বাংলা নিউজ > ময়দান > করোনার শিকার, শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন বাংলা ক্রীড়া জগতের গবেষক শিবরাম কুমার
পুরানো ফাইল থেকে শিবরাম কুমারের ছবি (ছবি: ফাইল ছবি)
পুরানো ফাইল থেকে শিবরাম কুমারের ছবি (ছবি: ফাইল ছবি)

করোনার শিকার, শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন বাংলা ক্রীড়া জগতের গবেষক শিবরাম কুমার

প্রায় ১০ বছর অসুস্থ থাকার পরে অবশেষে করোনার শিকার হয়ে মারা গেলেন বাংলা ক্রীড়া জগতের গবেষক শিবরাম কুমার। মৃত‍্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮০ বছর।

করোনার শিকার হলেন বাংলার ক্রীড়া জগতের গবেষক শিবরাম কুমার। শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন গড়ের মাঠের ‘গ‍্যালারি’-র প্রধান সম্পাদক ও বিশিষ্ট সাংবাদিক শিবরাম কুমার। শেষ হয়ে গেল তাঁর দশ বছরের লড়াই। শনিবার শিবরাম কুমারের মৃত‍্যু হয়। মৃত‍্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮০ বছর।

প্রায় ১০ বছর ধরে অসুস্থ ছিলেন তিনি। গত তিন সপ্তাহ ধরে শারীরিক অবস্থার অনেকটা অবনতি হয়। শেষ পর্যন্ত ১৬ এপ্রিল বিটি রোডের এক নার্সিংহোমে তাঁকে ভর্তি করা হয়েছিল। কিন্তু হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর করোনায় আক্রান্ত হন শিবরাম। শেষ পর্যন্ত আর বাড়ি ফেরা হলনা বাংলার ক্রীড়া জগতের প্রথম গবেষককে। 

একটা সময় একার উদ‍্যোগেই রাখাল ভট্টাচার্যের বাংলা ফুটবলের মহামূল‍্য লেখা বই শিবরামবাবুই প্রকাশ করেন। আর বি প্রণীত ‘কলকাতার ফুটবল’ বইটি সম্পাদনা করে প্রকাশ করেন তিনি। এই জন্য তিনি প্রভাবতী প্রকাশনী নামে একটি প্রকাশনাও শুরু করেন। শিবরাম কুমারের প্রথম বই ছিল ‘পেলে ফুটবলের বাদশা’। পরবর্তী বই ‘ক্রিকেটের জাদুকর স্যার ডন’। ‘মোহনবাগান অমনিবাস’ সম্পাদনা করেন তিনি। এছাড়াও ‘কলকাতা স্পোর্টস কুইজ’, ‘বিখ্যাত ক্রিকেটারদের ছেলেবেলা’ এবং ‘সোনার ফ্রেমে মোহনবাগান ১৯১১’ লিখেছিলেন শিবরাম কুমার।

বাংলা ক্রীড়া সাংবাদিক জগতে শিবরাম কুমারের অবদান কখনও ভোলার নয়। অথচ অনেকেই মনে করেন, জীবদ্দশাতে তাঁর কাজের যথাযথ মূল‍্যায়ন করা হয়নি। কেউ সেভাবে সম্মান জানানোর প্রয়োজনও মনে করেনি। যদিও দেরিতে হলেও তাঁর জীবনের শেষ দিকে কলকাতা ক্রীড়া সাংবাদিক ক্লাব তাঁকে সংবর্ধনা দিয়েছিল। এবং পরবর্তি সময়ে তাঁর অসুস্থতার জন‍্য আর্থিক সাহায‍্য করা হয়েছিল।

বন্ধ করুন