বাংলা নিউজ > ময়দান > ভ্যাকসিন না নিলে অংশ নেওয়া যাবে না টোকিয়ো অলিম্পিক্সে
অলিম্পিক্সের আগে প্রতিযোগীদের ভ্যাকসিন নেওয়া বাধ্যতামূলক।
অলিম্পিক্সের আগে প্রতিযোগীদের ভ্যাকসিন নেওয়া বাধ্যতামূলক।

ভ্যাকসিন না নিলে অংশ নেওয়া যাবে না টোকিয়ো অলিম্পিক্সে

  • অলিম্পিক্স কমিটির তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, প্রতিযোগীতায় অংশ গ্রহণকারী সব অ্যাথলিটকেই করোনার ভ্যাকসিন নিতে হবে। এবং এই ভ্যাকসিন দেবে ফাইজার ও তাঁদের সহযোগী সংস্থা বায়োএনটেক।

টোকিয়ো অলিম্পিক্সের আগে বড় পদক্ষেপ করল অলিম্পিক্স কমিটি। তারা ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক সংস্থা ফাইজার এবং বায়োএনটেকের সঙ্গে চুক্তি করল। এই দুই সংস্থার সঙ্গে বৃহস্পতিবারই মৌ স্বাক্ষর করেছে টোকিয়ো অলিম্পিক্স কমিটির।

করোনা জেরে গত বছর অলিম্পিক্স পিছিয়ে যায়। নতুন সূচি অনুযায়ী এই বছর ২৩ জুলাই থেকে অলিম্পিক্স শুরু হওয়ার কথা। কিন্তু করোনা তীব্র সংক্রমণের জেরে ফের অলিম্পিক্স নিয়ে জটিলতা দেখা দিয়েছে। করোনার জেরে জাপানের অবস্থাও খুবই খারাপ। আদৌ টোকিয়োতে অলিম্পিক্স আয়োজন সম্ভব কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠে গিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে অলিম্পিক্স কমিটির পাশে দাঁড়িয়েছে বিশ্বের দুই ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক সংস্থা।

অলিম্পিক্স কমিটির তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, প্রতিযোগীতায় অংশ গ্রহণকারী সব অ্যাথলিটকেই করোনার ভ্যাকসিন নিতে হবে। এবং এই ভ্যাকসিন দেবে ফাইজার ও তাঁদের সহযোগী সংস্থা বায়োএনটেক। এই ভ্যাকসিন পাবেন প্যারা অলিম্পিকেরও সব প্রতিযোগী। শুধুমাত্র প্রতিযোগীরাই নন, সাপোর্টিং স্টাফ থেকে দলের সঙ্গে থাকা বিভিন্ন সদস্যকেও এই ভ্যাকসিন দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। এমনটাই ঘোষণা করেছে ন্যাশানাল অলিম্পিক্স কমিটি।

অলিম্পিক্সের আগেই অংশগ্রহণকারী দেশের অ্যাথলিটদের সেই দেশেই ভ্যাকসিন দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করবে ফাইজার ও বায়োএনটেক। চুক্তি সই করার পর আন্তর্জাতিক অলিম্পিক সংস্থার প্রধান টমাস বাখ জানিয়েছেন, ‘অনেক ক্রীড়াবিদই রয়েছেন, যাঁরা দেশের রোলমডেল। তাঁরা ভ্যাকসিন নিলে দেশের মানুষের কাছে ভ্যাকসিন নিয়ে একটি ইতিবাচক বার্তা পৌঁছবে।’

বন্ধ করুন