বাংলা নিউজ > ময়দান > Chamika Karunaratne doing Nagin Dance: বাংলাদেশ হারতেই ‘নাগিন ডান্স’ KKR তারকার, ভাইরাল ভিডিয়ো
একেবারে বাঁদিকে নিদহাস ট্রফিতে নাগিন ডান্স বাংলাদেশ। আজ চামিকা করুণারত্নের নাগিন ডান্স। (ছবি সৌজন্যে টুইটার)

Chamika Karunaratne doing Nagin Dance: বাংলাদেশ হারতেই ‘নাগিন ডান্স’ KKR তারকার, ভাইরাল ভিডিয়ো

  • Chamika Karunaratne doing Nagin Dance: ২০১৮ সালের নিদহাস ট্রফি থেকে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে দেওয়ার ‘নাগিন ডান্স’ করেছিলেন বাংলাদেশিরা। এবার পালটা দিলেন শ্রীলঙ্কা তথা কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) তারকা চামিকা করুণাত্নে।

চার বছর আগে ‘নাগিন ডান্স’ করেছিল বাংলাদেশ। এবার তা সুদে-আসলে ফিরিয়ে দিল শ্রীলঙ্কা। এশিয়া কাপের রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে জয়ের পর ড্রেসিংরুম এবং বাউন্ডারির ধারে ‘নাগিন ডান্স’ করতে দেখা গেল শ্রীলঙ্কা তথা কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) তারকা চামিকা করুণাত্নেকে। যে ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুন: SL vs BAN LIVE: রুদ্ধশ্বাস জয়ে সুপার ফোরে শ্রীলঙ্কা, টাইগাররা ফিরছেন দেশে

বৃহস্পতিবার রূদ্ধশ্বাস ম্যাচে বাংলাদেশকে দু'উইকেটে হারিয়ে এশিয়া কাপের ‘সুপার ফোর’-র টিকিট পেয়েছে শ্রীলঙ্কা। অন্যদিকে, কোনও ম্যাচে না জিতেই এশিয়া কাপ থেকে ছিটকে যায় বাংলাদেশ। তারপরই উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়েন শ্রীলঙ্কার খেলোয়াড় এবং সাপোর্ট স্টাফরা। সেইসময় ড্রেসিংরুমে ক্যামেরা তাক করলে চামিকাকে ‘নাগিন ডান্স’ করতে দেখা যায়। পরে বাউন্ডারির ধারেও ‘নাগিন ডান্স’ করেন করুণারত্নে।

শ্রীলঙ্কার তারকার সেই ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় পুরোপুরি ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। নেটিজেনদের বক্তব্য, এটাই হল মধুর প্রতিশোধ। ২০১৮ সালে মাঠের মধ্যে যে কাজটা করেছিলেন বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা, তার উপযুক্ত বদলা নিয়েছে শ্রীলঙ্কা। এক নেটিজেন লেখেন, ‘রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে বাংলাদেশকে হারতে দেখে বরাবরই ভালো লাগে। এবার নাগিন ডান্স কর।’ অপর এক নেটিজেন বলেন, 'ওঁরা (শ্রীলঙ্কার খেলোয়াড়রা) এখনও নাগিন ডান্স মনে রেখেছেন।'

২০১৮ সালে নিদহাস ট্রফিতে কী হয়েছিল?

২০১৮ সালে ত্রিদেশীয় নিদহাস ট্রফিতে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত, শ্রীলঙ্কা এবং বাংলাদেশ। লিগ পর্যায়ের শেষ ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিলেন টাইগাররা। তারপরই মাঠের মধ্যে বাংলাদেশের খেলোয়াড় এবং সাপোর্ট স্টাফরা 'নাগিন ডান্স' করেছিসেন। তা ক্রিকেট মহলে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল। সেইসঙ্গে বাংলাদেশিদের আচরণে শ্রীলঙ্কার মানুষ তুমুল ক্ষিপ্ত হয়েছিল। ফাইনালে ভারতের হয়ে গলা ফাটাতে স্টেডিয়ামে এসেছিলেন শ্রীলঙ্কার সমর্থকরা। ফাইনালে বাংলাদেশ হেরে যেতে পালটা ‘নাগিন ডান্স’ করেছিলেন অনেকে।

এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কা বনাম বাংলাদেশ ম্যাচ

টসে জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক দাসুন শানাকা। নির্ধারিত ২০ ওভারে সাত উইকেটে ১৮৩ রান তোলে বাংলাদেশ। যা সংযুক্ত আরব আমিরশাহির মাটিতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ স্কোর। ২২ বলে ৩৯ রান করেন আফিফ হোসেন। নয় বলে ২৪ রান করেন মোসাদ্দেক হোসেন। ২৬ বলে মেহেদি হাসান মিরাজ করেন ৩৮ রান।

আরও পড়ুন: ১০০-র বেশি T20 খেলা প্লেয়ারদের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ গড় ও স্ট্রাইকরেটের নজির মুশফিকুরের

সেই রান তাড়া করতে নেমে শুরুটা ভালো করে শ্রীলঙ্কা। কিন্তু ষষ্ঠ ওভারে প্রথম উইকেট পড়ার পর ম্যাচের রাশ নিজেদের হাতে নিতে থাকে বাংলাদেশ। একাধিক উইকেটের ধাক্কা সামলে শ্রীলঙ্কার ইনিংস টানতে থাকেন কুশল মেন্ডিস এবং শানাকা। দু'জনে শ্রীলঙ্কাকে ম্যাচে ফিরিয়ে আনেন। কিন্তু সঠিক সময় মেন্ডিসকে আউট করে ম্যাচে ফেরেন শাকিব আল হাসানরা। তারপরও দাসুনের সৌজন্যে ম্যাচে এগিয়ে ছিল শ্রীলঙ্কা। কিন্তু শেষের দিকে দাসুন এবং চামিকা করুণারত্নে আউট হয়ে যাওয়ায় ম্যাচের পাল্লা বাংলাদেশের দিকে ঝুলে যায়। শেষপর্যন্ত পেসার আসিথা ফার্নান্দোর তিন বলে অপরাজিত ১০ রানের সৌজন্যে ম্যাচে জিতে এশিয়া কাপের সুপার ফোরে উঠে যায় শ্রীলঙ্কা।

বন্ধ করুন