বাংলা নিউজ > ময়দান > নির্বাসনের শাস্তি থেকে মুক্তি পেলেন ম্যাচ গড়াপেটা কাণ্ডে অন্যতম দোষী অঙ্কিত
২২ গজে ফেরার অপেক্ষা অঙ্কিত চহ্বানের।
২২ গজে ফেরার অপেক্ষা অঙ্কিত চহ্বানের।

নির্বাসনের শাস্তি থেকে মুক্তি পেলেন ম্যাচ গড়াপেটা কাণ্ডে অন্যতম দোষী অঙ্কিত

  • শ্রীসন্থ অবশ্য ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে ক্রিকেট মাঠে ফিরে গিয়েছিলেন। কিন্তু ৩ মে পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছে চহ্বানকে।

শেষ পর্যন্ত নির্বাসনের শাস্তি থেকে মুক্তি পেলেন মুম্বইয়ের প্রাক্তন অল-রাউন্ডার অঙ্কিত চহ্বান। ২০১৩ সালের মে মাসে আইপিএলে ম্যাচ গড়াপেটার দায়ে গ্রেফতার করা হয়েছিল রাজস্থান রয়্যালসের তিন ক্রিকেটার এস শ্রীসন্থ, অজিত চান্ডিলা এবং অঙ্কিত চহ্বানকে। অঙ্কিত জানিয়েছেন, মঙ্গলবার রাতে বিসিসিআই-এর তরফ থেকে তিনি একটি ই-মেল পেয়েছেন। যেখানে বিসিসিআই-এর তরফে তাঁকে সরকারি ভাবে জানানো হয়েছে, তিনি আবার প্রতিযোগীতামূলক ক্রিকেটে অংশ নিতে পারবেন।

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের ওম্বুডসম্যান বিচারপতি (অবসরপ্রাপ্ত) ডিকে জৈন বিসিসিআই-এর মতো কঠোর মনোভাব শ্রীসন্থ এবং অঙ্কিতের উপর দেখাননি। বিসিসিআই তাঁদের আজীবন নির্বাসনের শাস্তি দিয়েছিল। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে গত বছরই সেই শাস্তি কমিয়ে ডিকে জৈন সাত বছরের নির্বাসনের শাস্তি ধার্য করেছিলেন। 

শ্রীসন্থ অবশ্য ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে ক্রিকেট মাঠে ফিরে গিয়েছিলেন। কিন্তু ৩ মে পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছে চহ্বানকে। গত মাসে চহ্বান মুম্বই ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের কাছে আবেদন করেছিলেন, যেন তাঁকে বিসিসিআই তাঁকে ক্রিকেট ফেরার জন্য ছাড়পত্র দেয়।

অঙ্কিত জানিয়েছেন, ‘আমি বিসিসিআই-এর তরফ থেকে সরকারি ভাবে ছাড়পত্রে পেয়েছি। এই অতিমারীর জন্য সরকারি যে বিধিনিষেধ রয়েছে, সেগুলো একটু কমলেই আমি ক্রিকেট মাঠে ফিরব। যত শীঘ্র পারব ২২ গজে ফিরতে চাই। আমাদের পরিবারের প্রত্যেকে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে। শেষ পর্যন্ত এই পর্ব শেষ হল। আমি ক্লাব ক্রিকেটের পাশাপাশি কর্পোরেট ক্রিকেটেও খেলা শুরু করে দিতে চাই। ’

বন্ধ করুন