বাংলা নিউজ > ময়দান > অরুণ লালকে কোচ পদ থেকে সরানোর প্ল্যান নেই, দাবি সিএবি-র
বাংলার কোচ অরুণ লাল।

অরুণ লালকে কোচ পদ থেকে সরানোর প্ল্যান নেই, দাবি সিএবি-র

  • অরুণ লালের কোচিংয়ে বাংলা খুব খারাপ খেলছে না। শেষ বার রঞ্জি ফাইনালে খেলেছিল টিম। এ বারও এলিট গ্রুপে শীর্ষে থেকে নকআউটে গিয়েছে বাংলা। তবে অরুণ লালের কোচিং পদ্ধতি নিয়ে টিমে একটা ক্ষোভ রয়েছে। বঙ্গ কোচ নিজেও থাকতে চাইছেন না বলে সিএবি সূত্রে জানা গিয়েছে। যত এই খবরটি ভুয়ো বলে উড়িয়ে দিয়েছেন স্নেহাশিস।

অরুণলাল পরের মরশুমে আর বাংলার কোচ থাকবেন না। ওয়াসিম জাফর, লক্ষ্মীরতন শুক্লার নাম প্রবল ভাবে ঘোরাফেরা করছে। এমন সব খবর শোনা যাচ্ছিল ময়দানে কান পাতলে। তবে এই সমস্ত খবরকে ভুয়ো বলে উড়িয়ে দিল সিএবি। তারা সিএবি-র যুগ্ম সচিব স্নেহাশিস গঙ্গোপাধ্যায় বিজ্ঞপ্তি জারি করে দাবি করেছে, অরুণলালকে কোচের পদ থেকে সরানোর খবর ভিত্তিহীন।

ময়দানের খবর, অরুণলালের কোচিংয়ে বাংলা খারাপ ফল না করলেও, তাঁর কোচিং পদ্ধতি নিয়ে টিমে একটা ক্ষোভ রয়েছে। তাছাড়া বাংলার কোচ নিজেই আর থাকতে চাইছেন না, এমনটা আবার সিএবি সূত্রে জানা গিয়েছিল। যে কারণে ওয়াসিম জাফর এবং লক্ষ্মীরতনের নাম নিয়েও নাকি আলোচনা শুরু হয়ে গিয়েছিল। তবে স্নেহাশিস গঙ্গাপাধ্যায় দাবি করেন, ‘মিডিয়ার কিছু বিভাগে একটি খবর দেখেছি যে সিএবি আগামী মরশুমে নতুন কোচিং স্টাফ নিয়োগের প্রক্রিয়ায় রয়েছে। আমি এখানে স্পষ্ট ভাবে বলে দিতে চাই, এই সংবাদ একেবারেই ভিত্তিহীন। এই গুজবগুলি অপ্রয়োজনীয় এবং ক্ষতিকারক। বিশেষ করে যখন মরশুমের মাঝামাঝি সিনিয়র বেঙ্গল টিম ভাল প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলছে।’

আরও পড়ুন: ৬৬ বছর বয়সে দ্বিতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন মনোজ-ঋদ্ধির কোচ অরুণ লাল

তাঁর আরও বক্তব্য, ‘অরুণ লালের নেতৃত্বে বাংলা ২০২০ সালে রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে পৌঁছেছিল এবং এই মরশুমে আমরা কোয়ার্টার ফাইনালে রয়েছি। দল ভালো খেলছে। কোচিং স্টাফরা চমৎকার কাজ করছে। সিএবি বর্তমান কোচিং স্টাফেদের নিয়ে খুব খুশি এবং এর বিপরীতে যে কোনও খবর মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন।’

বন্ধ করুন