বদলাতে পারে আইপিএল সূচি। ছবি-টুইটার।
বদলাতে পারে আইপিএল সূচি। ছবি-টুইটার।

IPL 2020- করোনার জেরে অনিশ্চিত টি২০ লিগ, নতুন সময়-সূচি খুঁজছে বোর্ড

বিসিসিআই চাইলে দেশে অথবা দেশের বাইরে নিরাপদ কোনও কেন্দ্রে আইপিএল-১৩ আয়েজন করতে পারে পরিবর্তিত সময়-সূচিতে।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের আশঙ্কায় পিছিয়ে গিয়েছে আইপিএল। নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী তো নয়ই, এমনকি পূর্ণ দৈর্ঘ্যের টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হওয়ার উপরেও পড়ে গিয়েছে প্রশ্ন চিহ্ন। বিসিসিআই ম্যাচ সংখ্যা কমিয়ে আইপিএল আয়োজনের পরিকল্পনা করলেও ফ্র্যাঞ্চাইজিরা তা চাইছে না। এই অবস্থায় কোনও প্ল্যান-বি'র রাস্তা খোলা থাকছে না বোর্ডের সামনে। উপায় একটাই, আপাতত স্থগিত রেখে পরবর্তী সময়ে পূর্ণ দৈর্ঘ্যের আইপিএল আয়েজন।

তার জন্য বিসিসিআইয়ের প্রাথমিক প্রয়োজন নতুন সময়-সূচি। পরে বিবেচনায় থাকবে নিরাপদ ভ্যেনু। ইতিমধ্যেই আইসিসির ফিউচার ট্যুর প্রোগ্রামে চোখ রাখতে শুরু করেছে বোর্ড। চলতি ক্রিকেট ক্যালেন্ডার বর্ষে যদি মাস দেড়েকের কোনও ফাঁক খুঁজে পাওয়া যায়।

আন্তর্জাতিক ক্রীড়াসূচি ঘেঁটে দেখার পর জুলাই থেকে সেপ্টেম্বরের মধ্যে ছোট একটা উইন্ডো মনে ধরে ধরেছে ভারতীয় বোর্ডের। বিকল্প রাস্তা হিসেবে সেই উইন্ডোতেই নজর বিসিসিআইয়ের।

২০০৯ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ৩৭ দিনের আইপিএল অনুষ্ঠিত হয়েছিল। বর্তমান পরিস্থিতিতে অন্তত ৫ সপ্তাহের টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে চাইলেও নির্ধারিত সময়ে তা শেষ করা সম্ভব হবে কিনা সন্দেহ। শুরুর দিন ক্রমাগত পিছতে থাকলে সপ্তাহে ৯ থেকে ১১টি ম্যাচ নষ্ট হবে। অগত্যা টুর্নামেন্ট পিছিয়ে নিয়ে যাওয়াই সেরা বিকল্প হতে পারে।

জুলাই ও সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপ ছাড়া ইংল্যান্ড ও পাকিস্তানের দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ খেলার কথা। এছাড়া জুন-জুলাইয়ে ইসিবি তাদের নতুন টুর্নামেন্ট 'দ্য হান্ড্রেড' আয়োজন করতে চলেছে। বিসিসিআই যদি দু'টি পর্বে আইপিএল আয়োজন করে তবে ইংল্যান্ড ও পাকিস্তান ছাড়া অন্য কোনও দলের ঠাসা আন্তর্জাতিক ক্রীড়াসূচি নেই।

পাক ক্রিকেটারদের আইপিএল খেলার প্রশ্ন নেই। বাংলাদেশ, আফগানিস্তান ও শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটারদের এশিয়া কাপের সময়টুকু ছাড়া আইপিএলে পেতে অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটাররা এই সময়ে ফাঁকাই থাকবেন। সুতরাং বিসিসিআই চাইলে দেশে অথবা দেশের বাইরে নিরাপদ কোনও কেন্দ্রে আইপিএল-১৩ আয়েজন করতে পারে পরিবর্তিত সময়-সূচিতে। এপ্রিল-মে মাসে নিতান্ত আইপিএল আয়োজন করা না গেলে বিসিসিআই বিকল্প এই পথেই হাঁটতে পারে।


বন্ধ করুন