বাংলা নিউজ > ময়দান > বায়ো-বাবলের ক্লান্তি কাটাতে SA সিরিজে সিনিয়রদের বিশ্রাম দেওয়ার পরিকল্পনা BCCI-এর
সিনিয়রদের ভাগে ভাগে বিশ্রাম দেওয়ার পরিকল্পনা বিসিসিআই-এর।
সিনিয়রদের ভাগে ভাগে বিশ্রাম দেওয়ার পরিকল্পনা বিসিসিআই-এর।

বায়ো-বাবলের ক্লান্তি কাটাতে SA সিরিজে সিনিয়রদের বিশ্রাম দেওয়ার পরিকল্পনা BCCI-এর

  • দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে আসন্ন পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে প্লেয়ারদের কোয়ারেন্টাইন বা বায়ো-বাবলে থাকার প্রয়োজন হবে না। বিশ্ব জুড়ে করোনা অতিমারি ছড়িয়ে পরার পর থেকেই সব প্লেয়ারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই বায়ো-বাবলে রাখার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল। 

বায়ো-বাবলের ক্লান্তি কাটাতে বিসিসিআই একটি কার্যকর ওয়ার্কলোড ম্যানেজমেন্ট প্রোগ্রাম তৈরি করছে। যাতে অধিনায়ক রোহিত শর্মা, সিনিয়র ব্যাটসম্যান বিরাট কোহলি, কেএল রাহুল, কিপার ঋষভ পন্ত, পেসার জসপ্রীত বুমরাহ, মহম্মদ শামি, অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজা সহ সমস্ত তারকারা যুক্তরাজ্যে যাওয়ার আগে যাতে পর্যাপ্ত বিশ্রাম পান। বিসিসিআই-এর এক সূত্র এমনটাই জানিয়েছেন।

সে ক্ষেত্রে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৫ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে পাওয়া যাবে না একাধিক সিনিয়র প্লেয়ারকে। বা ঘুরিয়ে ফিরিয়ে তাদের খেলানো হতে পারে। বিসিসিআই-এর সূত্রের দাবি, ‘পাঁচটি শহরে ৯ থেকে ১৯ জুনের মধ্যে পাঁচটি টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ রয়েছে। স্পষ্টতই, সব প্লেয়ারকে সব ম্যাচে খেলানো হবে না। কাউকে কাউকে সম্পূর্ণ বিশ্রাম দেওয়া হতে পারে এবং কেউ কয়েকটি খেলা খেলতে পারে।’

এর সঙ্গেই তিনি যোগ করেছেন, ‘যদি প্লেয়ারদের পদ্ধতিগত বিরতি না দেওয়া হয়, তবে এতে ওদের ক্ষতিই হবে। তবে স্পষ্টতই, প্রধান কোচের (রাহুল দ্রাবিড়) সাথে কথা বলার পরে বিরতি নিয়ে নির্বাচকেরা সিদ্ধান্ত নেবেন।’ প্রসঙ্গত এই ৫টি ম্যাচ হবে দিল্লি, কটক, বিশাখাপত্তনম, রাজকোট এবং বেঙ্গালুরুতে।

আরও পড়ুন: প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে কোনও বায়ো-বাবল এবং কঠোর কোয়ারেন্টাইন থাকবে না

আরও পড়ুন: IPL শেষ হওয়ার পরেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে T-20 সিরিজ, ঘোষিত ভেন্যু

এমন কী দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে আসন্ন পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে প্লেয়ারদের কোয়ারেন্টাইন বা বায়ো-বাবলে থাকার প্রয়োজন হবে না। বিশ্ব জুড়ে করোনা অতিমারি ছড়িয়ে পরার পর থেকেই সব প্লেয়ারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই বায়ো-বাবলে রাখার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এটি প্লেয়ারদের মানসিক স্বাস্থ্যের উপর অত্যন্ত প্রভাব ফেলেছে এবং এর জন্য বহু খেলোয়াড়ই কয়েকটি সিরিজ থেকে সরে দাঁড়াতেও বাধ্য হয়েছিল।

আয়ারল্যান্ড এবং ইংল্যান্ড সফরের পাশাপাশি দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে আসন্ন টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য বায়ো-বাবল বা কোয়ারেন্টাইনে প্লেয়ারদের না রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। চলতি আইপিএলে টানা দু'মাস বায়ো বাবলে থাকার ফলে ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন প্লেয়াররা। আইপিএল শেষ হওয়ার পরে ৯ জুন ভারত এবং দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হবে।

বন্ধ করুন