বাংলা নিউজ > ময়দান > সৌরভ-ধোনির নির্মিত ভিতের উপর বাড়ি বানিয়েছেন কোহলি, মান্যতা দিলেন চ্যাপেল
সৌরভ-ধোনির সঙ্গে কোহলির তুলনা করলেন চ্যাপেল (ছবি:টুইটার)

সৌরভ-ধোনির নির্মিত ভিতের উপর বাড়ি বানিয়েছেন কোহলি, মান্যতা দিলেন চ্যাপেল

  • চ্যাপেল ইএসপিএনক্রিকইনফো-এর কলামে লিখেছেন, ‘এমএস ধোনির পর কোহলি যখন ভারতীয় দলের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব নেন, তখন বিরাটকে নিয়ে একটা বড় প্রশ্ন ছিল যে, বিরাট উৎসাহ ও উদ্দীপনা হারাবেন কি না।’

অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন অধিনায়ক ইয়ান চ্যাপেল বলেছেন, বিরাট কোহলি একজন ভিন্ন ধরনের অধিনায়ক। ভারতীয় দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার সময় তিনি তার উৎসাহকে হ্রাস করেন না। দলকে সফলভাবে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন বিরাট কোহলি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে ভারতীয় দল ১-২ ব্যবধানে হেরে যাওয়ার পর টেস্ট দলের অধিনায়কত্বও ছেড়ে দেন বিরাট। এখন তিনি কোনও ফর্ম্যাটেই ভারতীয় দলের অধিনায়ক নন। এবার থেকে তিনটি ফর্ম্যাটেই বিরাট ব্যাটসম্যান হিসেবে টিম ইন্ডিয়ার অংশ হবেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কোহলির সেঞ্চুরি করার পর দুই বছরের বেশি হয়ে গেছে। তাই তার ওপর অনেক চাপ ছিল। এ কারণে প্রথমে টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব ছেড়েছিলেন কোহলি। এরপর তাকে ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। এবং অবশেষে টেস্ট দলের অধিনায়কত্বও ছেড়ে দেন বিরাট।

চ্যাপেল ইএসপিএনক্রিকইনফো-এর কলামে লিখেছেন, ‘এমএস ধোনির পর কোহলি যখন ভারতীয় দলের অধিনায়কত্বের দায়িত্ব নেন, তখন বিরাটের একটা বড় প্রশ্ন ছিল যে, বিরাট উৎসাহ ও উদ্দীপনা হারাবেন কি না। একজন অধিনায়ক হিসেবে তিনি কীভাবে পারফর্ম করবেন, কিন্তু তার কিছুই ছিল না। অধিনায়ক হিসেবে কোহলি যে ব্যতিক্রম ছিলেন তাতে কোনও সন্দেহ ছিল না। তিনি তার উৎসাহ দমন করেননি কিন্তু তবুও তিনি ভারতীয় দলকে সর্বোচ্চ স্তরে নিয়ে যেতে সক্ষম হন। সহ-অধিনায়ক অজিঙ্কা রাহানের সহায়তায়, তিনি বিদেশের মাটিতে ভারতকে এমন সাফল্য এনে দেন, যা অন্য কোনও ভারতীয় অধিনায়ক করতে পারেননি।’

চ্যাপেল আরও বলেন যে বিরাটের অধিনায়কত্বে, ভারতের দুটি বড় জয় ২০১৮-১৯ সালে অস্ট্রেলিয়ায় এবং ২০২১ সালে ইংল্যান্ডে এসেছিল। যেখানে ভারতে তার দল ছিল প্রায় অপরাজেয়। বিরাটের নেতৃত্বে টিম ইন্ডিয়া মাত্র দুটি ম্যাচে হেরেছে। একটি অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে এবং একটি ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং মহেন্দ্র সিং ধোনির উত্তরাধিকার বিরাট কোহলি প্রায় সাত বছর ধরে দলকে এগিয়ে নিয়ে গেছেন। অধিনায়ক হিসেবে তার সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা এসেছে সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে। এই সিরিজে ভারত ১-০ তে এগিয়ে থাকলেও বাকি দুই ম্যাচে হেরেছে। দক্ষিণ আফ্রিকার তরুণ দলের বিরুদ্ধে ভালো করতে পারেনি ভারতীয় জায়ান্টরা।

বন্ধ করুন