বাংলা নিউজ > ময়দান > পুরনো জুটি নতুন মোড়কে, দ্রাবিড় কোচ হওয়ায় ভারতের সাফল্যের স্বপ্নে বুঁদ সৌরভ
রাহুল দ্রাবিড় এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।
রাহুল দ্রাবিড় এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

পুরনো জুটি নতুন মোড়কে, দ্রাবিড় কোচ হওয়ায় ভারতের সাফল্যের স্বপ্নে বুঁদ সৌরভ

  • দ্রাবিড় এবং সৌরভ পুরনো সতীর্থ। পুরনো জুটি এ বার নতুন মোড়কে ভারতীয় দলের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে। আবার ভারতীয় ক্রিকেটে সাফল্যে আনার স্বপ্নে বুঁদ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

সরকারি ভাবে এত দিন ঘোষণা না হলেও, আগে থেকেই জানা দিল রবি শাস্ত্রীর হটসিটে কে বসতে চলেছেন! বুধবার দীপাবলির আগের দিন প্রত্যাশা মতোই টিম ইন্ডিয়ার নতুন হেড কোচ হিসেবে রাহুল দ্রাবিড়ের নাম সরকারি ভাবে ঘোষণা করা হয়। বিসিসিআইয়ের তরফে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দেওয়া হয়, এ বার বিরাট কোহলিদের দায়িত্ব নিতে চলেছেন দ্রাবিড়।

প্রথম দিকে ভারতের কোচ হতে কিছুটা অনিচ্ছুকই ছিলেন দ্রাবিড়। তবে মনে করা হচ্ছে, বর্তমান বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট এবং দ্রাবিড়ের প্রাক্তন সতীর্থ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বারংবার অনুরোধ শেষ পর্যন্ত ফেলতে পারেননি জ্যামি। যে কারণে বিরাটদের দায়িত্ব নিতে রাজি হন তিনি। দ্রাবিড় এবং সৌরভ পুরনো সতীর্থ। পুরনো জুটি এ বার নতুন মোড়কে ভারতীয় দলের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে। আবার ভারতীয় ক্রিকেটে সাফল্যে আনার স্বপ্নে বুঁদ সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

ভারতীয় দলের কোচ হিসেবে তাঁর নাম সরকারি ভাবে ঘোষণা হওয়ার পরে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট স্বাভাবিক ভাবেই উচ্ছ্বসিত। তিনি বলেন, ‘রাহুল দ্রাবিড়কে ভারতীয় দলের প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ করতে পেরে বিসিসিআই গর্বিত। রাহুলের দুর্দান্ত ক্রিকেট জীবন রয়েছে। পাশাপাশি ক্রিকেট খেলাটার অন্যতম সেরা চরিত্র। জাতীয় ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতেও (এনসিএ) অত্যন্ত সাফল্যের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছে। এনসিএ-তে থাকাকালীন একাধিক তরুণ ক্রিকেটারকে নিয়ে নাড়াচাড়া করেছে দ্রাবিড়, যারা পরবর্তী কালে আন্তর্জাতিক মঞ্চে দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করেছে। আশা করি কোচ থাকাকালীন ভারতীয় ক্রিকেটকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে ও।’

শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে রাহুল দ্রাবিড়কে ভারতের দ্বিতীয় দলটির কোচ করার পর থেকেই একটা গুঞ্জন ছিল। তার উপর চলতি টি-২০ বিশ্বকাপের পর রবি শাস্ত্রীর সঙ্গে বিসিসিআইয়ের চুক্তিও শেষ হয়ে যাচ্ছে। এবং শাস্ত্রী নতুন করে দায়িত্ব নিতে আগ্রহী নন, এটা স্পষ্ট জানিয়েও দিয়েছেন। যদিও তাঁর আগ্রহ থাকলেও, কোচ হিসেবে তাঁকে আর রাখা হত কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। সে কারণে অনেক আগে থেকেই কোহলিদের জন্য কোচ খুঁজতে শুরু করেছিল বিসিসিআই। অনিল কুম্বলে, ভিভিএস লক্ষ্মণ অনেক নামই উঠে এসেছিল। তাঁরা কেউ অবশ্য আগ্রহ দেখাননি বলে খবর। শেষ পর্যন্ত কোচ হিসেবে দ্রাবিড়কেই বেছে নেওয়া হয়।

বন্ধ করুন