বাংলা নিউজ > ময়দান > প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অনন্য নজির বাংলার, ৯ জন ব্যাট করে সবাই অন্তত ৫০ পার করলেন
বাংলার রঞ্জি দলের ৯ মহারথী।

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে অনন্য নজির বাংলার, ৯ জন ব্যাট করে সবাই অন্তত ৫০ পার করলেন

  • বাংলার মোট ৭ জন প্লেয়ার- অভিষেক রমন (৬১), অভিমন্যু ঈশ্বরণ (৬৫), মনোজ তিওয়ারি (৭৩), অভিষেক পোড়েল (৬৮), শাহবাজ আহমেদ (৭৮), সায়ন মণ্ডল (অপরাজিত ৫৩) এবং আকাশ দীপ (অপরাজিত ৫৩) হাফসেঞ্চুরি করেছেন। আর দু'জন প্লেয়ার- সুদীপ ঘরামি (১৮৬) এবং অনুষ্টুপ মজুমদার (১১৭) সেঞ্চুরি করেছেন।

প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ২৫০ বছরের ইতিহাসে এমন ঘটনা আগে কখনও ঘটেনি। যা ঘটালেন বাংলার রঞ্জি টিমের ছেলেরা। কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচে ঝাড়খণ্ডের বিরুদ্ধে অনন্য নজির গড়ে ফেললেন তাঁরা।

বাংলা ৯ জন ব্যাটার ক্রিজে ব্যাট করতে নেমেছিলেন। প্রত্যেকেই অন্তত পক্ষে হাফসেঞ্চুরি করেছেন। কারও রানই ৫০-এর নীচে নেই। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে প্রথম টিম হিসেবে এটা বাংলার বড় রেকর্ড।

টসে জিতে ফিল্ডিং নিয়েছিল ঝাড়খণ্ড। আর এতে সুবিধে পেয়ে যায় বাংলা। একেই বলে বোধহয় বুমেরাং হয়ে যাওয়া। ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই ঝাড়খণ্ডকে চাপে ফেলে দেন বাংলার ব্যাটসম্যানরা।

বাংলার মোট ৭ জন প্লেয়ার- অভিষেক রমন (৬১), অভিমন্যু ঈশ্বরণ (৬৫), মনোজ তিওয়ারি (৭৩), অভিষেক পোড়েল (৬৮), শাহবাজ আহমেদ (৭৮), সায়ন মণ্ডল (অপরাজিত ৫৩) এবং আকাশ দীপ (অপরাজিত ৫৩) হাফসেঞ্চুরি করেছেন। আর দু'জন প্লেয়ার- সুদীপ ঘরামি (১৮৬) এবং অনুষ্টুপ মজুমদার (১১৭) সেঞ্চুরি করেছেন। যার নিট ফল বাংলা বিশাল বড় রানের বোঝা চাপাল ঝাড়খণ্ডের ঘাড়ে। তৃতীয় দিনের লাঞ্চের পরেই ৭ উইকেটে ৭৭৩ রান করে ইনিংসের সমাপ্তি ঘোষণা করে বাংলা।

আরও পড়ুন: সেঞ্চুরি করার পরেই চিরকুট বের করে ছেলেকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালেন অনুষ্টুপ

ঝাড়খণ্ডের বিরুদ্ধে রঞ্জির কোয়ার্টার ফাইনালে দ্বিতীয় দিনের শেষে বাংলা তাদের প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেটের বিনিময়ে ৫৭৭ রান করেছিল। মনোজ তিওয়ারি ৫৪ রান করে অপরাজিত ছিলেন। শাহবাজ আহমেদ ১০ বলে ৭ রান করে নট-আউট ছিলেন। এই জায়গা থেকে তৃতীয় দিন ব্যাট করতে নামে বাংলা।

মনোজ ১৭৩ বলে ৭৩ করে আউট হন। শাহবাজ ১২৪ বলে ৭৮ রানের দুরন্ত একটি ইনিংস খেলেন। এর পরে সায়ন মণ্ডল এবং আকাশ দীপ দু'জনেই স্কোরবোর্ডে দ্রুত রান যোগ করার চেষ্টা করেন। যাতে বাংলা বেশি রানের বোঝা ঝাড়খণ্ডের উপর চাপাতে পারে।

সায়ন ৮৫ বলে ৫৩ করে ফেলেছেন। আর আকাশ দীপ তো এখনও বোধহয় আইপিএলের ভিতরেই ঢুকে রয়েছেন। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গলোরের হয়ে ৫ ম্যাচ খেলে ৫ উইকেট নিলেও তিনি রান করার সুযোগ পাননি। তাই বোধহয় বাংলার হয়েই বেঙ্গালুরুতে ঝড় তোলেন আকাশ দীপ। মাত্র ১৮ বলে ৫৩ রান করেন তিনি।

ঝাড়খণ্ডের সুশান্ত মিশ্র ৩ উইকেট নিয়েছেন। ২ উইকেট নিয়েছেন শাহবাজ নাদিম। ১টি করে উইকেট নিয়েছেন রাহুল শুক্লা এবং অনুকূল রায়।

বড় রানের বোঝা ঝাড়খণ্ডের মাথায় চাপিয়ে বাংলার এখন লক্ষ্য, দ্রুত ঝাড়খণ্ডকে অল আউট করা। বাংলার সাড়ে সাতশোর উপর রান করে পাহাড় গড়ার পিছনে দু'টি বড় কারণ রয়েছে- ১) প্রথম ইনিংসে লিড থাকলে সুবিধে পাবে বাংলা। ২) বড় রান দ্রুত তাড়া করতে গিয়ে উইকেট হারানোর সম্ভাবনা বাড়বে ঝাড়খণ্ডের। সে দিক থেকে দেখতে গেলে এই ম্যাচে চালকের আসনে 

বন্ধ করুন