বাংলা নিউজ > ময়দান > জাতীয় দলের সতীর্থই কি রোনাল্ডোকে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডে টেনে আনলেন?
রোনাল্ডো ও ব্রুনো ফার্নান্ডেজ। ছবি- গেটি।
রোনাল্ডো ও ব্রুনো ফার্নান্ডেজ। ছবি- গেটি।

জাতীয় দলের সতীর্থই কি রোনাল্ডোকে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডে টেনে আনলেন?

  • সিটির মুঠো থেকে ক্রিশ্চিয়ানোকে ছিনিয়ে আনতে ম্যাঞ্চেস্টারের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিলেন কে? ইঙ্গিত মিলল সোশ্যাল মিডিয়াতেই।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো জুভেন্তাস ছাড়ছেন, এখবর সামনে আসার পর থেকেই পর্তুগিজ তারকার সম্ভাব্য গন্তব্য হিসেবে ম্যাঞ্চেস্টার সিটির নাম আলোচনায় উঠে আসে সবার আগে। রোনাল্ডোর সঙ্গে সিটির চুক্তি প্রায় সারা, এমন খবরও শোনা যায় মাঝে। শেষ মুহূর্তে দৌড়ে নামে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড। শেষমেশ রোনাল্ডোকে নিয়ে শুরু হওয়া ম্যাঞ্চেস্টার ডার্বিতে বাজিমাত করে ইউনাইটেড।

এখন প্রশ্ন হল, হঠাৎ করে সিটিকে পিছনে ফেলে রোনাল্ডোকে ইউনাইটেড জালে তুলল কীভাবে? রোনাল্ডোকে সিটির হাতের মুঠো থেকে ইউনাইটেডে ছিনিয়ে আনলেন কে? ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের সঙ্গে ক্রিশ্চিয়ানোর দ্বিতীয় দফায় চুক্তির পিছনে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিলেন কে?

এমন প্রশ্নের সরাসরি উত্তর না দিলেও ম্যান ইউ কোচ ওলে গানার আগেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন যে, ব্রুনো ফার্নান্ডেজের সঙ্গে কথা হয়েছে রোনাল্ডোর। জাতীয় দলের সতীর্থই কি তবে পর্তুগিজ সুপারস্টারকে ফিরিয়ে আনলেন ইউনাইটেডের আঙিনায়? ফার্নান্ডেজের ছোট্ট একটা টুইটেই সমর্থকদের সেই ধারণা বদ্ধমূল হয়।

ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড সোশ্যল মিডিয়ায় রোনাল্ডোকে স্বাগত জানানোর পরেই রি-টুইটে ব্রুনো ফার্নান্ডেজ লেখেন, ‘এজেন্ট ব্রুনো? ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোকে ঘরে ফেরায় স্বাগত।’

উল্লেখ্য, প্রিমিয়র লিগ জায়ান্টদের তরফে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ‘ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড এটা নিশ্চিত করতে পেরে উচ্ছ্বসিত যে, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর ট্রান্সফার নিয়ে জুভেন্তাসের সঙ্গে আলোচনা চূড়ান্ত করা গিয়েছে।’

বন্ধ করুন