্ডকে।

তবে সুপ্রিম কোর্টে যে রায় দিয়েছে, তাতে স্বস্তি ফিরেছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, জয় শাহদের। রাজ্য সংস্থা এবং বোর্ডে ৬ বছরের জন্য আলাদা আলাদা ভাবে থাকতে পারবেন কর্তারা। তার পর বাধ্যতামূলক কুলিং অফে যেতে হবে তাঁদের। এই রায় বেরনোর পর নিঃসন্দেহে স্বস্তি ফিরে পা সৌরভ, জয় শাহরা।

তবে নির্বাচন প্রক্রিয়াতে কোনও বাধা থাকবে না। তিন বছর অন্তর নির্বাচন প্রক্রিয়াও চলবে। ইতিমধ্যেই নির্বাচন প্রক্রিয়া শুরুর জন্য একে জ্যোতিকে নির্বাচনী অফিসার হিসেবে নিয়োগ করেছে বোর্ড। কয়েক দিনের মধ্যেই সেই বিজ্ঞপ্তি জারি করবেন তিনি।

বন্ধ করুন