বাংলা নিউজ > ময়দান > ভুয়ো দেউলিয়া ঘোষণার জের, জালিয়াতি করে আড়াই বছর শ্রীঘরে বরিস বেকার
বরিস বেকার। ছবি- এপি (AP)

ভুয়ো দেউলিয়া ঘোষণার জের, জালিয়াতি করে আড়াই বছর শ্রীঘরে বরিস বেকার

  • দেউলিয়াত্ব ঘোষণার সময়ে তিনবারের উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন আসলে বিরাট সম্পত্তির কথা গোপন করে যান। বলা ভালো সজ্ঞানে মিথ্যা বলেন।

শুভব্রত মুখার্জি

অনেক চেষ্টা করেও শেষ রক্ষা করতে পারলেন না টেনিস কিংবদন্তি বরিস বেকার। ফলে 'দেউলিয়া' বেকারের জেলে যাওয়ার যে আশঙ্কা তৈরি হয়েছিল সেই ঘটনাকে সত্যি করে তাঁর বিরুদ্ধে আড়াই বছরের জেল হেফাজতে থাকার রায় ঘোষণা করা হল। নিজেকে ভুয়ো দেউলিয়া ঘোষণা করেছিলেন বেকার আর সেই জালিয়াতির জেরেই লন্ডনের কোর্ট তাঁকে শ্রীঘরের রাস্তা দেখায়। ২০১৭ সালে নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করেছিলেন ৬টি গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালিক। তাঁর করা সেই দাবি মিথ্যা প্রমাণিত হল। ৭ বছর পর্যন্ত জেলে কাটাতে হতে পারত প্রাক্তন এই টেনিস তারকাকে। তবে বিচারক তাঁর শাস্তির মেয়াদ আড়াই বছর পর্যন্ত রাখার সিদ্ধান্ত নেন।

কিংবদন্তি টেনিস তারকা বেকার দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় বড়সড় শাস্তির মুখে পড়তে হল তাঁকে। এই দেউলিয়াত্ব ঘোষণার সময়ে তিনবারের উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন আসলে বিরাট সম্পত্তির কথা গোপন করে যান। বলা ভালো সজ্ঞানে মিথ্যা বলেন।

জার্মান তারকার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল প্রাক্তন স্ত্রীর অ্যাকাউন্টে সাড়ে তিন লক্ষ পাউন্ড ট্রান্সফার করে দেন ইচ্ছা করে। সেকথা তিনি তার দেউলিয়াত্বের হলফনামাতে গোপন করে যান। পাশাপাশি একাধিক সম্পত্তি থাকা সত্ত্বেও নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করেন বরিস বেকার। উইম্বলডন ট্রফি, জার্মানিতে একাধিক স্থাবর সম্পত্তি এবং লন্ডনে একটি ফ্ল্যাট রয়েছে তাঁর নামে।

আরও পড়ুন:- England Club: উইম্বলডনে নেই টিকার বাধ্যবাধকতা, গ্রান্ড স্ল্যামের মঞ্চে ফিরতে বাধা নেই জকোভিচের

প্রসঙ্গত স্পেনের শহর মালোরকায় একটি সম্পত্তি কিনতে তিন লক্ষ পাউন্ড ব্যাঙ্ক থেকে লোন নিয়েছিলেন তিনি। সেই ঋণের কিস্তি তিনি পরিশোধ করেননি। উল্টে মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করেন বেকার। আদালতের সামনে তিনি জানান, তাঁর দুটি উইম্বলডন খেতাব নাকি হারিয়ে গিয়েছে। পরবর্তীতে দেখা যায় বিভিন্ন অনলাইন সংস্থা থেকে বহু টাকা খরচ করে জিনিস কিনেছেন তিনি।

তদন্তে ঝুলি থেকে বেরিয়ে পরে বেড়াল। দুই প্রাক্তন স্ত্রী বারবারা ও লিলি-সহ মোট নয় জনের অ্যাকাউন্টে প্রচুর পরিমাণ টাকা তিনি পাঠিয়েছেন নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণার পথ পরিষ্কার করতে। প্রসঙ্গত স্থাবর, অস্থাবর সমস্ত সম্পত্তি মিলিয়ে বেকারের মোট সম্পত্তির পরিমাণ ২.৩ মিলিয়ন আমেরিকান ডলার বা ১.৮ মিলিয়ন পাউন্ড। যে সময় বেকার নিজেকে দেউলিয়া ঘোষণা করেছিলেন সে সময় তার ঋণের পরিমাণ ছিল প্রায় ৫০ মিলিয়ন পাউন্ড। বেকারের নিজেকে দেউলিয়া বলে তোলা যে দাবি তা নিয়ে শুনানিতে তাঁর বিরুদ্ধে সাজা ঘোষণা করেছে লন্ডনের সাউথার্ক ক্রাউন আদালতে।

আরও পড়ুন:- Madrid Open: মাদ্রিদ ওপেনেই কোর্টে প্রত্যাবর্তন ঘটবে রাফায়েল নাদালের

প্রাথমিক শুনানির পর বেশ কিছু তথ্য উঠে এসেছিল, যা বেকারের জন্য একেবারেই স্বস্তিদায়ক ছিল না। আইন বিশেষজ্ঞদের মতে এই তথ্যগুলো জার্মানির এই প্রাক্তন টেনিস তারকার বিরুদ্ধে গিয়েছে। সম্প্রতি ৫৪ বছরের ক্রীড়াবিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল যে তিনি নিজের বেশ কিছু সম্পদের কথা গোপন করেছিলেন। তার ভিত্তিতেই নিজেকে তিনি দেউলিয়া ঘোষণা করেছিলেন। অভিযোগ লন্ডনের চেলসির ফ্ল্যাট এবং জার্মানিতে থাকা আরও দুটি বহুমূল্য সম্পত্তির কথা বেকারের দেওয়া হিসাবে নেই। মানে তার দেউলিয়াত্বের ঘোষনার সময়কালে তা গোপন করা হয়েছিল। প্রাক্তন টেনিস তারকার বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল বেশ কয়েক লক্ষ পাউন্ড নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে সরিয়ে ফেলেছেন। এই অর্থ সরিয়ে তিনি প্রাক্তন স্ত্রী বারবারা বেকার এবং বর্তমান স্ত্রী (এখন আলাদা থাকেন) শার্লে বেকারের অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে তথ্য গোপন করে নিজেকে দেউলিয়া প্রমান করেছেন । এছাড়াও একটি সংস্থার ৭৫ হাজার শেয়ার রয়েছে তার যা তিনি গোপন করেছেন। টেনিস জীবনে জেতা বেশ কিছু ট্রফি-সহ অনেক সম্পত্তির কথাও গোপন করেছেন বেকার।

বন্ধ করুন