বাংলা নিউজ > ময়দান > নবান্ন অভিযানে শিখ যুবকের পাগড়ি খুলল পুলিশ, মমতার দৃষ্টি আকর্ষণ ক্ষুব্ধ ভাজ্জির
শিখ যুবকের পাগড়ি খুলছে পুলিশ। তোপ ভাজ্জির। ছবি- সোশ্যাল মিডিয়া।
শিখ যুবকের পাগড়ি খুলছে পুলিশ। তোপ ভাজ্জির। ছবি- সোশ্যাল মিডিয়া।

নবান্ন অভিযানে শিখ যুবকের পাগড়ি খুলল পুলিশ, মমতার দৃষ্টি আকর্ষণ ক্ষুব্ধ ভাজ্জির

  • বলবিন্দর সিং নামক শিখ যুবককে বেধরক মারতে দেখা যায় পুলিশকে।

হতে পারে রাজনৈতিক অভিযান। তাই বলে ধর্মীয় রীতি-নীতির ওপর কোনও আঁচ আসার অভিযোগ এলে চুপ করে থাকতে পারেন না হরভজন সিং। ক্ষুব্ধ সর্দার সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল একটি ভিডিও নিয়ে নিজের রাগ উগরে দিলেন। সঙ্গে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ করলেন, যথাযোগ্য ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য। 

বৃহস্পতিবার বিজেপির নবান্ন অভিযানের সময় শিখ সম্প্রদায়ের এক ব্যক্তির পাগড়ি টেনে-হিঁচড়ে খুলে দেয় পুলিশ। তাঁকে রাস্তায় ফেলে মারতেও দেখা যায়। এই ঘটনার ভিডিও সামনে আসতেই শুরু হয়ে যায় বিতর্ক। এই ব্যক্তির কাছ থেকেই পিস্তল পাওয়া গিয়েছিল, যা নিয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল। 

শিখ সম্প্রদায়ের কাছে পাগড়ি খুলে দেওয়া গর্হিত অপরাধ। নবান্ন অভিযান চলাকালীন বলবিন্দর সিং নামক ব্যক্তির পাগড়ি খুলে যায় পুলিশের সঙ্গে ধ্বস্তাধ্বস্তিতে। । ভিডিওটি হরভজন সিংকে অত্যন্ত ব্যথিত করেছে। ক্ষুব্ধ ভাজ্জি টুইটারে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিষয়টিতে নজর দেওয়ার অনুরোধ করেছেন।

বলবিন্দর সিংকে বৃহস্পতিবার পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়। তাঁর কাছ থেকে একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়। শিখ যুবক বিজেপির যুব মোর্চার রাজ্য কমিটির সদস্য প্রিয়াঙ্গু পান্ডের দেহরক্ষী বলে জানা গিয়েছে। রাজ্য বিজেপির তরফে দাবি করা হয়, বলবিন্দরের কাছ থেকে পাওয়া আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স রয়েছে। তবে পরে জানা যায় সেই লাইসেন্স রাজৌরির ও তার বাইরে এই পিস্তল ব্যবহার করা বা নিয়ে ঘোরার অধিকার তাঁর নেই। 

ইমপ্রীত সিং বক্সি টুইটারে বলবিন্দরকে বাংলার পুলিশের মারধোর ও তাঁর পাগড়ি খুলে দেওয়ার ভিডিও পোস্ট করেন। হরভজন ভিডিওটি রি-টুইট করে নিজের রাগ প্রকাশ করেন।

বন্ধ করুন