বাংলা নিউজ > ময়দান > চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে গতবারের চ্যাম্পিয়ন বায়ার্নকে ছিটকে দিল PSG
সেমিফাইনালে ওঠার পর পিএসজি'র উচ্ছ্বাস। ছবি- টুইটার।
সেমিফাইনালে ওঠার পর পিএসজি'র উচ্ছ্বাস। ছবি- টুইটার।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে গতবারের চ্যাম্পিয়ন বায়ার্নকে ছিটকে দিল PSG

  • অ্যাওয়ে গোলের নিরিখে সেমিফাইনালে নেইমাররা।

শুভব্রত মুখার্জি

২০২০ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিল বায়ার্ন মিউনিখ এবং ফরাসি চ্যাম্পিয়ন পিএসজি। পিএসজির ক্লাবের ৫০ বছরের ইতিহাসে তারা প্রথমবার শেষ মরশুমে ফাইনালে উঠেছিল। কিন্তু সেবার বায়ার্নের কাছে হারের ফলে পিএসজির চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বপ্নপূরন হয়নি। ২০২১ সালের মরশুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বায়ার্নকে ছিটকে দিয়ে পিএসজি সেই হারের মধুর প্রতিশোধ নিল।

প্রসঙ্গত, গত মরশুমে ইউরোপীয়ান ট্রেবেলজয়ী বায়ার্ন মিউনিখ। মঙ্গলবার অর্থাৎ ১৩ই এপ্রিল রাতে পার্ক ডি প্রিন্সেস স্টেডিয়ামে কোয়ার্টার-ফাইনালের ফিরতি লেগে ১-০ গোলে হেরে যায় ফরাসি চ্যাম্পিয়ন পিএসজি। তবে প্রথম পর্বে তারা ৩-২ গোলে জেতায় দুই লেগ মিলিয়ে স্কোরলাইন দাঁড়িয়েছিল ৩-৩। ফলে অ্যাওয়ে গোলের সুবাদে শেষ চারে উঠে গেল নেইমারদের পিএসজি। ছিটকে গেল জার্মান চ্যাম্পিয়ানরা।

ম্যাচ শুরুর আগে বায়ার্নের কাছে সেমিতে খেলার জন্য চিত্রটা পরিষ্কার ছিল। তাদের অন্তত দুই গোলের ব্যবধানে জিততেই হতো। ম্যাচের শুরুর দিকে মুহুর্মুহু আক্রমণে সফরকারীদের ব্যতিব্যস্ত করে তুলেছিল এমবাপ্পে-নেইমার জুটি। পিএসজির হয়ে এদিন অসাধারণ ফর্মে ছিলেন নেইমার জুনিয়র। একাই বায়ার্নের রক্ষণ নিয়ে ছেলেখেলা করছিলেন এই ব্রাজিলিয়ান তারকা। মানুয়েল নয়্যারও এদিন দুরন্ত ফর্মে না থাকলে বায়ার্নের কপালে দুঃখ অবধারিত ছিল।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের গতি অনেকটাই কম ছিল। বিরতির আগে এরিক-মাক্সিম চুপো মোটিংয়ের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল বায়ার্ন। তবে শেষ পর্যন্ত আর গোল করতে না পারায় নক আউট হতে হল তাদের।

বন্ধ করুন